Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ , ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-০৬-২০১৯

২৩ বছরেও ভক্তরা জানতে পারেনি সালমানের মৃত্যুরহস্য

২৩ বছরেও ভক্তরা জানতে পারেনি সালমানের মৃত্যুরহস্য

ঢাকা, ০৬ সেপ্টেম্বর- বাংলা চলচ্চিত্রের অবিস্মরণীয় এক যুগের সৃষ্টিকারীদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন নায়ক সালমান শাহ। আজ ৬ সেপ্টেম্বর পূর্ণ হবে তার অকাল মৃত্যুর ২৩ তম বছর।  দীর্ঘ এই ২৩ বছরেও সালমান ভক্তরা জানতে পারেনি- সালমান শাহ কি খুন হয়েছিলেন, নাকি আত্মহত্যা করেছেন।

২০১৬ সালের শেষের দিকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নতুন করে তদন্তভার দেয়া হয়।

সর্বশেষ ১ সেপ্টেম্বর পিবিআই আদালতে মামলার ‘তদন্ত অগ্রগতি’ প্রতিবেদন দাখিল করে। তবে সেই প্রতিবেদনেও ‘উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি’র কোনো তথ্য দেয়া হয়নি। দীর্ঘদিন তদন্তাধীন এ মামলার অনেক সাক্ষী ও আলামত নষ্ট হয়ে গেছে। ফলে মৃত্যুরহস্য উদ্ঘাটনে খোদ তদন্ত সংস্থাই হিমশিম খাচ্ছে।

তদন্ত শেষে কবে নাগাদ প্রতিবেদন দেয়া হবে- এ বিষয়ে স্পষ্ট করে বলতে পারছেন না কেউ। এদিকে এটিকে ‘হত্যা’ বলতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন সালমান শাহ’র মা নীলা চৌধুরী। আগামী ১ অক্টোবর এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য রয়েছে।

জানতে চাইলে সালমান শাহর মা নীলা চৌধুরী লন্ডন থেকে মুঠোফোনে বলেন, এটিকে আত্মহত্যা বলা হলে মানুষ হাসবে। এটিকে হত্যা বলতে হবে। কাদের স্বার্থে মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দিতে এত দীর্ঘ সময় নেয়া হচ্ছে? নীলা চৌধুরী মারা যেতে পারে, কিন্তু সালমান শাহর ভক্তরা কেউ ছাড় দেবে না। আমার নীরবতা দুর্বলতা নয়। আমার নীরবতাই প্রতিবাদ। যে দেশে বিচার নেই, সেখানে আমি সরব হব কেন? সরকারের লোকজনই বিচারের দীর্ঘসূত্রতা করতে ইন্ধন জোগাচ্ছেন।

পিবিআই প্রধান ডিআইজি বনজ কুমার মজুমদার বলেন, তদন্তের দায়িত্ব পাওয়ার পর মামলার সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রায় সবার সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। খতিয়ে দেখা হয়েছে সম্ভাব্য সব দিক। এখন সব তথ্যপ্রমাণ পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্নেষণ করে একটা সিদ্ধান্তে আসার পর্যায় চলে এসেছে। নানা কারণে এ মামলাটি গুরুত্বপূর্ণ। তাই অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে তদন্ত এগিয়ে নেওয়া হয়েছে। আশা করছি অল্পদিনের মধ্যেই তদন্তের ফল সবাইকে জানানো সম্ভব হবে।

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ইস্কাটন রোডে নিজের বাসা থেকে সালমান শাহর লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় তার বাবা কমরউদ্দিন আহমদ চৌধুরী অপমৃত্যুর মামলা করেন। ১৯৯৭ সালের ২৪ জুলাই মামলাটি হত্যা মামলায় রূপান্তরের আবেদন করা হয়। অপমৃত্যুর মামলার সঙ্গে হত্যাকাণ্ডের অভিযোগের বিষয়টি একসঙ্গে তদন্ত করতে সিআইডিকে নির্দেশ দেন আদালত।

১৯৯৭ সালের ৩ নভেম্বর আদালতে মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয় সিআইডি। সেখানে সালমানের মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলে উল্লেখ করা হয়। এরপর সিআইডির প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করে রিভিশন মামলা করা হলে ২০০৩ সালের ১৯ মে মামলাটি বিচার বিভাগীয় তদন্তে পাঠান আদালত। ২০১৪ সালের ৩ আগস্ট বিচার বিভাগীয় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হয়।

সেখানেও সালমানের মৃত্যুকে অপমৃত্যু হিসেবে উল্লেখ করা হয়। সালমান শাহর মা নীলা চৌধুরী ২০১৫ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি বিচার বিভাগীয় তদন্ত প্রতিবেদনের ওপর নারাজি দেন যাতে আজিজ মোহাম্মদ ভাইসহ ১১ জন হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা বলা হয়। আদালত নারাজি আবেদনটি মঞ্জুর করে র‌্যাবকে মামলাটি অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দেন।

এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ ২০১৬ সালের ১৯ এপ্রিল একটি রিভিশন মামলা করে। ওই বছরের ২১ আগস্ট ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬ এর বিচারক মামলাটি র‌্যাব তদন্ত করতে পারবে না মর্মে আদেশ দেন। ওই বছরের ৭ ডিসেম্বর আদালত মামলাটি পুনরায় তদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন।

চলতি বছরের ১ সেপ্টেম্বর পিবিআই আদালতে তদন্ত অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করে। সেখানে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬১ ধারায় ৩৯ সাক্ষীর জবানবন্দি রেকর্ড ও সাক্ষীদের ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় সাতজনের জবানবন্দি রেকর্ডের তথ্য উল্লেখ করা হয়।

এদিকে ২০১৭ সালের আগস্টে সালমানের বিউটিশিয়ান রাবেয়া সুলতানা রুবির একটি ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়ায় অবস্থানরত রুবি দাবি করেন, 'সালমান শাহ আত্মহত্যা করে নাই। তাকে খুন করা হইছে, আমার হাজব্যান্ড এটা করাইছে আমার ভাইরে দিয়ে। সামিরার ফ্যামিলি করাইছে আমার হাজব্যান্ডকে দিয়ে। আর সব ছিল চায়নিজ মানুষ।' এরপর তার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেন তদন্ত-সংশ্নিষ্টরা। অবশ্য প্রাথমিক তথ্যানুসন্ধানের ভিত্তিতে পুলিশের ধারণা, রুবি মানসিকভাবে সুস্থ নন।

আর/০৮:১৪/০৬ সেপ্টেম্বর

ঢালিউড

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে