Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-১৩-২০১৯

জোড়া খুন : বাড়ির ব্যবস্থাপকসহ তিনজন কারাগারে

জোড়া খুন : বাড়ির ব্যবস্থাপকসহ তিনজন কারাগারে

ঢাকা, ১৩ নভেম্বর - রাজধানীর ধানমন্ডিতে গৃহকর্ত্রী আফরোজা বেগম ও গৃহপরিচারিকা দিতিকে হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার তিন আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। তারা হলেন- ইলেকট্রিশিয়ান বেলায়েত, বাড়ির ব্যবস্থাপক গাউসুল আজম প্রিন্স ও গৃহকর্মী আতিকুল হক বাচ্চু।

বুধবার একদিনের রিমান্ড শেষে তাদের আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদেরকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক রবিউল আলম।আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম মোরশেদ আল মামুন ভুইয়া তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ধানমন্ডি থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আশরাফ আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এর আগে গত সোমবার পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাদেরকে সাত দিনের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রবিউল আলম। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সাঈদ একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

অপরদিকে আসামি নুরুজ্জামানকে পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করে মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সাঈদ তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গত ৭ নভেম্বর মামলার অন্যতম আসামি সুরভী আক্তার নাহিদা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। ৫ নভেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়া পাঁচজনের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তারা হলেন- মো. নুরুজ্জামান, গাউসুল আজম প্রিন্স, মো. আতিকুল হক বাচ্চু, বেলায়েত হোসেন ও সুরভী আক্তার নাহিদা।

গত ৪ নভেম্বর ধানমন্ডি থানা থেকে মামলার তদন্তভার ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগে হস্তান্তর করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গোয়েন্দা দক্ষিণ বিভাগের একটি টিম এ দিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিশেষ অভিযান চালিয়ে সুরভীকে গ্রেফতার করে। অন্য অভিযুক্তদের ধানমন্ডি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গত ১ নভেম্বর ধানমন্ডির ২৮ নম্বর রোডে অবস্থিত ২১ নম্বর বাসার ই-৫ ফ্ল্যাটে গৃহকর্ত্রী আফরোজা বেগম ও গৃহপরিচারিকা দিতি খুন হন। খুনের ঘটনায় ৩ নভেম্বর আফরোজা বেগমের মেয়ে অ্যাডভোকেট দিলরুবা সুলতানা রুবা (৪২) ধানমন্ডি থানায় মামলা করেন।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৩ নভেম্বর

আইন-আদালত

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে