Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-১৫-২০১৯

লাল-সবুজে মোড়ানো বীর শহীদদের কবর

লাল-সবুজে মোড়ানো বীর শহীদদের কবর

সুনামগঞ্জ, ১৬ ডিসেম্বর - লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে আজকের এই বাংলাদেশ। জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার বাঁশতলা শহীদ স্মতিসৌধে নেয়া হয়েছে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। বাঁশতলা শহীদ স্মৃতিসৌধে ১৫ জন শহীদ মুক্তিযোদ্ধার কবর রয়েছে। তাদের কবরের ওপরে জাতীয় পতাকার আদলে লাল-সবুজের টাইলস লাগানো হচ্ছে। স্থানীয় সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিকের প্রচেষ্ঠায় এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা।

সরেজমিনে দোয়ারাবাজার উপজেলার বাঁশতলা (হকনগর) এলাকার বাঁশতলা শহীদ স্মৃতিসৌধে গিয়ে দেখা যায়, ১৫ জন শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধার কবর জাতীয় পতাকার আদলে তৈরি হচ্ছে। ১৫টি কবরের মধ্যে বর্তমানে সাতটি কবরের কাজ শতভাগ শেষ হয়েছে। বাকি কবরগুলোতে কাজ চলছে।

স্থানীয়রা জানান, এ বাঁশতলা শহীদ স্মৃতিসৌধ মনে করে দেয় এখানকার মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস। ডাউক থেকে সুনামগঞ্জ এবং বৃহত্তর ময়মনসিংহ সীমান্তবর্তী অঞ্চল নিয়ে গঠিত হয় মুক্তিযুদ্ধের পাঁচ নম্বর সেক্টর। এ সেক্টরের কমান্ডার ছিলেন কর্নেল মীর শওকত আলী। মুক্তিযুদ্ধের সময় বাঁশতলা ও আশপাশের এলাকার যারা শহীদ হয়েছিলেন তাদেরকে সমাহিত করা হয় এ বাঁশতলা (হকনগরের) নির্জন স্থানে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের মৃত্যুর পর জাতীয় পতাকা ও রাষ্টীয় সম্মাননা প্রদর্শন করা হয়। বর্তমানে যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে সেটি প্রশংসনীয়। আমরা চাই প্রতিটা মুক্তিযোদ্ধার সৌভাগ্য যেনো এ রকম হয়। মৃত্যুর পরও কবরের ওপর দেশের পতাকা থাকবে সেটি একজন দেশ প্রেমিমের জন্য গর্বের। আমি চাই সরকার যে উদ্যোগ নিয়েছে সেটি যেনো রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়।

স্থানীয় সাংবাদিক এমএ মোতলিব ভূঁইয়া বলেন, যাদের রক্তের বিনিময়ে আজকের এই বাংলাদেশ আমরা পেয়েছি তাদের কবর লাল-সবুজের পতাকার আদলে মোড়ানো হচ্ছে। সত্যিই এটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। কিন্তু বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় বাঁশতলা শহীদ স্মৃতিসৌধটি ছাতক উপজেলায় অবস্থিত বলে প্রচার হচ্ছে। বাস্তবে এটি দোয়ারাবাজার উপজেলায় অবস্থিত। আমরা শুরুতেই বর্তমান প্রজন্মের কাছে ভুল তথ্য দিচ্ছি। এ দিকে প্রশাসনের নজর দেয়া উচিত।

সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ বলেন, ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে এই জেলার বীর সন্তানসহ বিভিন্ন জেলা থেকে আগত বীর সন্তানেরা শাহাদত বরণ করেছেন। তাদের মধ্যে দোয়ারাবাজার উপজেলায় ১৫ জন ও সদর উপজেলায় ৪৮ জনের কবর রয়েছে। এই কবরগুলো যথাযথভাবে সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। দোয়ারাবাজার উপজেলা প্রশাসনের তদারকিতে বাঁশতলা শহীদ স্মৃতিসৌধের কাজ চলছে।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৬ ডিসেম্বর

সুনামগঞ্জ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে