Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-১৮-২০১৯

পেঁয়াজের বাজার দ্রুত স্বাভাবিক হয়ে আসবে, বললেন বাণিজ্য সচিব

পেঁয়াজের বাজার দ্রুত স্বাভাবিক হয়ে আসবে, বললেন বাণিজ্য সচিব

ঢাকা, ১৮ নভেম্বর - বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দিন বলেছেন, এস আলম গ্রুপের কার্গো বিমানের প্রথম চালান আগামীকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশে পৌঁছাবে বলে আশা করা যায়। সরকারের নানা উদ্যোগের ফলে পেঁয়াজের বাজার অতিদ্রুত স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

আজ সোমবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। তবে তিনি এসময় সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্ন নেননি। লিখিত বক্তব্য পড়েই সভাকক্ষ ত্যাগ করেন।

বাণিজ্য সচিব বলেন, ‘আপৎকালীন সমস্যা নিরসনের জন্য তড়িৎগতিতে কার্গো বিমানযোগে মিশর, তুরস্ক, চীনসহ বিভিন্ন দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানির উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আপনারা জেনে খুশি হবেন যে, এস আলম গ্রুপের কার্গো বিমানের প্রথম চালান আগামীকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশে পৌঁছাবে বলে আশা করা যায়।’

তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন জেলায় নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসতে শুরু করেছে। টিসিবির কার্যক্রম ঢাকাসহ সারাদেশে জোরদার করার পাশাপাশি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, জেলা প্রশাসন তাদের তদারকি অব্যাহত রেখেছে। এ পর্যন্ত আড়াই হাজার অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে জনগণকে আশ্বস্ত করতে চাই যে, এই সমস্ত উদ্যোগ গ্রহণের ফলে অতিদ্রুত পেঁয়াজের বাজার স্বাভাবিক হয়ে আসবে।’

বাংলাদেশের আমদানিকৃত পেঁয়াজের সিংহভাগ ভারত থেকে আসে জানিয়ে জাফর উদ্দিন বলেন, ‘এ বছর বন্যার কারণে ভারতে পেঁয়াজের উৎপাদন ব্যহত হয়। এজন্য সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে পেঁয়াজের মিনিমাম এক্সপোর্ট প্রাইস ভারত থেকে প্রায় তিন গুণ বৃদ্ধি করা হয়। এরপর সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে ভারত পেঁয়াজ রফতানি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ ঘোষণা করে। এ প্রেক্ষাপটে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় প্রথম থেকেই বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সেগুলো হচ্ছে-এলসি মারজিন ও সুদের হার হ্রাস করা হয়। আমদানিকারকদেরকে ভারতের বাইরে বিভিন্ন দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি করার জন্য উদ্বুদ্ধ করা হয়। আমদানিকৃত মালামাল নির্বিঘ্নে খালাসের জন্য বন্দর কর্তৃপক্ষ, কাস্টমস কর্তৃপক্ষ সবাইকে প্রস্তুত রাখা হয়।’

তিনি বলেন, ‘এলসির মাধ্যমে সমুদ্রপথে বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানিতে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেড় মাসের মতো সময় লেগে যাচ্ছে। বর্তমানে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ পেঁয়াজের চালান বাংলাদেশের উদ্দেশে সমুদ্রপথে রয়েছে। সম্প্রতি মিয়ানমার পেঁয়াজের রফতানি মূল্য চার গুণ বৃদ্ধি করেছে। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে দু-এক দিন যাবৎ বাজারে পেঁয়াজের মূল্য মূলত বৃদ্ধি পেয়েছে। এ পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী বিমাণে পেঁয়াজ আমদানির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।’

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৮ নভেম্বর

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে