Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-১৭-২০১৯

এবারও বিপিএলে টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজার দুই নির্বাচক

এবারও বিপিএলে টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজার দুই নির্বাচক

ঢাকা, ১৭ নভেম্বর - দুজনই ছিলেন ভারতে। রোহিত শর্মার দলের সঙ্গে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি সিরিজে দিল্লী আর রাজকোটে দুই নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু আর হাবিবুল বাশার সুমন ছিলেন টিম বাংলাদেশের সঙ্গী। হাবিবুল বাশার নাগপুরে শেষ ম্যাচের আগের রাতে চলে আসলেও প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু ঠিকই রয়ে যান ভারতে।

ইন্দোরে প্রথম টেস্টে দল সাজানোয় অধিনায়ক আর কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোর সাথে ছিলেন মিনহাজুল আবেদিনও। কিন্তু কাল শনিবার রাতে এবারের বঙ্গবন্ধু বিপিএলের লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে সোনারগাঁ পাঁচ তারকা হোটেলে হঠাৎ দেখা মিললো প্রধান নির্বাচক নান্নুর।

এ কি আপনি চলে এসেছেন হঠাৎ? কলকাতায় ঘটা করে যে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট হতে যাচ্ছে, তাতে থাকবেন না? নান্নুর উত্তর, ‘হ্যাঁ! থাকবো তো।’ তাহলে চলে এলেন যে? ‘বোর্ড বলাতেই আসা। আমাকে আর সুমনকে (আরেক নির্বাচক হাবিবুল বাশার) বিপিএলের দুটি দলের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে। তাই চলে আসা। আগামীকাল রোববারের (আজ সন্ধ্যায়) প্লেয়ার্স ড্রাফটেও থাকতে হবে আমাদের।’

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর কথা শেষ হতেই দেখা মিললো আরেক নির্বাচক হাবিবুল বাশারেরও। শনিবার রাতে বিপিএল লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে দুজনার হাস্যোজ্জ্বল উপস্থিতিই বলে দিচ্ছে তারাও এবারের বঙ্গবন্ধু বিপিএলের সঙ্গে থাকছেন।

অবশ্য এবারই যে প্রথম, তা নয়। মিনহাজুল আবেদিন নান্নু গত দুইবার তার নিজ বিভাগ চট্টগ্রামের টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজারের দায়িত্ব পালন করেছেন। আর হাবিবুল বাশার ছিলেন খুলনা টাইটান্সের টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজারের দায়িত্ব পালন করেছেন। এবারও তারা দুই দলের টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজারের দায়িত্ব পালন করবেন।

সেটা টিম ডিরেক্টরের বাইরের পদ। মিনহাজুল আবেদিন নান্নু থাকবেন কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজার হিসেবে। আর হাবিবুল বাশার কাজ করবেন রংপুর রেঞ্জার্সের টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজার হয়ে।

আগেই জানা, সাত বোর্ড পরিচালক এনায়েত হোসেন সিরাজ (রাজশাহী রয়্যালস), জালাল ইউনুস (চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স), আকরাম খান (রংপুর রেঞ্জার্স), নাইমুর রহমান দুর্জয় (কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স), খালেদ মাহমুদ সুজন (খুলনা টাইগার্স), গোলাম মর্তুজা পাপ্পা (ঢাকা প্লাটুন) আর তানজিল চৌধুরী (সিলেট থান্ডার্স) টিম ডিরেক্টর হিসেবে প্রতি দলের সাথে থাকবেন। দল ব্যবস্থপনা, পরিচালনা ও তত্ত্বাবধানে তারা থাকবেন মূখ্য ভূমিকায়।

বলার অপেক্ষা রাখে না, এর মধ্যে কুমিল্লা আর রংপুরের সমুদয় ব্যবস্থাপনা ও টিম স্পন্সর পার্টনার সবই বিসিবি। বাকি ৫ দলের স্পন্সর পার্টনার ৫টি কর্পোরেট হাউজ। স্পন্সর পার্টনারগুলো হলো যমুনা ব্যাক, প্রিমিয়ার ব্যাংক, আকতার গ্রুপ, জেভিনি ফুটওয়্যার অ্যান্ড ক্রাফট, আইসিপি লিমিটেড।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৭ নভেম্বর

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে