Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ৬ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-১৮-২০২০

লোকাল বাসে গাদাগাদি সিটে এমপি

লোকাল বাসে গাদাগাদি সিটে এমপি

কলকাতা, ১৮ জানুয়ারি- মন্ত্রী বলুন বা এপি তারা সবাই বড় বড় গাড়ি নিয়ে শহরে ঘুরে বেড়াবেন। প্রয়োজনে সিগন্যালে লাল বাতি জ্বালিয়ে অসংখ্য যানবাহন দাঁড় করিয়ে রেখে সামনে পিছনে দেহরক্ষী নিয়ে চলবে তাদের গাড়িবহর। এটাই তো নিয়ম। কিন্তু সেই নিয়মের তোয়াক্কা করলেন না এক এমপি। তিনি ঠাসাঠাসি ভিড়ের লোকাল বাসে চড়ে গন্তব্যে গিয়ে খবরের শিরোনাম হয়েছেন। তিনি পশ্চিবঙ্গ রাজ্যের বালুরঘাটের আসনের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। ইতিমধ্যে বিজেপি সাংসদের এই কীর্তি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপির সভাপতি নির্বাচন ছিল বৃহস্পতিবার। সকাল ১১টা থেকে ন্যাশনাল লাইব্রেরিতে বৈঠক শুরু হয় তার জন্য। সে বৈঠকে যোগ দিতেই ট্রেনে করে শিয়ালদহ স্টেশনে পা রাখেন তিনি। স্টেশন থেকে বেরিয়ে লক্করঝক্কর মার্কা ভিড়ের বাসে চড়ে বসেন চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউয়ের দিকে যাওয়ার জন্য। এভাবে গাদাগাদি করে গন্তব্যে পৌঁছান তিনি। তার এই বাসযাত্রার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হওয়ার পরই গোটা রাজ্য জুড়ে চলছে আলোচনা।

এ সম্পর্কে তিনি স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম আনন্দবাজারকে বলেন, ‘শুধু কলকাতায় নয়, বালুরঘাটেও আমি আগের মতোই সাধারণ ভাবেই চলাফেরা করি। স্কুটি নিয়ে ঘুরি।’

প্রসঙ্গত, সুকান্ত মজুমদার পেশায় অধ্যাপক। ২০১৯ সালেই প্রথমবার তিনি ভোটে লড়েন এবং বালুরঘাট আসন থেকে বিজেপি সাংসদ নির্বাচিত হন।

সাংসদ হওয়ার পরে সুকান্ত মজুমদারকে নিরাপত্তা দিয়েছে রাজ্য সরকার। একজন কনস্টেবল সর্বক্ষণ তার নিরাপত্তারক্ষী হিসেবে থাকেন। কিন্তু সুকান্ত কখনও ওই নিরাপত্তারক্ষীকে নিয়ে কলকাতায় আসেন না। তিনি আসেন দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে। আর তার নিরাপত্তারক্ষী থাকে বালুরঘাটেই।

বৃহস্পতিবারও দলেবলেই কলকাতায় এসছিলেন সুকান্ত। শিয়ালদহে নামার পরে সবাই মিলে একসঙ্গেই বাসে ওঠেন। বাসের সিটে ঠাসাঠাসি অবস্থায় এমিপি সকান্তের ছবিটা তুলেছেন তারই এক সঙ্গী।

এই এমপি সাধারণের সঙ্গে বাসে বা ট্রেনে চলাচল করতে কোনোরকম অস্বস্তি বোধ করেন না। কারণ এভাবেই চলাফেরা করেই তো অভ্যস্ত তিনি। কেননা এতে করে সাধারণ মানুষের সঙ্গে সখ্যতা আরো বাড়ে। তারা নেতাদের নিজেদের কাছের মানুষ বলে ভাবতে পারেন। তাই তো সুকান্ত মনে করেন, অন্য নেতা ও এমপিদেরও এভাবেই চলাফেরা করা উচিত। আহা আমাদের এমপিরাও যদি সাকান্তের মতো ভাবতে পারতেন!

আর/০৮:১৪/১৮ জানুয়ারি

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে