Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২০ , ১৩ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-১০-২০১৯

গ্রাহকের স্বাক্ষর জাল করে ৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ করলেন ম্যানেজার

গ্রাহকের স্বাক্ষর জাল করে ৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ করলেন ম্যানেজার

ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর- গ্রাহকের পাঁচ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের বনানী শাখার (প্রিভিলেজ সেন্টার) সাবেক অ্যাসিসটেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ও সেন্টার ম্যানেজার জাহিদ সারোয়ার ও তার স্ত্রী ফারহানা হাবিবের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

তাদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯, ৪২০, ৪৬৭, ৪৬৮, ৪৭১ ও ১০৯ ধারা, ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারা এবং মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২-এর ৪(২) ও ৪(৩) ধারায় মামলাটি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ এ মামলাটি করেন দুদক প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. শফিউল্লাহ। দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

জানা গেছে, কৌশলে স্বাক্ষর জাল করে এক গ্রাহকের হিসাব থেকে প্রায় ৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেন মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের ওই কর্মকর্তা ও তার স্ত্রী।

জাহিদ সারোয়ার বর্তমানে অবসরে আছেন। ২০১৬ সালের ৩০ অক্টোবর থেকে ২০১৮ সালের অক্টোবরের মধ্যে ওই অর্থ আত্মসাতের ঘটনা ঘটে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ব্যাংক কর্মকর্তা জাহিদ সারোয়ার অসৎ উদ্দেশ্যে গ্রাহক ফেরদৌসী জামানের মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের বনানী শাখার হিসাব নম্বরের (০০৩৪-০৪৩০০০২৬৫০) অর্থ আত্মসাতের উদ্দেশ্যে স্বাক্ষর জাল করে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের কথা বলে ব্যাংক হিসাবের মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করেন। এরপর হিসাবধারী ফেরদৌসী জামানের নামে চারটি চেক বই ইস্যু করেন ওই কর্মকর্তা।

যার একটি গ্রাহক ফেরদৌসী জামানকে দিলেও তিনটি চেকবই নিজের কাছে রাখেন। ওই তিনটি চেকবইয়ের ৬০টি চেকের পাতায় হিসাবধারী ফেরদৌসী জামানের এবং ১৬টি চেকে গ্রাহকের বেয়ারার মো. ইশতিয়াক হোসেন তালুকদারের স্বাক্ষর জাল করে ৪ কোটি ৯৭ লাখ ৮০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন।

এর মধ্যে দুই কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্র্যাক ব্যাংকের বসুন্ধরা শাখায় তার স্ত্রী ফারহানা হাবিবের মালিকানাধীন আশা ক্রিয়েশনের নামে ব্যাংক হিসাব নম্বরে (১৫২১২০২৬৫১৩৯৬০০১) জমা করেন ওই কর্মকর্তা।

দুদক সূত্র আরও জানায়, ফারহানা হাবিব তার স্বামী জাহিদ সারোয়ারের অবৈধভাবে উপার্জিত টাকা তার মালিকানাধীন আশা ক্রিয়েশন নামীয় হিসাবে জমা দেয়ার সহযোগিতা করেন। এ জন্য স্বামী-স্ত্রী উভয়কে আসামি করে মামলা করা হয়।

সূত্র: জাগো নিউজ

আর/০৮:১৪/১০ ডিসেম্বর

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে