Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.7/5 (6 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১০-১৫-২০১৯

‘আমরা স্বপ্নেও ভাবি নাই কুড়িগ্রাম-ঢাকা ট্রেন চালু হবে’

‘আমরা স্বপ্নেও ভাবি নাই কুড়িগ্রাম-ঢাকা ট্রেন চালু হবে’

কুড়িগ্রাম, ১৫ অক্টোবর - স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর প্রথম ঢাকা-কুড়িগ্রাম আন্তনগর ট্রেন পেতে যাচ্ছে কুড়িগ্রাম জেলাবাসী। আগামীকাল বুধবার (১৬ অক্টোবর) ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বহুল প্রতিক্ষিত আন্তনগর ট্রেন কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সফল করতে চলছে নানা প্রস্তুতি।

দেশের দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাসকারী উত্তরাঞ্চলের সর্বশেষ জেলা কুড়িগ্রাম। ঢাকা-কুড়িগ্রাম-ঢাকা একটি আন্তনগর ট্রেন চালু হতে যাওয়ায় উচ্ছ্বসিত জেলাবাসী। এই ট্রেন চালু হলে দারিদ্র্যপীড়িত এই জেলার মানুষজন আর্থ সামাজিক উন্নয়নের স্বপ্ন দেখছেন।

২০০৯ সালে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর ২০১৫ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিন বার কুড়িগ্রাম সফর করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি তার সফরকালে জেলার উন্নয়নে নানা প্রতিশ্রুতির পাশাপাশি ঢাকা-কুড়িগ্রাম সরাসরি একটি আন্তনগর ট্রেন চালুরও প্রতিশ্রুতি দেন। তার এই প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বুধবার থেকে পূর্ণাঙ্গ আন্তনগর ট্রেনের সুবিধা পেতে যাচ্ছে জেলাবাসী। এর আগে ২০১৮ সালে একটি শাটল ট্রেন চালু হয় কুড়িগ্রাম থেকে কাউনিয়া রেল স্টেশন পর্যন্ত।

টগরাইহাটের বাসিন্দা ফজললু হক (৬০), কাদের মিয়া (৪৫) জলিল হোসেন (৭০) ও সালাম আলী (৫৫) বলে, বাহে হামরা স্বপ্নেও ভাবি নাই কুড়িগ্রাম-ঢাকা ট্রেন চালু হবে। কিন্তু স্বাধীনতার পর এই প্রথম ঢাকা-কুড়িগ্রাম সরাসরি চালু হওয়ায় হামরা খুব খুশি। কেননা ২০০১ সালে বিএনপির সময় জেলার লোকাল ট্রেনগুলা সব বন্ধ করি দিছিল। আজ আওয়ামী লীগ আসিয়া আবারও হামার দাবি মানি নিলে।

শিক্ষার্থী কল্লোল, মৌসুমী, ফারুক, বুলবুলি আক্তারসহ অনেকেই জানান, এই ট্রেন চালু হওয়ায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য অনেক উপকারে আসবে। দীর্ঘদিন থেকে যোগাযোগ ব্যবস্থায় চরম ভোগান্তি ছিল। এখন সময় মত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে গিয়ে ভর্তি পরিক্ষা দিতে পারবে। এতে করে বাড়তি অর্থ ব্যয় হবে না।

রেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, ঢাকা-কুড়িগ্রামের দূরত্ব ২৮৬.৮ মাইল বা ৪৬১ কিলোমিটার। প্রস্তাবিত কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস সপ্তাহে ছয়দিন সকাল ৭টা ২০মিনিটে ঢাকার উদ্দ্যেশে কুড়িগ্রাম ছাড়বে। আর ঢাকা থেকে ৬৩৮টি আসন নিয়ে কুড়িগ্রামের উদ্দ্যেশে রওনা দেবে রাত ৮টা ৪৫ মিনিট। শুধুমাত্র বুধবার কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস বন্ধ থাকবে। প্রস্তাবিত এ ট্রেনের স্টপিজ হবে রংপুর-বদরগঞ্জ-পার্বতীপুর-জয়পুরহাট-সান্তাহার-মাধবনগর-ঢাকা-বিমানবন্দর স্টেশন। কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকা যাত্রাকালীন ৬৫৭টি আসন এবং ঢাকা থেকে কুড়িগ্রাম ফেরার পথে ৬৩৮টি আসন থাকবে। এর মধ্যে শোভন চেয়ার ৫১০ টাকা, এসি চেয়ার ৯৭২ টাকা, এসি সিট ১১৬৮ টাকা এবং এসি বাথ ১৮০৪ টাকা ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে। কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের উদ্বোধন শেষে বাণিজ্যিকভাবে এর কার্যক্রম শুরু হবে ১৭ অক্টোবর থেকে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের জেনারেল ম্যানেজার মো. হারুন অর রশীদ বলেন, বুধবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আন্তনগর ট্রেনটি উদ্বোধন করবেন। এর সব প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে। ট্রেনের গতি বাড়ানোসহ অন্যান্য যে সমস্যাগুলো রয়েছে তা আমরা দ্রুত শেষ করব।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৫ অক্টোবর

কুড়িগ্রাম

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে