Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ , ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১০-১৪-২০১৯

বিসিসিআই সভাপতি হচ্ছেন গাঙ্গুলি, যা ভাবছে বিসিবি

বিসিসিআই সভাপতি হচ্ছেন গাঙ্গুলি, যা ভাবছে বিসিবি

ঢাকা, ১৪ অক্টোবর - সবার আগে তিনি বাঙালি। বাংলায় কথা বলেন। ভাত-মাছের ঝোল খান। সেটাই শেষ নয়, ‘দ্য প্রিন্স অব কলকাতা’ সৌরভ গাঙ্গুলির নাম বাংলাদেশের ক্রিকেটের সাথে জড়িয়ে আছে আষ্টেপৃষ্ঠে।

আজ থেকে ২২৭ মাস আগে ২০০০ সালের নভেম্বরে বাংলাদেশ যখন রাজধানী ঢাকা তথা দেশের ক্রীড়াতীর্থ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলতে নামে তখন ভারতের টেস্ট অধিনায়ক ছিলেন কলকাতার মহারাজ।

টেস্ট ক্রিকেটের সুদীর্ঘ ইতিহাসে ২০০০ সালের ১০ নভেম্বর শুধু বাংলাদেশ নামক টেস্ট শিশুটিরই জন্ম হয়নি, বাংলায় কথা বলা দুই ক্রিকেটার নাঈমুর রহমান দুর্জয় আর সৌরভ গাঙ্গুলির প্রথম টস করার দুর্লভ দৃশ্যও দেখেছিল ক্রিকেট বিশ্ব।

টেস্টে দুই দেশের অধিনায়ক বাংলাভাষী- সে বিরল ঘটনাও ঘটেছিল। তারপর বহুবার তিনি বাংলাদেশে এসেছেন। নানা সময়ে ভিন্ন ভিন্ন পরিচয়ে। কখনো অধিনায়ক, কোন সময় ক্রিকেটার আবার কখনো বা বরেণ্য ক্রিকেট ব্যক্তিত্বের তকমায়।

যে পরিচয়েই আসুন না কেন বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের মানুষের কাছে সৌরভ গাঙ্গুলি এক অন্যরকম নাম। একটা অন্যরকম ভালোলাগা, ভালোবাসা। যার সঞ্চালনে ভারতের টিভি চ্যানেল জি বাংলায় ‘দাদাগিরি’ দেখতে টেলিভিশন সেটের সামনে হুমড়ি খেয়ে পড়ে কোটি বাংলাদেশি। দাদাগিরি শুরু হওয়া মানেই ঢাকা ও দেশের বড় বড় শহরগুলোয় কোলাহল আর প্রাণচাঞ্চল্য যায় কমে।

এমন একজন কাছের ও প্রিয় মানুষ ভারতের মতো বিশাল ক্রিকেট শক্তির কর্ণধার হওয়ার পথে। তা নিয়ে বাংলাদেশে পড়েছে অন্যরকম সাড়া। প্রাণচাঞ্চল্য।

সব মিলিয়ে বাংলাদেশের মানুষের কাছে ভারতীয় ক্রিকেটার ও ক্রিকেট ব্যক্তিত্বের মধ্যে সৌরভ গাঙ্গুলির গ্রহণযোগ্যতা ও জনপ্রিয়তা অন্যমাত্রায়। সবার ভাবটা এমন, যেন মহারাজ পাশের বাড়ির ছেলে। তিনি ভারতের ক্রিকেটের ‘বিগ বস’ হতে পারেন। গোটা বাংলাদেশে তা নিয়ে অন্যরকম সাড়া পড়ে গেছে।

তিনি বিসিআইসির প্রধান হবেন কি হবেন না, তার উত্তর সময়ই দেবে। তবে হওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি। নতুন কোনো সমস্যার উদ্রেক না ঘটলে এবং অভ্যন্তরীণ সমস্যা বা দলাদলি দেখা না দিলে হয়তো হতে যাচ্ছেন ভারতীয় ক্রিকেটের ‘বিগ বস’ বা সভাপতি।

তা নিয়ে বিসিবির ভাবনা কি? কাছের মানুষ সৌরভ গাঙ্গুলি ভারতের ক্রিকেটের কর্ণধার হলে বাংলাদেশের লাভ-ক্ষতি কি হতে পারে? এসব নিয়ে যে দুজন সবচেয়ে ভালো বলতে পারতেন, সেই বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান পাপন আইসিসির সভায় দেশের বাইরে। বোর্ড প্রধান নির্বাহীও তার সঙ্গী হয়ে রয়েছেন বাইরে।

তবে বোর্ডের মুখপাত্র জালাল ইউনুসের কথা শুনে মনে হলো বিসিবিও কায়মনোবাক্যে চাচ্ছেন, সৌরভ গাঙ্গুলিই বিসিসিআইয়ের সভাপতি হোন। তাতে করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড শুধু যে একজন বাঙ্গালিকে ভারতের ক্রিকেট প্রধান হিসেবে পাবে তা নয়, একজন পরীক্ষিক মিত্র, কাছের মানুষও মিলবে।

আর তাইতো জালাল ইউনুসের কন্ঠে এমন কথা, ‘বিসিসিআইয়ের সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সম্পর্ক সব সময়ই ভালো। যারা এখন বর্তমানে আছেন তাদের সঙ্গেও সম্পর্ক ভাল। আগে যারা ছিলেন তাদের সঙ্গেও ছিল। সৌরভ গাঙ্গুলি একজন বাঙ্গালি, একজন সাবেক ক্রিকেটার সে জন্য নিঃসন্দেহে আমাদের জন্য বাড়তি একটা সুবিধা পাব।’

সৌরভের সঙ্গে সহজে বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে আলোচনা করা যাবে বলে মত তার। তিনি বলেন, ‘তার সঙ্গে কোনো একটা ইস্যু নিয়ে আলাপ আলোচনা করতে আমরা হয়ত আরেকটু স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করব। কারণ সে একজন বাঙালি প্লাস ফরমার ক্রিকেটার।’

বাংলাদেশের অনেকের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে সৌরভের। সে কথা উল্লেখ করে জালাল ইউনুস বলেন, ‘এখানে আমাদের অনেকের সঙ্গেই ব্যক্তিগত সম্পর্ক আছে। বাংলাদেশে অনেকবার খেলে গিয়েছেন। হি ইজ অ্যা ভেরি ইয়াং। আমাদের এখানে তার একটা আত্মার সম্পর্ক আছে, অনেকের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে। এগুলো নিঃসন্দেহে কাজে লাগবে। একইসঙ্গে আগে আমরা যে খেলাগুলো পাইনি। হয়ত দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ, জুনিয়র লেভেলেও যদি একচেঞ্জ প্রোগ্রাম থাকে সেগুলো নিয়ে আমরা ফ্রিলি আলোচনা করতে পারব এই সুবিধাটা হয়তো পাবো।’

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৪ অক্টোবর

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে