Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৬ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-০৪-২০১৯

নরসিংদীতে ঘুমের মধ্যেই স্ত্রীর হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করলেন স্বামী!

নরসিংদীতে ঘুমের মধ্যেই স্ত্রীর হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করলেন স্বামী!

নরসিংদী, ০৪ সেপ্টেম্বর- নরসিংদীতে যৌতুকের দাবিতে ঘুমে থাকা অবস্থাতেই দীপা চন্দ্র সূত্রধর (২৭) নামে এক স্ত্রীর হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করেছেন বলে অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে।

সোমবার দিবাগত রাত ৩টায় তার স্বামী বিষ্ণু সূত্রধর শ্বশুরের পেনশন থেকে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে স্ত্রীর ডান হাত কেটে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে দীপার ছোট ভাই রাজীব চন্দ্র সূত্রধর বাদী হয়ে নরসিংদী সদর মডেল থানায় বিষ্ণু সূত্রধরকে আসামি করে একটি হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করেছেন। পরে মঙ্গলবার রাতেই পুলিশ তাকে আটক করেছে।

আহত দীপা চন্দ্র সূত্রধর নরসিংদী পৌর শহরের পশ্চিম কান্দাপাড়া এলাকার বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) অবসরপ্রাপ্ত সদস্য দিলীপ সূত্রধরের মেয়ে। তার স্বামী বিষ্ণু সূত্রধরের বাড়ি কুড়িগ্রামে।

আহত দীপার পরিবারের লোকজন জানায়, সম্প্রতি দীপার বাবা দিলীপ সূত্রধর বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবির)-এর সদস্য পদ থেকে অবসর নিয়ে পেনশনের কিছু টাকা পেয়েছেন। শ্বশুরের সেই টাকার প্রতি লোভ জন্মায় বিষ্ণুর। সম্প্রতি তিনি ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। কিন্তু দীপা এ কথা বাবাকে বলতে অস্বীকৃতি জানান।

সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিষ্ণু তার শ্বশুর বাড়ি নরসিংদীর পশ্চিম কান্দাপাড়ায় আসেন। রাতের খাওয়া-দাওয়া শেষে পরিবারের সবার সঙ্গে রাত ১টা পর্যন্ত আড্ডা দেন। রাত ৩টার দিকে আকস্মিক বিষ্ণু চাপাতি দিয়ে তার স্ত্রী দীপার ডান হাতের বাহু থেকে কেটে বিচ্ছিন্ন করে ফেলেন।

এ সময় দীপা চিৎকার দিলে চাপাতির কোপ মুখের ডান গালে ও বাম হাতে লাগে। এতে গালের মাংস কেটে যায়। চিৎকার শুনে বাবা দিলীপ সূত্রধর, মা অরুণা সূত্রধর ও ভাই রাজিব সূত্রধর এসে দীপাকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

পরে সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসা নেয়ার পর বর্তমানে ঢাকা হেলথ কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে নরসিংদী সদর মডেল থানা পুলিশ বিষ্ণু রায়কে আটক করেছে।

আহত দীপা সূত্রধর বলেন, ঘুমের মধ্যে হঠাৎ ও' চাপাতি দিয়ে আমার হাত কেটে ফেলে। তারপর ও আমাকে জবাই করতে চেয়েছিল, কিন্তু পারেনি। সেই আঘাতই আমার গালে ও বাম হাতে কোপ লেগেছে। ও নাকি আমাকে খুন করার পর আমার দুই ছেলে-মেয়েকেও খুন করত।

ঢাকা হেলথ কেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. শরীফ বলেন, আহত দীপার ডান হাত পরে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ ছাড়া তার মুখের ডান পাশে লম্বালম্বিভাবে মাংস আলাদা হয়ে গেছে। আর বাম হাতেও আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন।

নরসিংদী সদর মডেল থানার এসআই রুহুল আমিন বলেন, এ ঘটনায় বুধবার স্বামী বিষ্ণু রায়কে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আর ঘটনাস্থল থেকে চাপাতি উদ্ধার করা হয়েছে।

নরসিংদী সদর মডেল থানার ওসি সৈয়দুজ্জামান বলেন, বুধবার বিকালে গ্রেফতারকৃত স্বামী বিষ্ণু সূত্রধর আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। তিনি তার স্ত্রীর পরকীয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে আদালতে জানিয়েছেন।

সূত্র: যুগান্তর

আর/০৮:১৪/০৪ সেপ্টেম্বর

নরসিংদী

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে