Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-১৯-২০১৯

পরের টাকা নিজের মতো করে নিয়ে গেল ওরা

হাবিব রহমান


পরের টাকা নিজের মতো করে নিয়ে গেল ওরা

চট্টগ্রাম, ২০ নভেম্বর- ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমে পূবালী ব্যাংকের অটোমেটেড টেলার মেশিন (এটিএম) বুথ থেকে ৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা তুলে নিয়েছে দুই ব্যক্তি। গত ১৭ ও ১৮ নভেম্বর কুমিল্লা এবং চট্টগ্রামে পূবালী ব্যাংকের দুটি শাখার এটিএম বুথে অভিনব কায়দায় এ জালিয়াতির ঘটনা ঘটে। এদিকে এ ঘটনায় যুক্ত অপরাধীদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তারে মাঠে নেমেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

এটিএম বুথের সিসি ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিওচিত্রে দেখা যায়, প্রথমে এক অপরাধী এটিএম বুথে প্রবেশ করেই চাবি জাতীয় কিছু দিয়ে টেলার মেশিনের উপরের অংশ খুলে তার মধ্যে কিছু একটা প্রবেশ করান। এর পর রিমোট কন্ট্রোল জাতীয় যন্ত্র হাতে নিয়ে কাজ শুরু করেন। এ সময় বেশ কয়েকটি কার্ড ঢুকিয়ে ওই যন্ত্রের সহায়তায় টাকা তুলে নেন। ওই ব্যক্তির পরনে লাল ও কালো রঙের চেক শার্ট ছিল। এর পর আকাশি রঙের শার্ট পরা আরেক অপরাধী ঢোকেন বুথে। তিনিও আগের জনের মতো একই প্রক্রিয়ায় টাকা তুলে নেন। তাদের দুজনেরই চোখে চশমা দেখা যায়।

এর আগে ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে ১৪ লাখ টাকা তুলে নেওয়া ৬ বিদেশি নাগরিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। ওই ঘটনার তদন্তে তাদের সহায়তাকারী বাংলাদেশের একটি চক্রের সন্ধান পায় ডিবি পুলিশ। ডিবি ধারণা করছে, ইউক্রেনের ওই চক্রটির দেশীয় সহযোগী হতে পারে এ দুই জালিয়াতকারী।

পুলিশ জানায়, ইতোমধ্যে এটিএম বুথের ভিডিওচিত্র বিশ্লেষণ করে অপরাধীদের শনাক্তের চেষ্টা করছে ডিবি। ভিডিওচিত্রের ফরেনসিক পরীক্ষাও করা হচ্ছে।

এই দুই অপরাধী ডিজিটাল জালিয়াতির ক্ষেত্রে ‘টুপকিন ম্যালওয়ার’ পদ্ধতি ব্যবহার করেছে কিনা সেটি এখনো নিশ্চিত নয় ডিবি। চক্রটি তথ্যপ্রযুক্তিতে খুবই দক্ষ বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে এটিএম বুথ থেকে অবৈধভাবে অর্থ উত্তোলনকারী অপরাধীরা নিজেদের চেহারা আড়াল করতে মুখে মাস্ক অথবা মাথায় ক্যাপ পরা ছিলেন। পূবালী ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে টাকা তুলে নেওয়া দুই অপরাধীর ক্ষেত্রে এটি দেখা যায়নি।

গত ৩১ মে রাজধানীর খিলগাঁও এলাকার ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের একটি বুথ থেকে ইউক্রেনের দুই নাগরিক তিন লাখ টাকা উত্তোলন করেন। তারা টাকা হাতিয়ে নিয়ে বুথ ত্যাগ করার সময় কিছু টাকা বুথে ফেলে যান। পরদিন একই বুথে অর্থ তুলতে আবার প্রবেশ করেন। মুখে মাস্ক দিয়ে ও মাথায় ক্যাপ পরে বুথে ঢুকে বেশি সময় নেওয়ায় তাদের সন্দেহ হয় নিরাপত্তারক্ষীর। তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে একজনকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে দেওয়া হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে উত্তরার হোটেল ওলিও ড্রিম হ্যাভেনে অভিযান চালিয়ে চক্রের আরও পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ইউক্রেনের ৬ নাগরিককে গ্রেপ্তার অভিযানে কাজ করেছিলেন ডিবির অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) শাহিদুর রহমান রিপন। পূবালী ব্যাংকের জালিয়াতির ঘটনাও তিনি তদন্ত করছেন। শাহিদুর রহমান রিপন এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘এই চক্রটিকে গ্রেপ্তারে আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করছি। কেউ যদি এই দুই অপরাধীকে চিনতে পারেন, তা হলে মোবাইল ফোনে (০১৭১৩৩৯৮৫৯৬) জানাতে অনুরোধ করছি।’

ইউক্রেনের ওই ৬ নাগরিককে জিজ্ঞাসাবাদে তখন সন্দেহভাজন আরও তিন ইউক্রেনের নাগরিকের নাম পায় ডিবি পুলিশ। তবে তাদের গ্রেপ্তারের আগেই ঢাকা ছাড়েন তারা। এটিএম বুথ জালিয়াতির আন্তর্জাতিক এই চক্রটি বাংলাদেশের আগে বিভিন্ন দেশে একই প্রক্রিয়ায় ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার তথ্য দিয়েছিলেন ডিবি পুলিশকে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পূবালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এমএ হালিম চৌধুরী এ প্রতিবেদককে বলেন, তিনটি এটিএম বুথ থেকে কোনো একটি উপায়ে এটিএম খুলে টাকা বের করে নেওয়া হয়েছে। তবে তারা আমাদের সফটওয়্যারে ঢুকতে পারেনি। কিন্তু কী উপায়ে এটি সম্ভব হয়েছে সেটি খুঁজে বের করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে তথ্য দিয়েছি।’

আর/০৮:১৪/২০ নভেম্বর

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে