Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ , ২৮ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-১৫-২০১৯

চাঁদা না দেওয়ায় ৫ বাস নিয়ন্ত্রণে নেন আরিফ

ইউসুফ সোহেল


চাঁদা না দেওয়ায় ৫ বাস নিয়ন্ত্রণে নেন আরিফ

ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর- ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগ সভাপতির বিতর্কিত কর্মকা- নিয়ে একের পর এক অভিযোগের রেশ কাটতে না কাটতেই বিতর্কে জড়িয়েছেন ওই কমিটিরই সহসভাপতি মো. আরিফুল ইসলাম আরিফ (৩০)। চাঁদাবাজির অভিযোগে গত শনিবার রাতে রাজধানীর মিরপুরের লাভ রোড এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

প্রজাপতি পরিবহন নামে একটি বাস কোম্পানির কাছে মাসে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেছিলেন এ ছাত্রলীগ নেতা। চাঁদা না দেওয়ায় শনিবার রাতে ওই কোম্পানির ৫টি বাসের সব যাত্রী নামিয়ে দিয়ে সেগুলো নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে পরিবহনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মারধর করে আরিফ ও তার ক্যাডাররা। এ সময় তারা বাসের চালক ও সহকারীদের হুমকি দেন, চাঁদা না দিলে কোনো বাসের চাকা ঘুরবে না।

এ কা-ে শনিবার রাতেই মিরপুর মডেল থানায় মামলা (নম্বর-৩৯) করেন প্রজাপতি পরিবহন রোড ইনচার্জ মো. তানজিল। মামলায় ছাত্রলীগ নেতা আরিফুল ইসলাম ছাড়াও আসামি করা হয় অচেনা আরও ১৫ জনকে। তিন দিনের রিমান্ড চেয়ে গতকাল আরিফুল ইসলামকে আদালতে পাঠান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মিরপুর থানার এসআই মো. শাহ আলম। শুনানি শেষে বিকালে সিএমএম আদালতের হাকিম মঈনুল ইসলাম রিমান্ড নামঞ্জুর করে আরিফকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মো. তানজিল আমাদের সময়কে জানান, রাস্তায় গাড়ি চললেই মাসে ২০ হাজার টাকা করে দিতে হবে বলে বেশ কিছুদিন ধরে প্রজাপতি পরিবহনের এমডি রফিকুল ইসলামকে হুমকি দিয়ে আসছিলেন আরিফুল ইসলাম। চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে গত শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে মিরপুরের প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সামনে প্রজাপতি পরিবহনের ৫টি যাত্রীবাহী বাস থামান আরিফুল ইসলাম ও তার ১০ থেকে ১৫ জন অনুসারী।

এর পর সন্ত্রাসী স্টাইলে বাস থেকে যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে গাড়িগুলো পুলিশের মিরপুর বিভাগের ডিসি কার্যালয়ের অদূরে রাস্তায় আটকে রাখেন তারা। মারধর করে বাস থেকে চালক-হেলপারদেরও নামিয়ে দিয়ে সেগুলো নিয়ন্ত্রণে নেন। বিষয়টি মিরপুর থানাপুলিশকে জানালে অভিযান চালিয়ে আরিফুল ইসলামকে রাতেই পুলিশ গ্রেপ্তার করে। তবে তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. শাহ আলম এ প্রতিবেদককে বলেন, জব্দকৃত ৫টি বাস বর্তমানে পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

চাঁদাবাজির অভিযোগের বিষয়ে জানতে গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মিরপুর মডেল থানায় ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগ সহসভাপতি আরিফুল ইসলাম আরিফের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলেও কোনো মন্তব্য করেননি তিনি।

এর আগে গত ২ সেপ্টেম্বর ঢাকা কোর্ট রিপোর্টার অ্যাসোসিয়েশনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মো. মেহেদী হাসান নামে এক ছাত্রলীগ কর্মী ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি মো. ইব্রাহিম হোসেনের বিরুদ্ধে জাতীয় পরিচয়পত্র ও সনদ জালিয়াতি করে ছাত্রলীগে পদ নিয়েছেন বলে অভিযোগ তোলেন। ওই দিনই তিনি উত্তর ছাত্রলীগ নেতা ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে ঢাকা সিএমএম আদালতে প্রতারণা ও জাল-জালিয়াতির অভিযোগে মামলা করেন। ঢাকা মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাস অবশ্য মামলাটি খারিজ করে দেন। ওই আদেশের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আবেদন করবেন, সংবাদ সম্মেলনে জানান মেহেদী হাসান।

অভিযোগের বিষয়ে ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি মো. ইব্রাহীম হোসেন এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘ছাত্রলীগের পদ পেতে নিয়ম অনুযায়ী আমি আমার সিভি জমা দিই। এরপর আমার ও অন্যদের বিষয়ে গোয়েন্দা দিয়ে কয়েক দফা খোঁজ নিয়ে, সত্যতা যাচাই করে কমিটি দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফলে এ বিষয়ে প্রশ্ন তোলার সুযোগ নেই। মহানগর উত্তরের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রত্যাশা অনুযায়ী কমিটি না দেওয়ায় একটি মহল আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে, যা ভিত্তিহীন ও বানোয়াট।

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/১৬ সেপ্টেম্বর

অপরাধ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে