Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২০ , ৮ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০৯-২০১৯

‘হাতে টেঁটা দেখলেই গ্রেফতার’

‘হাতে টেঁটা দেখলেই গ্রেফতার’

নরসিংদী, ০৯ ডিসেম্বর- নরসিংদীতে টেঁটা প্রদর্শন বা হাতে দেখলেই গ্রেফতার করা হবে। পৈচাশিক উপায়ে মানুষকে হত্যা বা আহত করা থেকে বিরত রাখতে এ ঘোষণা দিয়েছেন নরসিংদী পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার।

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, হামলা ও ভাংচুর রুখতে টেঁটা উদ্ধার অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে ৫ শতাধিক টেঁটা উদ্ধার করা হয়। এ সময় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৩ জনকে আটক করা হয়।

সোমবার সন্ধ্যায় পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ সব তথ্য জানানো হয়।

এর আগে সকালে পূর্ব শত্রুতা ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের বাড়িতে হামলা চালায়। এতে উভয়পক্ষের ১০ জন আহত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার বলেন, এক সময় এই টেঁটা দিয়ে মাছ ধরা হতো। এখন মানুষ হত্যা করা হয়। টেঁটাযুদ্ধ বা টেঁটা দিয়ে মানুষকে আঘাত করার দৃশ্যটা কতটা অমানবিক তা প্রত্যক্ষ না করলে বোঝার কোনো উপায় নেই।

তিনি বলেন, আমরা আধুনিক যুগে বসবাস করছি। আমাদের চরাঞ্চলে শিক্ষার হার বেড়েছে। অর্থনৈতিক মুক্তি হয়েছে। তবে কেন হানাহানি।

তিনি আরও বলেন, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে নজরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, আলীপুরা গ্রামের বাসিন্দা শাহজাহান মিয়া ও একই গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা কামাল মিয়ার মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে কামাল মেম্বারের লোকজন সকালে ঘুমন্ত মানুষের ওপর টেঁটাসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে গ্রামবাসীর সহায়তায় পুলিশ আহতদের নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। এদের মধ্যে একজনকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়।

সূত্র : যুগান্তর
এন কে / ০৯ ডিসেম্বর

নরসিংদী

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে