Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ৮ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-০৩-২০১৯

ব্রিটিশ রানির এই মুকুটের দাম কত জানেন?

ব্রিটিশ রানির এই মুকুটের দাম কত জানেন?

ব্রিটিশ রাজপরিবারের সম্পদের ভাণ্ডার অসংখ্য মূল্যবান দ্রব্যসামগ্রীতে ভরপুর। রাজপ্রাসাদ থেকে শুরু করে রাজপরিবারের প্রতিটা আসবাবের কারুকার্য চোখ ধাঁধানো। রাজ্যাভিষেকের সময় রীতি মেনে নতুন রাজা বা রানিকে মুকুট পরতে হয়।

রাজপরিবারের ঐতিহ্যবাহী এই মুকুটের গায়ে লাগানো রয়েছে বহু মূল্যবান রত্ন। ব্রিটিশ রাজপরিবারের ওই মুকুটের মূল্য কত জানেন?
বেগুনি রঙের ভেলভেট কাপড়ে মোড়া ওই মুকুটের ওজন প্রায় আড়াই কিলোগ্রাম। বেশ ভারী হওয়ায় এই মুকুট পরে কিছু পড়ার জন্য কেউ মাথা ঝোঁকাতে পারেন না।

মাথা ঝোঁকালে মুকুটের ভারে ঘাড়ে লেগে যেতে পারে এবং মুকুট মাথা থেকে খুলে যেতে পারে। তাই লেখাটাকেই চোখের সমানে এনে পড়তে হয়।

বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বড় হীরা, কালিনান এই রাজমুকুটে শোভা পায়। থমাস কালিনান দক্ষিণ আফ্রিকার খনি থেকে এই হীরা উদ্ধার করেন। সে সময় দক্ষিণ আফ্রিকায় ব্রিটিশ আধিপত্য ছিল। উদ্ধার হওয়া হীরা লুঠ করে নিয়েছিলেন সপ্তম এডওয়ার্ড। জানা গেছে, এই হীরার ৯টা টুকরা করা হয়েছে। তার মধ্যে দুটি টুকরা মুকুটে লাগানো হয়েছে। বাকি ৭ টুকরা ব্রিটিশ রানির ব্যক্তিগত সংগ্রহশালায় শোভা পাচ্ছে।

ব্রিটিশ রাজা পঞ্চম জর্জের রাজ্যাভিষেকের আগে ১৯১০ সালে এই হীরার অংশ মুকুটে লাগানো হয়েছিল। মুকুটে লাগানো এই কালিনান হীরার মূল্য সাড়ে ৫২ কোটি ডলার, ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ৩৭১২ কোটি রুপি, আর বাংলাদেশি টাকায় এর দাম ৪,৪৬২ কোটি টাকা!

আর সব মিলিয়ে পুরা মুকুটটার মূল্য কত? মনে করা হয়, এই মুকুটের মোট মূল্য সাড়ে তিনশ’ কোটি ডলার! অর্থাৎ প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা!

তবে প্রথমে নাকি মুকুটের মূল্যবান রত্নগুলো বিভিন্ন রাজ পরিবার থেকে ধার করা হত। প্রতিবার রাজ্যাভিষেকের সময় মূল্যবান রত্নে সেজে উঠত মুকুট। রাজ্যাভিষেকের পর তা আবার খুলে ফেলা হত।

কিন্তু ১৯১১ সালে পঞ্চম জর্জের রাজ্যাভিষেকের সময় থেকে এই রীতি বদলে যায়। সোনা, হীরার মতো নানা মূল্যবান রত্ন দিয়ে পাকাপাকিভাবে সেজে ওঠে মুকুট।

মুকুটটি বর্তমানে রাখা রয়েছে টাওয়ার অব লন্ডনে। মধ্য লন্ডনে টেমস নদীর উত্তর দিকে রয়েছে এই টাওয়ার।

মুকুটটির প্রতিটা অংশের আলাদা মূল্য রয়েছে। এতে রয়েছে ৭টা নীলকান্ত মণি, যার মূল্য ২১ লাখ ৪২ হাজার ডলার।

২৬টি টুরমালিন রয়েছে মুকুটে, যার মূল্য প্রায় সাড়ে তিন হাজার ডলার, অর্থাৎ প্রায় আড়াই কোটি টাকা।

মুকুটের বেশি ভাগ অংশ সোনা দিয়েই তৈরি। ২২ ক্যারেটের সোনা রয়েছে এতে, মূল্য প্রায় ৮৭ হাজার ডলার।

এই মুকুটের সবচেয়ে কম দামি অংশ কোনটা জানেন? বেগুনি রঙের ভেলভেট কাপড়টি। ঐতিহাসিক মূল্য যুক্ত এই কাপড়ের দাম মোটামুটি ৩ ডলার।

আর মুকুটের একেবারে নীচে মাথায় ঠিকভাবে বসার জন্য যে আরমাইন রিং রয়েছে, সেটারও দাম বেশ কম, মাত্র ৩৪ ডলার।

আর/০৮:১৪/০৩ নভেম্বর

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে