Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০ , ৬ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০৮-২০১৯

‘জিয়া-এরশাদ-খালেদা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের প্রতিষ্ঠিত করেছেন

‘জিয়া-এরশাদ-খালেদা বঙ্গবন্ধুর খুনিদের প্রতিষ্ঠিত করেছেন

পিরোজপুর, ০৮ ডিসেম্বর- গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম বলেছেন, জিয়া, এরশাদ ও খালেদা জিয়া স্বাধীনতাবিরোধী এবং বঙ্গবন্ধুর খুনিদের রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এ জঞ্জাল সরিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।

পিরোজপুর মুক্ত দিবস উপলক্ষে রোববার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে গোপালকৃষ্ণ টাউন ক্লাব মাঠে নবনির্মিত স্বাধীনতা মঞ্চের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, আজ পিরোজপুর মুক্ত দিবসে উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাদের শপথ নিতে হবে যে বা যারা মুক্তিযোদ্ধাদের নির্বিচারে ফাঁসিতে ঝুলিয়েছে, যারা রাজাকার, আলবদরদের দেশের মন্ত্রী বানিয়েছেন তাদের সঙ্গে কখনও কোনো সম্পর্ক করা যাবে না।

তিনি বলেন, বেগম জিয়া ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর খুনি ফারুক রহমানকে সংসদে বিরোধী দলের নেতা বানিয়েছিলেন। পাকিস্তান পুনরুদ্ধার কমিটির সভাপতি গোলাম আযমকে পাকিস্তানি পাসপোর্ট নিয়ে এ দেশে এসে বাংলাদেশবিরোধী কর্মকাণ্ড পরিচালনার সুযোগ করে দিয়েছিলেন সে সময়ের রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রথম ভাতা দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে। সেই ভাতা আজ ১২ হাজারে উন্নীত হয়েছে। দেয়া হচ্ছে ঈদ বোনাস, বিজয় ভাতা, বৈশাখী ভাতা। আজ মুক্তিযোদ্ধারা সমাজে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারছেন, বিভিন্নভাবে সম্মানিত হচ্ছেন শুধু শেখ হাসিনার আন্তরিকতার কারণে।

জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি শেখ এ্যানী রহমান, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন, পৌর মেয়র আলহাজ হাবিবুর রহমান মালেক, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রশাসক নাহিদ ফারজানা সিদ্দিকী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এম এ হাকিম হাওলাদার, মুক্তিযোদ্ধা এবং সাবেক জেলা ও দায়রা জজ আব্দুস সালাম সিকদার, মুক্তিযোদ্ধা গৌতম চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি রেজাউল করিম শিকদার মন্টু।

উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালের ৮ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধারা পিরোজপুর শহরের দিকে এগিয়ে এলে হানাদার বাহিনী বরিশালের দিকে পালিয়ে যায়, মুক্ত হয় তৎকালীন মহাকুমা পিরোজপুর। দিবসটি উপলক্ষে মন্ত্রী আজ শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দেন। এরপর শুরু হয় আনন্দ র‌্যালি। এতে মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তান এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন।

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/০৮ ডিসেম্বর

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে