Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-০৬-২০১৯

বিজেপি’কে ভারতীয় জাসুস পার্টি বললেন কংগ্রেস মুখপাত্র

বিজেপি’কে ভারতীয় জাসুস পার্টি বললেন কংগ্রেস মুখপাত্র

নয়াদিল্লী, ০৬ নভেম্বর - ফোনে আড়িপাতা এবং হোয়াটঅ্যাপে তথ্যফাঁস প্রসঙ্গে গর্জে উঠল বিরোধীরা৷ ফোনে ও হোয়াটসঅ্যাপে আড়িপাতা ইস্যুতেকংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সূর্যেওয়ালা ভারতীয় জনতা পার্টিকে ‘ভারতীয় জাসুস (গুপ্তচর) পার্টি’ বলে কটাক্ষ করলেন৷ রবিবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ভেবে আশ্চর্য লাগছে যে হোয়াটসঅ্যাপ স্পাইগেটের মাধ্যমে বিজেপি সরকার নাকি দেশের নাগরিক এবং রাজনীতিকদের উপর নজর রাখছিল৷ সরকার কী ২০১৯ সাল থেকেই স্পাইওয়্যারের ব্যাপারে জানত? যাঁরা ক্ষমতায় রয়েছেন তাঁরা কী ওই অপরাধে দোষী নয়?’ বিজেপিকে ‘ভারতীয় জাসুস পার্টি’ বলেও কটাক্ষ করেন তিনি। গোটা ঘটনায় কেন্দ্রীয় সরকারের জবাব দাবি করেছেন তিনি। রণদীপ সূর্যেওয়ালা আরও বলেন, ‘হ্যাক হওয়া ফোনগুলিতে হোয়াটসঅ্যাপের পক্ষ যখন বার্তা পাঠানো হয়েছিল, প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর (কংগ্রেসের মহাসচিব) ফোনেও সেই বার্তা এসেছিল।’

গত সপ্তাহে ইসরাইলি সাইবার নিরাপত্তা সংস্থা এনএসও’র বিরুদ্ধে বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট ভারতীয় নাগরিকের ফোনে আড়িপাতার অভিযোগ আনেন ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। বলা হয়, ভিডিও কলের সময় এদের ফোনে পেগেসাস নামের একটি স্পাইওয়্যার বসিয়ে তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে এনএসও। এরপর থেকেই গোটা ঘটনায় মোদী সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বিরোধীরা।

এ প্রসঙ্গে বিজেপির মুখপাত্র অমিত মালব্য কংগ্রেস নেতার অভিযোগের পালটা জবাবে বলেন, ‘যার অস্তিত্বই নেই, তা কল্পনা করা অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে কংগ্রেসের। ভিডিও ক্যামেরার সবুজ আলো শরীরে পড়ায় রাহুল গান্ধীর প্রাণের ঝুঁকি রয়েছে বলে ওরা একসময় দাবি করেছিল। জনমানসে ওদের নেতাদের বিশ্বাসযোগ্যতা এমনই।’

ফোনে আড়িপাতা প্রসঙ্গে শনিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকারই পুরো ব্যাপারটা করেছে। দু’-তিনটি রাজ্য সরকারও এর সঙ্গে রয়েছে। এরমধ্যে একটি রাজ্যে বিজেপিশাসিত সরকার এবং অন্য একটিতে অন্য দল ক্ষমতায় রয়েছে। এর ফলে ব্যক্তির গোপনীয়তার অধিকার খর্ব হচ্ছে।’ মমতার আরও অভিযোগ, ‘রাজনীতিবিদ থেকে শুরু করে বিচারক, আমলা, সাংবাদিক- সব গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির ফোনেই আড়ি পাতা হচ্ছে। এখন হোয়াটসঅ্যাপ কল এবং মেসেজও রেকর্ড করে নিচ্ছে বিভিন্ন সংস্থা। আমার ফোনেও যে আড়ি পাতা হয়, তা তো আমি জানি।’ পুরো ব্যাপারটাই এক ধরনের চরবৃত্তি বলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা মন্তব্য করেন৷

সুত্র : যুগান্তর
এন এ/ ০৬ নভেম্বর

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে