Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-২২-২০২০

ভোটের দিন মাঠে থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ৪০ হাজার সদস্য

ভোটের দিন মাঠে থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ৪০ হাজার সদস্য

ঢাকা, ২২ জানুয়ারী - ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের দিন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রায় ৪০ হাজার সদস্য মোতায়েন থাকবে। প্রতিটি কেন্দ্রে ১৬ থেকে ১৮ জন সদস্য থাকবেন। তাদের মধ্যে সাধারণ কেন্দ্রে সাব-ইন্সপেক্টর, কনস্টেবলসহ চারজন এবং ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ছয়জন অস্ত্রধারী সদস্য থাকবেন।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে বৈঠক শেষে এসব তথ্য জানান নির্বাচন কমিশনের (ইসি) জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আলমগীর।

তিনি বলেন, ‘গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্ট হলো ১৮টি কেন্দ্র একটু ঝুঁকিপূর্ণ। বাকি কেন্দ্রগুলোতে ঝুঁকি নেই। ভবিষ্যতেও ঝুঁকি নাই। তবে তারা সবসময়ই সতর্ক আছেন যে, আপডেট রিপোর্ট নেয়ার জন্য। যদি কোথাও এরকম থাকে, তাহলে তারা যথাযথ পদক্ষেপ নেবে।’

‘সেখানে তারা স্পেশাল ব্যবস্থা নেবে যাতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি না ঘটে। এখন পর্যন্ত ১৮টা। তবে এটা কমতেও পারে, বাড়তেও পারে। এটা নির্ভর করে ওই এলাকায় যারা অন্যায় কাজ করতে পারে তাদের ঘোরাফেরা কেমন হচ্ছে, তার ওপরে। তারা সরে গেলে কমে যাবে, এসে গেলে বেড়ে যাবে।’

ঢাকা উত্তরের বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের ওপর হামলার বিষয়ে মো. আলমগীর বলেন, ‘ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে নির্বাচন কমিশন রিটার্নিং কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য। নির্বাচন কমিশন আইনগত কিছু ব্যবস্থা নিতে পারে। বাকি ব্যবস্থাগুলো নির্বাচন কমিশনের না। দেশের প্রচলিত আইন আছে, আদালত আছে, তাদের নেয়ার বিষয়। ৪৮ ঘণ্টা সময় দেয়া হয়েছে, এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য এবং বলা হয়েছে, ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা যেন আর একটিও না ঘটে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বলেছেন, তারা সতর্ক আছেন।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচনের আগে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য সংখ্যা বাড়ানো হবে। তখন অবস্থার আরও উন্নতি হবে।’

‘ভোটের দিন ব্যক্তিগত গাড়ি চলবে না’

ইসির জ্যেষ্ঠ সচিব বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ব্যক্তিগত গাড়ি যেন ব্যবহার করতে দেয়া না হয়। নির্বাচন কমিশন সেটা মেনে নিয়েছে।’

‘লেমেনেটিং পোস্টার আর যেন ব্যবহার না হয়’

লেমেনেটিং পোস্টার নিয়ে আদালতের রায়ের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আদালতের রায়ের ওপরে তো কমিশনের বক্তব্য থাকতে পারে না। তবে রায়ের কপি আমরা এখনও পাইনি। নির্বাচন কমিশনের বক্তব্য হচ্ছে, আর যেন এটার ব্যবহার না হয়। তার মানে যেটুকু ব্যবহার করা হয়েছে, এখন থেকে যেন আর না করা হয়।’

সুত্র : জাগো নিউজ
এন এ /  জানুয়ারী

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে