Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ১ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-২০-২০১৯

বিএনপির ব্যর্থতা নিয়ে মুখ খুললেন দুদু

বিএনপির ব্যর্থতা নিয়ে মুখ খুললেন দুদু

ঢাকা, ২০ আগস্ট - সারা দেশে ভয়াবহ বন্যা-নদীভাঙন, মহামারি ডেঙ্গু ও চামড়া শিল্প বিপর্যয়ের এই দুঃসময়ে দেশে প্রধানমন্ত্রী আছে কি নেই, সরকার আছে কি নেই, এটা এখন একটা বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও কৃষকদলের আহ্বায়ক শামসুজ্জামান দুদু।

তিনি বলেন, সরকার থাকলে তো চামড়া শিল্পের এমন বিপর্যয় হতো না। সরকার থাকলে তো ডেঙ্গুতে এত মানুষের মৃত্যু হতো না। সরকার থাকলে তো ব্যাংকের টাকা এভাবে চুরি হওয়ার কথা নয়। সরকার প্রধান থাকলে নিশ্চয়ই এগুলোর যথাযথ তদারকির ব্যবস্থা করতো। অর্থাৎ দেশের সর্বক্ষেত্রে সমস্ত ব্যবস্থা একদম ভেঙে পড়েছে।

আজ মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবে ন্যাশনালিস্ট রিসার্চ সেন্টার (এনআরসি)’র আয়োজনে ‘আমার দেশ আমার শিল্প’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

দুদু বলেন, দেশের স্বাস্থ্যখাত এখন বিলুপ্তির পথে। শুধু ঢাকাতে নয় সারা দেশে ডেঙ্গুতে মানুষ এখন এতটাই অসহায় কখন সে মারা যাবে সে নিজেও জানে না। সর্বশেষ যে ঘটনাটি আমরা প্রত্যক্ষ করলাম সেটা হলো- চামড়া শিল্পের মহাবিপর্যয়। এতটা বিপর্যয় বাংলাদেশ এর আগে কখনও দেখা যায়নি। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কারা? ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এদেশের সর্বনিম্ন পর্যায়ের এতিম অসহায় শিশুরা। এই চামড়ার টাকাগুলো পেয়ে থাকেন এতিম শিশুরা। এবার তারা সেই টাকা থেকেও বঞ্চিত হল। এই শিল্প বিপর্যয়ের কারণে পার্শ্ববর্তী দেশ রমরমা ব্যবসা করেছে। এসব খবর বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় ইতোমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে।

সরকারের বিরুদ্ধে নিজেদের কার্যকর আন্দোলন গড়ে না তোলার ব্যর্থতার কথা স্বীকার করে ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, আমাদেরও ব্যর্থতা আছে। এই সরকারের বিরুদ্ধে কার্যকর আন্দোলন গড়ে তুলতে না পারার ব্যর্থতা। দেশবাসীকে সাথে নিয়ে যে আন্দোলনটা আমাদের গড়ে তোলার প্রয়োজন ছিল সেটি হয়তো আমরা গড়ে তুলতে পারিনি। তবে এ কথা বলতে পারি- এদেশে কখনও কোনও জালিম সরকার দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। এই সরকারও হবে না।

দুদু বলেন, বেগম খালেদা জিয়া আন্দোলন-সংগ্রামের একজন আপসহীন নেত্রী। তিনি আজ একটি মিথ্যা মামলায় প্রায় পৌনে দুই বছর কারাবন্দি রয়েছেন। তাকে সম্পূর্ণ গায়ের জোরে আটক রাখা হয়েছে। আমাদের অ্যাক্টিং চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে আদালত বেকসুর খালাস দিয়েছিল, তারপরও তিনি দেশে থাকতে পারেন নি।

নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, অনুনয় বিনয় করে বর্তমানে দেশের যে সংকট চলছে এই সংকট থেকে কোনোভাবেই মুক্তি পাওয়া যাবে না। কার্যকর আন্দোলন আমাদেরকে অতীতের মতো গড়ে তুলতে হবে। ছাত্র শ্রমিক মেহনতি মানুষদের নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। হতাশ হওয়ার কিছু নেই। এই জাতি যেদিন জেগে ওঠে রাজপথে নেমে আসবে মুক্তি সেদিনই আসবেই।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস-চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু ও যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ।

সূত্র : বিডি২৪লাইভ
এন এইচ, ২০ আগস্ট.

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে