Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২০ , ১৩ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০৮-২০১৯

ফাইনালের আগে বড় হারেও চিন্তিত নন অধিনায়ক শান্ত

ফাইনালের আগে বড় হারেও চিন্তিত নন অধিনায়ক শান্ত

কাঠমুন্ডু, ০৮ ডিসেম্বর - শ্রীলঙ্কা নারী দলকে ২ রানে হারিয়ে সাউথ এশিয়ান গেমসের নারী ক্রিকেটের স্বর্ণ নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। আগামীকাল (সোমবার) একই দেশের অনূর্ধ্ব-২৩ পুরুষ দলের বিপক্ষে স্বর্ণ জয়ের মিশনে নামবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল।

তার আগে আজ (রোববার) বড়সড় এক ধাক্কাই খেয়েছে বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টের প্রথম তিন ম্যাচে ভুটান, মালদ্বীপ ও নেপালের বিপক্ষে সহজ জয় পাওয়ার পর প্রথম রাউন্ডের শেষ ম্যাচে ফাইনালের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাত্তাই পায়নি বাংলাদেশ। ব্যাটিং-বোলিং উভয় বিভাগের ব্যর্থতায় ম্যাচ হেরেছে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে।

তবে এত বড় পরাজয়ের পরেও খুব একটা চিন্তিত নন বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। অবশ্য শ্রীলঙ্কার কাছে হারা এ ম্যাচটিতে ছিলেন না শান্ত নিজে, অধিনায়কত্ব করেছেন সাইফ হাসান। এছাড়া ফর্মে থাকা সৌম্য সরকারকেও বিশ্রাম দেয়া হয়েছিল ম্যাচে। টানা খেলার ধকল সামাল দিতেই শান্ত, সৌম্য ও হাসান মাহমুদকে একাদশের বাইরে রেখেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলেছে বাংলাদেশ।

তাই এ ম্যাচের ফলাফল নিয়ে ভাবছে না বাংলাদেশ দল। বরং নিচের সারির ব্যাটসম্যানরা ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাওয়াতেই খুশি অধিনায়ক শান্ত। ফাইনালের আগে একই প্রতিপক্ষের কাছে বড় ব্যবধানে হারলেও এটি দলের ওপর নেতিবাচক ছাপ ফেলছে না বলেই জানান তিনি।

ম্যাচ শেষে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে শান্ত বলেন, ‘সাধারণত আমরা যে দলটা খেলি, আজকে সেটা ছিলো না। কিছু ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দেয়া হয়েছে। নয়তো টানা ৪ ম্যাচ (ফাইনালসহ) খেলা কঠিনই হতো। টিম ম্যানেজম্যান্টের সাথে কথা বলেই সিদ্ধান্তটা নেয়া হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শেষের দিকের ব্যাটসম্যানরা তেমনভাবে ব্যাটিং করার সুযোগ পায়নি আগের ম্যাচগুলোতে। যারা ব্যাটিং করার সুযোগ পায়নি, তাদের আজকে আমরা সেই সুযোগটা দিতে চেয়েছি। যাতে করে তাদের কনফিডেন্স বিল্ড আপ হয়। তো আমি তেমন নেতিবাচক কিছু চিন্তা করছি না। আমি মনে করি, আমাদের ব্যাটসম্যানদের জন্য এটা ভালোই হইছে।’

অন্যদিকে দলের কোচ চম্পকা রামানায়েকে দুষছেন শুরুর দিকের ব্যাটিংকে। মাত্র ২১ রানেই টপঅর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান সাজঘরে ফিরে যাওয়ায় সংগ্রহটা বড় করা যায়নি বলে মনে করেন এ লঙ্কান কোচ।

তার ভাষ্যে, ‘ব্যাটিংয়ে প্রথম ১০ ওভার সবসময়ই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের ১৭০-১৮০ রান করা উচিত ছিলো। কিন্তু সেটা হয়নি। শেষ দুই ম্যাচেই আমরা পরের দশ ওভারে ভালো খেলেছি, প্রায় ১০০’র মতো রান করেছি। প্রথম পাওয়ার প্লে’তে আমরা এত উইকেট হারাতে পারি না। ছয় ওভারে ১ উইকেটের বেশি না হারালে বড় স্কোর গড়া যায়, অন্যথায় না।’

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ০৮ ডিসেম্বর

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে