Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ , ২ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-২০-২০১৯

প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্ক আসছেন, নানা আয়োজন চলছে

ইব্রাহীম চৌধুরী


প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্ক আসছেন, নানা আয়োজন চলছে

নিউইয়র্ক, ২০ সেপ্টেম্বর- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিউইয়র্কে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত প্রবাসীরা। তবে প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাষ্ট্র সফর নিয়ে আলাদা উত্তেজনা বিরাজ করছে নিউইয়র্কে। অনেকে মনে করছেন, প্রবাসীদের স্বার্থে এবারে বড় কোনো ঘোষণা আসতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রে বিবাদমান দলীয় নেতাদের সহিষ্ণু হওয়ার কঠিন বার্তা আসছে। সম্মেলন হবে, না কমিটি পুনর্গঠন হবে—এ নিয়ে চলছে শেষ মুহূর্তের উত্তেজনা। স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী সামনে নিয়ে নিউইয়র্কে অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি শুরু হয়েছে।

আওয়ামী লীগ নেতাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার ব্যাপারে জোর দেবেন প্রধানমন্ত্রী। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে আপাতত কোনো পরিবর্তন আসছে না বলে জানা গেছে। তবে কমিটি পুনর্গঠন হতে পারে। তারপরেও সম্মেলনের সিদ্ধান্ত আসলে নেতৃত্বের

কোনো পরিবর্তন আসছে না। সেক্ষেত্রে বিশৃঙ্খলা অব্যাহত থাকলে যুক্তরাষ্ট্রে দলীয় কর্মকাণ্ড থেকে বহিষ্কার হতে পারেন কেউ কেউ। স্থানীয় আওয়ামী লীগের উচ্চ পর্যায়ে কথা বলে এ কথা জানা গেছে।

জাতিসংঘের বাংলাদেশ মিশন ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, জাতিসংঘের ৭৪তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোববার নিউইয়র্ক আসছেন। তিনি আগামী শুক্রবার জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন। এর পরদিন শনিবার সকাল ১১টায় নিউইয়র্কের বাংলাদেশ মিশনে বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে মিলিত হবেন। ওই দিন দুপুরে টাইমস স্কয়ার–সংলগ্ন ম্যারিয়ট মার্কাস হোটেলের বলরুমে তাঁকে দেওয়া নাগরিক সংবর্ধনায় যোগ দেবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগদান উপলক্ষে জাতিসংঘের বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন সংবাদ সম্মেলন করেন। বুধবার সন্ধ্যায় মিশনের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে মিশনের উপ স্থায়ী প্রতিনিধি তারেক মোহাম্মদ ও মিনিস্টার মনোয়ার হোসেন উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলন সঞ্চালনায় ছিলেন ফাস্ট সেক্রেটারি (প্রেস) নূর এলাহী মিনা।

সংবাদ সম্মেলনে জানান হয়, যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করবেন। দুই নেতার বৈঠকে রোহিঙ্গা, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, পরিবেশসহ বিভিন্ন ইস্যু প্রাধান্য পেতে পারে। এ ছাড়া জাতিসংঘের মহাসচিবসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র বা সরকার প্রধানের সঙ্গে বৈঠক করবেন শেখ হাসিনা। রোহিঙ্গা ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্র, মালয়েশিয়া, কানাডা ছাড়াও ওআইসি, আইসিজে প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামের সঙ্গে আলোচনা করবেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী ২৯ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে নিউইয়র্ক ত্যাগ করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এবার একটি বড় প্রতিনিধি দল আসছে। সেজন্য নিউইয়র্কে সাজসাজ রব শুরু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ জানালেন, নাওয়া–খাওয়া ভুলে তাঁদের কাজ করতে হচ্ছে। এ ছাড়া নানা পক্ষকে সামাল দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নাগরিক সংবর্ধনা সফল করার জন্য কাজ চলছে বলে জানালেন দলের অন্যতম সাংগঠনিক সম্পাদক হাজি এনাম।

এক প্রশ্নের জবাবে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী কয়েছ জানালেন, নাগরিক সংবর্ধনা হলেও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের আয়োজনে ২৮ সেপ্টেম্বর শনিবার সংবর্ধনা আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে। ম্যানহাটনের অভিজাত ম্যারিয়ট মার্কাস হোটেলে অনুষ্ঠান হবে । দিনটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন।

সংবর্ধনা সভায় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ বিমানের নিউইয়র্ক ফ্লাইট আবার চালুর বিষয়ে সুনির্দিষ্ট ঘোষণা দিতে পারেন বলে জানা গেছে। প্রবাসীদের দাবি উঠবে দেশে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসীদের জন্য কনস্যুলেট সুবিধা বাড়ানোর। প্রবাসীদের আরও দাবির মধ্যে আছে, প্লট ক্রয়ের জন্য কনস্যুলেটের মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠানো এবং অর্থ ফেরত পেতে হয়রানি লাঘব করা; বিমানবন্দর হয়রানি রোধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ; নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেটের নিজস্ব ভবন ক্রয়।

২০২০ সালে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী অনুষ্ঠান শুরু হবে। আর ঠিক পরের বছর হবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী। এসব নিয়ে সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ বড় কর্মসূচির কথা আগেই জানিয়েছে। এ নিয়ে বড় বাজেট নিয়ে প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই। সাত বছর আগের কমিটি দিয়ে চলছে। এর মধ্যে সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমানকে অব্যাহতই দেওয়া হয়েছে। ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ। গত কয়েক বছরের মতো এবারও ‘নো মোর সিদ্দিক’ স্লোগান উঠেছে। দলাদলি নিয়ে প্রতিদিনই কলহ , ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হচ্ছে। ১৫ সেপ্টেম্বর রবিবার নিজেদের সহিংসতায় একজন হাসপাতালে গেছেন। ছয়জনের নামে মামলা হয়েছে। দলের অন্যতম সংগঠক রব্বানী চৌধুরী বলেছেন যারা দলের নেতৃত্ব নিয়ে মারামারি করছেন, দলের ভাবমূর্তিকে হেয় করছেন, তাঁদের কেউ কেউ দল থেকে সরে যেতে হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হাসিব মামুন বলেছেন, আওয়ামী লীগের এখন বাইরের শত্রু কমে এসেছে। তিনি বলেন, শত্রু এখন নিজেদের মধ্যে।

পুনর্গঠিত কমিটিতে যাদের নাম আলোচনায় আছে তাঁরা হলেন প্রদীপ কর, মাসুদুর রহমান, ছামছুদ্দিন আজাদ, মনসুর আলী, মোহাম্মদ আলী মানিক, ধনঞ্জয় সাহা, রব্বানী চৌধুরী, হাজি এনাম, কাজী কয়েস, আবদুর রহীম বাদশাহ, মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, আইরিন পারভিন, , হিন্দোল কাদির বাপ্পা, আবদুল হাসিব মামুন, দেওয়ান বজলু চৌধুরী, মিসবাহ আহমেদ, মাহবুবুর রহমান, এমদাদ চৌধুরী প্রমুখ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জেএফকে বিমানবন্দরে বিপুলভাবে অভ্যর্থনা জানানোর প্রস্তুতি চলছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। এই লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও শ্রমিক লীগসহ বিভিন্ন সহযোগী ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে জনসংযোগ শুরু করেছে।

প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা আয়োজন সম্পর্কে সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা সফল করতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

আর/০৮:১৪/২০ সেপ্টেম্বর

যূক্তরাষ্ট্র

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে