Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ৯ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-০৩-২০২০

বনানী পার্কের আধুনিকায়নের কাজ চলছে

বনানী পার্কের আধুনিকায়নের কাজ চলছে

ঢাকা, ০৩ জানুয়ারি- বনানীর ১৮ নম্বর সড়কের বনানী ক্লাব মাঠটি আধুনিকায়ন ও সংস্কারের কাজ চলমান রয়েছে। নারী-শিশুদের প্রাধান্য দিয়ে বনানীর পার্কটি বদলে দেওয়ার কাজ শুরু করা হয়েছে। অধুনিকায়নের মাধ্যমে বনানী পার্কটি হবে সবুজের ছায়ায় ঘেরা। পার্কটির আরেকটি বৈশিষ্ট্য হবে, এটা দুর্যোগ পরিস্থিতিতে নগরবাসীর জন্য আশ্রয়স্থল হিসেবেও ব্যবহৃত হবে।

এর আগে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকায় ২২টি পার্ক ও ৮টি খেলার মাঠ সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছে ডিএনসিসির পরিবেশ, জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ।

সরেজমিনে মাঠটি ঘুরে দেখে গেছে, মাঠটির দক্ষিণ দিকে খেলাধুলা করা জায়গা ফাঁকা রেখে উত্তর দিক থেকে কাজ শুরু করেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। নানান নির্মাণ সামগ্রী উত্তর দিকে জমা করা হয়েছে। সেখান থেকেই আধুনিকায়ন ও সংস্কারের কাজ করছেন নির্মাণ শ্রমিকরা। মাঠটির আয়তন ১ দশমিক ২১ একর। পার্কটি সংস্কার ও উন্নয়নে ব্যয় ধরা হয়েছে ৭ কোটি ৭৫ লাখ টাকা।

পার্কটিতে নির্মাণ কাজে অংশ নেওয়া শ্রমিকদের সমন্বয়ক জামাল উদ্দিন জানান, মাঠটিতে যেন সবাই খেলাধুলা-হাঁটাহাঁটি করতে পারেন সে কারণে মাঠের চারদিকে উন্মুক্ত রেখে উত্তর দিকে থেকে আমারা কাজ করছি।

জানা গেছে, পার্কটিতে বসানো হবে, শিশুদের বিনোদনের বিভিন্ন উপকরণ, ওয়াকওয়ে এবং সাইকেল লেন। এমনকি ক্লোজড সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার মাধ্যমে পর্যবেক্ষণের সুবিধাও থাকবে। এছাড়া নারীদের জন্য বিশেষ বসার স্থান, গণশৌচাগারও রাখা হবে। বনানী পার্ক তৈরির নকশার কাজ করেছে ভিত্তি স্থপতিবৃন্দ লিমিটেড।

এ মাঠটি এক সময় ঢাকা ইমপ্রুভমেন্ট ট্রাস্টের মালিকানায় ছিল। এরপর সিটি করপোরেশনের মালিকানায় আসে। সম্প্রতি বনানী সোসাইটিকে সঙ্গে নিয়ে বনানীর মাঠ ও পার্ক উন্নয়নের কাজ করছে ডিএনসিসি।

এ বিষয়ে ডিএনসিসির পরিবেশ, জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী তারিক বিন ইউসুফ জানিয়েছেন, বনানীর পার্কটিতে মূলত নারী ও শিশুদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে নির্মাণ করা হচ্ছে। পার্কটি হবে খোলামেলা, সবুজ আর ছায়ায় ঘেরা। এখানে শিশুদের বিনোদনের বিভিন্ন উপকরণ, ওয়াকওয়ে, সাইকেল লেন তৈরি করা হবে। নারীদের জন্য হাঁটার ব্যবস্থা, বসার স্থান, গণশৌচাগারসহ থাকবে আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা থাকবে।

পার্কটিতে প্রতিদিন খেলতে আসেন শিক্ষার্থী নিলয় এবং তার বন্ধুরা। নিলয় বলেন, 'আমরা এখানে প্রতিদিন খেলতে আসি। শুনেছি পার্কটি নতুন করে সাজানো হবে। যে কারণে নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। এলাকায় মাঠটি ছাড়া আর কোনো মাঠ নেই। তাই আমাদের এটা ছাড়া আর কোনো খেলার জায়গা নেই। যে কারণে আমরা চাই, মাঠটির কাজ তাড়াতাড়ি শেষ হোক। এ কাজের জন্য যেন দীর্ঘদিন পার্কটি বন্ধ না থাকে।'

আর/০৮:১৪/০৩ জানুয়ারি

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে