Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০ , ১১ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০৮-২০১৯

রোকেয়া হলে ছেলে নিয়ে ঢুকলেন ছাত্রলীগ সেক্রেটারি

রোকেয়া হলে ছেলে নিয়ে ঢুকলেন ছাত্রলীগ সেক্রেটারি

ঢাকা, ৮ ডিসেম্বর- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) রোকেয়া হলে ছেলে নিয়ে প্রবেশের অভিযোগ উঠেছে হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী দিশার বিরুদ্ধে। শনিবার দুপুরে ২ জন ছেলে নিয়ে হলে প্রবেশের অভিযোগ ওঠে। ছাত্রী হলের অভ্যন্তরে ছেলে নিয়ে প্রবেশ করায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শনিবার দুপুরে রোকেয়া হলের সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী দিশা সমাবর্তনের গাউন পরিহিত অবস্থায় দু’জন ছেলে নিয়ে হলে প্রবেশ করেন। ছেলে দুটিকে গেস্টরুমে না বসিয়ে হল ক্যান্টিনে নিয়ে যান। তাদেরকে সাথে নিয়ে সেখানে দুপুরের খাবার শেষ করেন। তবে ছেলে নিয়ে হলে প্রবেশের পূর্বে গেটম্যানরা কোন প্রকার বাঁধা প্রদান করেননি।

এ বিষয়ে রোকেয়া হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী দিশা বলেন, আজকে কনভোকেশনের পর আমার সাথে থাকা দুটো ছোট ভাই ক্ষুধার্ত হয়ে পড়ে। আমিও ওই সময় ক্লান্ত ছিলাম। যার কারণে তাদেরকে খাওয়ানোর জন্য হলের ক্যান্টিনে নিয়ে আসি। হলের শিক্ষার্থী সাইয়্যেদা আফরিন শাফী জানান, ছাত্রী হলগুলোতে ছাত্রীরা ছাড়া অন্য কেউ প্রবেশের অধিকার রাখে না। এমনকি মা-বোনও না। হলের আবাসিক শিক্ষার্থী ছাড়া অন্য সবাইকে গেস্টরুম পর্যন্ত আসার সুযোগ দেওয়া হয়। এর ভেতরে প্রবেশের কোন সুযোগ নেই। কিন্তু শ্রাবণী দিশা এই নিয়ম লঙ্ঘন করে ছাত্রীদের নিরাপত্তাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, এমনিতে রাস্তা-ঘাটেই মেয়েরা শান্তিতে চলাফেরা করতে পারে না। গণহারে হলে ছেলে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ ঘটলে বাকি মেয়েরা হলেও ভিতরেও আর স্বচ্ছন্দে চলাফেরা করতে পারবে না। আজকে রোকেয়া হলের সাধারণ সম্পাদক ছেলে নিয়ে ঢুকেছেন কিন্তু তিনি কি অন্য ছাত্রীদের নিরাপত্তার কথা ভেবেছিলেন? এক ছাত্রী বলেন, ‘মেয়েরা হলের ভেতর ইনফরমাল ড্রেসে চলাফেরা করে। এভাবে হঠাৎ করে অপরিচিত দুটো ছেলেকে নিয়ে প্রবেশ করার আগে তার ঘোষণা দেওয়া উচিত ছিলো যে তিনি ছেলে নিয়ে প্রবেশ করবেন। তাতে অন্ততপক্ষে মেয়েরা সাবধান হতে পারতো।’

ফারজানা আক্তার নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘নিজের মাকে নামাজ পড়ানোর জন্য নামাজ কক্ষে আনতে পারিনি, দেশের শেষ প্রান্ত টেকনাফ থেকে আসা ক্লান্ত মাকে গেস্ট রুম থেকে বিদায় দেওয়া লাগে। গেটের দাদুগুলোও রাজনীতিতে পারদর্শী।’ এ বিষয়ে জানতে রোকেয়া হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক জিনাত হুদাকে কল দেওয়া হলে তিনি কথা বলতে রাজি হননি।

সূত্র: বিডি২৪লাইভ

আর/০৮:১৪/০৮ ডিসেম্বর

শিক্ষা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে