Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২০ , ৫ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০৩-২০১৯

আইএস’র টুপির বিষয়ে নিরপেক্ষ তদন্ত হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আইএস’র টুপির বিষয়ে নিরপেক্ষ তদন্ত হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা, ০৩ ডিসেম্বর- গুলশানের হলি আর্টিজান মামলার আসামির মাথায় জঙ্গি সংগঠন আইএসের টুপি কোথা থেকে এসেছে তা জানতে নিরপেক্ষ তদন্ত হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

মঙ্গলবার (০৩ নভেম্বর) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

হ‌লি আ‌র্টিজান হামলা মামলার রা‌য়ের দিন গত ২৭ নভেম্বর (বুধবার) দুইজন আসামির মাথায় আইএসের টুপি ছিল। আইএসের টুপি পরার বিষয়ে কারা কর্তৃপক্ষ ও পুলিশ দুই ধরনের তথ্য দিয়েছে।

তবে মঙ্গলবার ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমানের আদালতে জ‌ঙ্গি রা‌কিবুল হাসান রিগ্যান জানিয়েছেন, ভিড়ের মধ্যে কেউ একজন তাকে আইএসের টু‌পি দেন।

কল্যাণপু‌রের জাহাজ বা‌ড়ি‌তে জ‌ঙ্গি আস্তানায় হামলা মামলার শুনা‌নির জন্য তাকে আদালতে হাজির করা হয়।

আদাল‌তে রাষ্ট্রপ‌ক্ষের আইনজীবী গোলাম ছা‌রোয়ার খান জা‌কির ব‌লেন, টু‌পি নি‌য়ে বিত‌র্কের পরিপ্রে‌ক্ষি‌তে এ টু‌পি কোথায় পে‌য়ে‌ছিলেন রিগ্যানের কাছে তা জান‌তে চান বিচারক।

জবা‌বে রিগ্যান আদালত‌কে জানান, ‘ওই‌দিন আদাল‌তের বাই‌রে ভি‌ড়ের ম‌ধ্যে একজন তা‌কে টু‌পি‌টি দেন। ত‌বে তা‌কে চিন‌তে পা‌রেন‌নি রিগ্যান।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা নিজেরাই এই তথ্য জানাতে চাচ্ছি। তদন্ত হচ্ছে কীভাবে এলো (টুপি), কীভাবে গেল, আমরা সেটাই জানতে চাচ্ছি। কেউ না কেউতো দিয়েছে। কে দিয়েছে আমরা একটু জেনে নেই। কারণ বন্দিটাকে নিয়ে গিয়েছে যখন, তখনও জনগণের ভেতর দিয়েইতো গিয়েছে, কীভাবে পেয়েছে সেটা আমাদের এখন একটু দেখার বিষয়। আমরা দেখে নেই, না দেখে এটার সম্পর্কে আমরা বলতে পারবো না।

‘তবে আমরা যেটুকু দেখিছি এটা কারাগার থেকে আসেনি, কারাগার কর্তৃপক্ষ বলছে। পুলিশ বলছে তারা এটা সাপ্লাই হতে দেখেনি। কাজেই কীভাবে এলো তদন্তের বাইরে আমরা কিছু বলতে পারবো না।’

নিরপেক্ষ জায়গা থেকে আপনারা আরেকটি তদন্ত করবেন কিনা- জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অবশ্যই হবে। বেরিয়ে আসবে, সবই আসবে।

এটাকে (আইএসের টুপি) অ্যালার্মিং মনে করছেন কিনা- প্রশ্নে কামাল বলেন, কোনো অ্যালার্মিং নয়, একটা কাপড় একটা টুপি মাথায় দিয়েছে। এটা অ্যালার্মিংয়ের কী বিষয় আছে। এরাতো সবসময়ই বলছে, এরা ওই মতাদর্শী, আমরা সবসময় বলেছি আমাদের দেশে এগুলো নেই। এগুলো সব হোমমেইড জঙ্গি। আর ওরা ওখানে কানেক্টেড হতে চেয়েছে, এটা সবসময় বলেছে।

‘এরা ওই মতাদর্শের হতে চায়, এখানে আইএসের কোনো ঘাঁটিও নেই, কোনো কিছু নেই। কাজেই এই মতাদর্শে যারা বিশ্বাস করেন বা বলেন তাদের সবইতো ধরা পড়ে গেছে। তাদের মধ্যেইতো এরা। এরা নিজের পকেটে রেখে নিয়েছে নাকি কীভাবে নিয়েছে, সবগুলো না জেনে আমরা এই মুহূর্তে অফিসিয়ালি বলতে পারছি না। আমরা পরবর্তী সময়ে জানিয়ে দেবো এটা কীভাবে পেয়েছিল।’

সূত্র : বাংলানিউজ
এন কে / ০৩ ডিসেম্বর

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে