Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ , ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-০৭-২০১৯

বিএনপির আরও ‘হাইপ্রোফাইল’ নেতাদের পদত্যাগের গুঞ্জন!

মাহমুদুল হাসান


বিএনপির আরও ‘হাইপ্রোফাইল’ নেতাদের পদত্যাগের গুঞ্জন!

ঢাকা, ০৮ নভেম্বর - বিএনপিতে পদত্যাগের হিড়িক পড়েছে। অতি সম্প্রতি দলের দুই শীর্ষ নেতার পদত্যাগের ঘোষণার পর আরও কয়েকজনের পদত্যাগ নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার অনেকটা আকষ্মিকভাবে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোর্শেদ খান পদত্যাগ করেন।

এর একদিন পরই গতকাল বুধবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে. অব. মাহবুবুর রহমানের পদত্যাগ করার খবর আসে।

লে. জে. অব. মাহবুবুর রহমান বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের ভগ্নিপতি।

পদত্যাগের ঘোষণার পর বুধবার রাত থেকে ফোন ধরছেন না মাহবুবুর রহমান। রাতে তার স্ত্রী ফোন ধরে সাংবাদিকদের বলেন, ‘এসব সত্যি না, গুঞ্জন।’

এছাড়া দলীয় ‘স্বেচ্ছাচারিতার’ অভিযোগ এনে আরও কয়েকজন হাইপ্রোফাইল নেতা পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন। তারা ইতোমধ্যে তাদের ঘনিষ্ঠদের সঙ্গে বিষয়টি আলোচনা করেছেন বলে জানা গেছে। যে কোনো সময় তারা দল থেকে সরে দাঁড়াতে পারেন।

একাদশ সংসদ নির্বাচনের পরে বিএনপি থেকে পদত্যাগ করেন কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য আলী আসগর লবি। গত ২৪ জানুয়ারি তিনি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে অব্যাহতিপত্র জমা দেন।

এরপর গত ১৬ মার্চ দল থেকে পদত্যাগ করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় অর্থ বিষয়ক সহ-সম্পাদক মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন। ৩ এপ্রিল বিএনপি ছাড়েন নির্বাহী কমিটির সদস্য মোবাশ্বের আলম ভূঁইয়া।

সেনাবাহিনী থেকে অবসর গ্রহণের পর বিএনপির রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন মাহবুবুর রহমান। ২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়নে দিনাজপুর-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়-সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একই আসন থেকে নির্বাচন করে আওয়ামী লীগ প্রার্থী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর কাছে পরাজিত হন।

পদত্যাগ প্রসঙ্গে লে. জেনারেল মাহবুবুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি রাজনীতি করি না। রাজনীতি থেকে সরে এসেছি। দল থেকে আমি রিজাইন করেছি। দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যও প্রত্যাহার করে নিয়েছি। দেড় মাস থেকে দুই মাস আগে আমি আর রাজনীতিতে নেই।’

সূত্র জানায়, আরও কয়েকজন সিনিয়র নেতা শিগগিরিই বিএনপি ছাড়ার ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন। এর মধ্যে দেশের প্রবীণ রাজনীতিক এরশাদ সরকারের উপ প্রধানমন্ত্রী বর্তমানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, মেজর (অব.) হাফিজউদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর বীর উত্তম ও এয়ারভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরীর নাম শোনা যাচ্ছে।

এসব নেতা ছাড়াও বিএনপির আরেক সিনিয়র নেতা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমানের পক্ষ থেকেও বিএনপি ছাড়ার ঘোষণা আসতে পারে।

সুত্র : পরিবর্তন
এন এ/ ০৮ নভেম্বর

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে