Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৯ , ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.9/5 (13 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-০৬-২০১৯

সিলেটবাসী আজো যার জন্য কাঁদে

আমিনুর রশীদ ভূঁইয়া সামুন


সিলেটবাসী আজো যার জন্য কাঁদে

হে বিরল প্রতিভার কর্মবীর, সিলেটবাসী আজো আপনার জন্য কাঁদে । সিলেটের প্রতিটি পরদে পরদে আজো আপনার মায়াবী হাতের ছোয়া দৃশ্যমান। সিলেট ওসমানী বিমান বন্দর, সিলেট-জৈন্তা- তামাবিল সড়ক , আখাউডা বাইপাস, সিলেট হাইওয়ে খেকে শুরু করে বৃহত্তর সিলেটের আনাচে কানাচে এমনকি প্রতিটি গ্রামে গন্জে হাজার হাজার মাইল রাস্তা ঘাট, স্কুল, কলেজ, মসজিদ, মাদ্রাসা সবকিছুতেই আপনার সিলেট প্রীতি দরদী উন্নয়নের দৃশ্যমান হাতের ছোয়ার মনোমুগ্ধকর স্মৃতি গোটা সিলেটবাসীকে আজো কাদায় । আপনার নির্মিত দৃশ্যমান উন্নয়নের স্মৃতি পূণ্যভুমি সিলেটের জনগনকে আজো তাড়িত করে । যেগুলো নির্মান করে দিয়েছিলেন, সেগুলো আজো একি অবস্হায় পরে রয়েছে, দেখার জন্য কেউ নেই । কাঙ্গালীর দলেরা নতুন কিছু স্হাপনা নির্মাণ করা তো দুরে থাক বরং তাদের প্রতিহিংসাপরায়ণ রাজনীতির নোংরামির শিকার হয়ে আপনার নির্মিত স্হাপনা গুলো ধ্বংসের লীলায় মেতে উঠেছে।

হে সিলেট দরদী কর্মবীর, ঢাকা-সিলেট হাইওয়ে, ঢাকা-সিলেট রেলওয়ে সিগন্যালিং সিস্টেম থেকে শুরু করে বৃহত্তর সিলেটের রাস্তা ঘাটের আজ খুবই বেহাল করুন দশা-এগুলো দেখার আর আর নির্মাণ করার লোকের বড়ই অভাব । সবাই যেন আজো গোটা বাংলাদেশটাকে লুঠেপুঠে খাওয়ার প্রতিযোগিতায় মগ্ন । আপনার প্রিয় সাজানো বাংলাদেশের কোথাও কোখাও আজ লোহার বদলে বাঁশ, ব্যাংকগুলোতে হরিলুট, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ভল্ট সোনা থেকে তামা, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি থেকে শুরু করে শেষ পর্যন্ত কয়লাতেও মহা লুটপাট চলছে। যে যতবেশী লুটপাট করবে সেই যেনো রাষ্ট্রীয় ভাবে ততোই সম্মানিত হচ্ছে। বেহায়াদের হিংস্র ছোবলে ক্ষত বিক্ষত লাখো শহীদের আত্মত্যাগের রক্তাক্ত প্রিয় বাংলাদেশ।

হে মহান জননেতা এম. সাইফুর রহমান আপনি আধুনিক উন্নত বাংলাদেশের একটি ইতিহাসের অংশ, আপনার নামটির সাথে একাকার হয়ে আছে সিলেট তথা গোটা বাংলাদেশের উন্নয়ন আর অগ্রযাত্রা । তাইতো এক যুগ পেরিয়ে গেলে ও আপনার নির্মিত দৃশ্যমান উন্নয়নের কারণে বাংলাদেশের মানুষ আজো তাদের মনের মণি কোটায় গভীর শ্রদ্ধা আর ভালোবাসার সাথে স্বরন করে আপনাকে । বিশেষ করে বৃহত্তর সিলেটের মানুষ যখনি কোন মহাসংকটে পতিত হন তখনি তাদের মনের আয়নায় ভেসে উঠে যে নামটি তিনি হলেন সিলেট দরদী জননেতা এম. সাইফুর রহমান। 
 
আপনার অনুপস্হিতিতে গোটা সিলেট যেন আজ রাজনৈতিক অবিভাবক শূন্য। আপনি ছিলেন সিলেট তথা গোটা বাংলাদেশের উন্নয়নের ভরপুত্র । তাইতো সিলেটিরা আজো যে কোন চরম দুর্দিনে প্রায় এক যুগ পরে ও সিলেট বিভাগের মানুষ তাদের উন্নয়ন আর অগ্রযাত্রার মহাকারীগর এম. সাইফুর রহমানের অভাব হাড়ে হাড়ে অনুভব করছে।

আমার মনে আছে আমি যখন আশির দশকের মাঝামাঝি সময় ঢাকার নটর ডেম কলেজে ভর্তি হলাম তখন আখাউড়া রেল স্টেশন ছিলো সিলেটিদের ট্রানজিট । কি ভয়াবহ অবস্হা ..!! ট্রেনের ইন্জিন U Turn মারতে সময় লাগতো প্রায় এক ঘন্টার ও বেশী । সেই সুযোগে সিলেটি যাত্রীদের উপর উৎপাত শুরু হতো হকার আর মাস্তানদের। যখনি ট্রেন আখাউড়া জংশনে পৌঁছত তখনি শুরু হতো স্হানীয়দের সীমাহীন দৌড়ত্ব - একটি চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে সিলেটি যাত্রীদের কাটতো প্রায় ঘন্টা খানেক সময়। 

সিলেট দরদী সাইফুর রহমান সিলেটিদের এই দুরদশা লাঘবের জন্য স্বৈরাচারী এরশাদের পতনের পর দ্বিতীয় মেয়াদে যখন বিএনপি ক্ষমতায় আসে (২০০১-২০০৬) তখন সিলেটিদের মনের ভাষা নিজ থেকে অনুধাবন করে আজকের মজলুম নেত্রী, সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সহযোগিতায় আখাউড়ায় রেল বাইপাস নির্মাণ করে ঢাকা-সিলেট সরাসরি রেল যোগাযোগ স্হাপন করে সিলেটের যোগাযোগের ইতিহাসে এক নবযুগের সুচনা করেন।আখাউড়া-সিলেট সেকশনে নতুন রেল ট্রেক স্হাপন আর আখাউড়া-সিলেট সেকশনে সিগন্যালিং সিস্টেম আধুনিকায়ন ও সিলেট দরদী এই মহান নেতার ক্যারিশমেটিক রাজনৈতিক দৃশ্যমান অবদানগুলোর অন্যতম। সিলেট, মাইজগাঁও, কুলাউড়া, শমশেরনগর, ভানুগাছ,, শ্রীমঙ্গল, শায়েস্তাগঞ্জ স্টেশন আধুনিকায়ন ও প্রয়াত এই মহান নেতা সাইফুর রহমানের উন্নয়নের সুস্পষ্ট নিদর্শন।

বাংলাদেশের উন্নয়ন আর অগ্রযাত্রার মহানায়ক জননেতা সাইফুর রহমান স্যার তার কীর্তির মধ্যে বেঁচে থাকবেন বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের হ্রদয়ের গহীনে । যতদিন বাংলাদেশ থাকবে, যতদিন সিলেটিরা থাকবে এই বিশ্ব ভূবনে ততদিন এম. সাইফুর রহমান থাকবেন তাদের মনের মনিকোঠায়...!!!

মহান রাব্বুল আল্ আমিনের কাছে গোটা সিলেটবাসীসহ বাংলাদেশের মানুষের চাওয়া মহান সৃষ্টিকর্তা যেন বাংলাদেশের মানুষের কাছে কিংবদন্তী তুল্য আধুনিক বাংলাদেশের এই উন্নয়নের বরপুত্রকে কবুল করেন- আমিন।

আমিনুর রশীদ ভূঁইয়া সামুন
সাবেক আন্তর্জাতিক সম্পাদক
যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটি
টরেন্টো, কানাডা

অভিমত/মতামত

আরও লেখা

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে