Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৬ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-২৬-২০১৯

ভিজিএফের চাল পেলেন ধনাঢ্য ও প্রবাসীরা

ভিজিএফের চাল পেলেন ধনাঢ্য ও প্রবাসীরা

যশোর, ২৬ আগস্ট- যশোরের চৌগাছা উপজেলার নরায়ণপুর ইউনিয়নে এলাকার ধনাঢ্য, অস্ট্রেলিয়া ও জাপান প্রবাসী এবং মৃত ব্যক্তির নামে ভিজিএফ কার্ড দেয়া হয়েছে। রোববার কার্ডধারী অনেকে চাল উত্তোলন করেছেন। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, ভিজিএফ কার্ডের তালিকায় অসঙ্গতি থাকায় গত ঈদুল আযহার আগে চৌগাছার নারায়ণপুর ইউনিয়নের সাত নম্বর ওয়ার্ডে চাল বিতরণ বন্ধ রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার। সর্বশেষ রোববার সেই বিতর্কিত তালিকা অনুসারেই ওয়ার্ডের ৮৩০ পরিবারের মাঝে চাল বিতরণ শুরু হয়। কিন্তু কার্ডধারীদের অনেকেই এলাকার ধনাঢ্য ও মৃত ব্যক্তি।

এরমধ্যে তালিকায় নারায়ণপুর গ্রামের মৃত জালাল মিয়ার ছেলে রফিকুল ইসলামের নাম রয়েছে। তিনি নারায়ণপুর বাজারে তিনতলা একটি ভবনের মালিক। সেখানে গ্রামীণ ব্যাংক ও কৃষি ব্যাংকের নারায়ণপুর শাখা অফিস রয়েছে।

নারায়ণপুর গ্রামের অন্যতম ধনাঢ্য ব্যক্তি অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী রুবেল হোসেন ও জাপান প্রবাসী আছির উদ্দীন মৃধা। দু’জনেরই রয়েছে গ্রামে দৃষ্টিনন্দন বহুতল বাড়ি। একইভাবে গ্রামের মৃত নুর আলী মুন্সির ছেলে সামসুল মুন্সি, মোবারক সর্দারের ছেলে মনিরুল ইসলামের রয়েছে গ্রামে দৃষ্টিনন্দন বাড়ি। তাদের নামও রয়েছে ভিজিএফ কার্ডের তালিকায়।

অপরদিকে, নারায়ণপুর গ্রামের মৃত বায়োজিদ সর্দারের ছেলে মোমিনুর রহমান ছয় বছর আগে মারা গেছেন। একই গ্রামের মৃত ওহেদ আলীর ছেলে আব্দুল হালিম দুই বছর আগে মারা গেছেন। তাদের নামও রয়েছে ওই তালিকায়।

নারায়ণপুর গ্রামের তুহিনুর রহমান তুহিন সর্বশেষ ইউপি নির্বাচনে জামায়াতের চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিলেন। তিনি চৌগাছা বাজারে ব্যবসা করেন। ভিজিএফ কার্ডের তালিকায় তার নামও আছে।

এ প্রসঙ্গে তুহিন জানান, আমার নাম যে এ তালিকায় রয়েছে এবারই প্রথম জানলাম। অথচ এতদিন আমার নামে চাল উঠে যাচ্ছে। সব অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি দাবি করছি।

নারায়ণপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন মুকুল বলেন, সাত নম্বর ওয়ার্ডের প্রয়াত সদ্য সাবেক মেম্বর ভিজিএফ কার্ডের তালিকা করেছিলেন। নতুন মেম্বার নির্বাচিত হলেও শপথ নেননি। এজন্য সাবেক মেম্বরের তালিকা অনুযায়ী কার্ড দেয়া হয়েছে। সেখানে কিছু অসঙ্গতি থাকতে পারে। অভিযোগ পেয়ে সংশোধন করা হয়েছে। সেই কার্ডে বরাদ্দ চাল গরিব মানুষের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে।

এদিকে, চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম দাপ্তরিক ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

সূত্র: জাগো নিউজ২৪
এনইউ / ২৬ আগস্ট

যশোর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে