Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ , ৬ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-১৩-২০১৯

‘কেন্দ্রীয় নেতা’ থেকে উপদেষ্টা হচ্ছেন যারা

‘কেন্দ্রীয় নেতা’ থেকে উপদেষ্টা হচ্ছেন যারা

ঢাকা, ১৪ ডিসেম্বর- আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীতে মুকুল বোস, মোজাফফর হোসেন পল্টু, আলহাজ্ব মকবুল হোসেনের মত ব্যক্তিদের যেমন জায়গা দেওয়া হয়েছে তেমনি স্থান পেয়েছেন তোফায়েল হোসেন, আমির হোসের আমুর মত জাদরেল নেতারা।

বিভিন্ন ক্ষেত্রে যারা বুদ্ধিভিত্তিক চর্চা করেন ড. গওহর রিজভী, ড. মশিউর রহমান, ড. জমিরউদ্দীন, ব্যরিস্টার শফিক আহমেদ, ড. রুহুল হক, ড. আব্দুল খালেক, অ্যাডভোকেট রেজাউর রহমান, ড. অনুপম সেন, ড. হোসেন মনসুরের’র মত যারা বুদ্ধিভিত্তিক চর্চা করেন এরকম অনেকেই স্থান পেয়েছে এই ৪৪ সদস্যের আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীত। আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো বলছে, এবার কাউন্সিল অধিবেশনে উপদেষ্টা মণ্ডলীকে ঢেলে সাজানো হতে পারে। কারণ দলে যারা দীর্ঘদিন অবদান রেখেছেন, প্রবীণ হয়েছেন দলের কার্যক্রমে কিন্তু এখন সেরকমভাবে অবদান রাখতে পারছেন না। তাদেরকে কোন কিছুতে না রেখে উপদেষ্টামণ্ডলীতে রাখার একটি চিন্তাভাবনা চালু হয়েছিল গত কাউন্সিল থেকেই। সেই ধারায় এবার উপদেষ্টামণ্ডলীকে সাজানো হতে পারে বলে আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্র মনে করছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো মনে করছে যে, রাজনীতি এবং জ্ঞানভিত্তিক চর্চায় প্রবীণদের দিয়ে উপদেষ্টা মণ্ডলী গঠনের চিন্তাভাবনা চলছে। উপদেষ্টা মণ্ডলীর ক্ষমতা এবং কার্যক্রম বাড়ানোরও পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে বলে আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো মনে করছে। এখন উপদেষ্টামণ্ডলীর কার্যক্রম কিছুই নেই। শুধুমাত্র আওয়ামী লীগ সভাপতি যখন তাদেরকে ডাকেন। সেক্ষেত্রে বছরে দুইটি বা তিনটি বৈঠক ছাড়া তাদের কোন কার্যক্রম চোখে পড়ে না। উপদেষ্টা মণ্ডলীর ব্যক্তিগত ইমেজ এবং ব্যক্তিগত যোগ্যতা ছাড়া সদস্য হিসেবে কোন দায়িত্বও নেই। এবার উপদেষ্টামণ্ডলীকে সুনির্দিষ্ট দায়িত্বের কথা বলা হয়েছে।

বতর্মানে যে উপদেষ্টা কমিটি আছে তা অনেকটাই নিষ্ক্রিয়। উপদেষ্টামণ্ডলীর কার্যক্রমে তেমন অংশগ্রহণ করে না। উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্যদের দলীয় কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করতেও তেমন দেখা যায় না অনেককে। এরকম যারা আছেন তাদেরকে উপদেষ্টামণ্ডলী থেকে আস্তে আস্তে বাদ দিয়ে নতুনদের নিয়ে আসার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। যেমন আওয়ামী লীগের ৪০ সদস্যর উপদেষ্টামণ্ডলীর ইতিমধ্যে দুজন মৃত্যুবরণ করেছেন। সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত এবং আলহাজ্ব ইসহাক মিয়ার দুটি শুন্যপদ পূরণ করা ছাড়াও যারা উপদেষ্টামণ্ডলীতে এমনকিছু ব্যক্তি আছেন যারা দলীয় কর্মকাণ্ডে তেমন সক্রিয় নন, তাদেরকেও উপদেষ্টামণ্ডলী থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, বর্তমানে আওয়ামী লীগের অনেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আছেন যাদের বয়স হয়েছে এবং দীর্ঘদিন দলের কর্মকাণ্ডে অংশ নিয়েছেন তাদের উপদেষ্টামণ্ডলীতে আনতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, বেগম সাজেদা চৌধুরী যে প্রেসিডিয়ামের পদ ছেড়ে উপদেষ্টামণ্ডলীতে যাবেন এটা মোটামুটি নিশ্চিত। এছাড়াও দলের অন্যতম প্রভাবশালী সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরীরও উপদেষ্টামণ্ডলীতে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়ামের আরেক সদস্য কাজী জাফরুল্লাহও যিনি বারবার নির্বাচনে পরাজিত হন কিন্তু দলের প্রভাবশালী নেতা তারও উপদেষ্টা মণ্ডলীতে চলে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন এমপিরও প্রেসিডিয়াম থেকে উপদেষ্টামণ্ডলীতে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে আওয়ামী লীগের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র বলছে। এছাড়াও শ্রী রমেশ চন্দ্র সেন যিনি প্রেসিডিয়ামে আছেন, শ্রী পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্যকেও প্রেসিডিয়াম থেকে উপদেষ্টামণ্ডলীতে চলে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র বলছে।

তবে উপদেষ্টা মণ্ডলীর সুনির্দিষ্ট কোন কার্যক্রম থাকবে কিনা বা কি ধরনের কার্যক্রম থাকবে তা এখনো নিশ্চিত নয়।

আর/০৮:১৪/১৪ ডিসেম্বর

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে