Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৭ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-২০-২০১৯

‘আমাকে টাকা দিতে চেয়েছিল, আমি নেইনি’

শাহাদাত হোসেন রাকিব


‘আমাকে টাকা দিতে চেয়েছিল, আমি নেইনি’

ঢাকা, ২০ আগস্ট - তানিয়া এবং রিয়াদ উদ্দিন। দুজনই কাজ করেন বাংলাদেশ বিমানের ট্রাফিক হেলপার হিসেবে। একজন পেলেন পুরষ্কার আরেকজন পেলেন তিরস্কার।

এবার মূল কথায় আসা যাক। বিদেশ ফেরত যেসব যাত্রী হুইলচেয়ার রিকুইজিশন দেন তাদেরকে হুইলচেয়ারে বসিয়ে এয়ারক্রাফট থেকে গাড়ি পর্যন্ত নিয়ে যাওয়াই হল তানিয়া এবং রিয়াদ উদ্দিনের কাজ। হুইলচেয়ার সার্ভিস চার্জ টিকেটের মূল্যের সাথে রেখে দেওয়া হয়। ফলে যারা হুইলচেয়ার ঠেলেন তাদেরকে আলাদা করে পারিশ্রমিক দেয়ার দরকার হয় না।

এক বয়স্ক নারী যাত্রীকে হুইল চেয়ারে বসিয়ে ক্যানপি পর্যন্ত নিয়ে যান তানিয়া। এরপর তাকে গাড়িতে তুলে দিয়ে হুইল চেয়ার গুটিয়ে চলে যাচ্ছিলেন। এসময় ওই যাত্রীকে নিতে আসা একজন ব্যক্তি তানিয়াকে পেছন থেকে ডাকেন।

এরপর তার মানিব্যাগ থেকে টাকা বের করে তানিয়াকে দিতে যাচ্ছেন- সিসি ক্যামেরায় সরাসরি এতটুকু দেখে তানিয়াকে ডেকে আনা হয়। এরপর তানিয়া আত্মবিশ্বাসী কণ্ঠে বলেন, ‘আমাকে টাকা দিতে চেয়েছিল। আমি তো নেইনি। আপনি ভিডিও দেখতে পারেন।’

তানিয়ার দাবির সত্যতা যাচাইয়ের জন্য সিসি ক্যামেরায় পরের রেকর্ডেড ফুটেজ দেখা হল। এরপরই নিশ্চিত হওয়া গেল যে টাকা সাধলেও নেন নি তানিয়া। এজন্য তানিয়াকে ডেকে একটি বই পুরস্কার হিসাবে দেয়া হয়েছে। এর সাথে দেয়া হয়েছে একটি প্রশংসাপত্র।

মঙ্গলবার এয়ারপোর্ট ম্যাজিস্ট্রেটের ফেসবুক পেজে (ম্যাজিস্ট্রেটস অল এয়ারপোর্টস অফ বাংলাদেশ) একটি পোস্টের মাধ্যমে এ ঘটনার বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে।

অন্যদিকে রিয়াদ উদ্দিনের প্রসঙ্গে পোষ্টে বলা হয়, তিনি এক যাত্রীর লাগেজ বেল্ট থেকে ট্রলিতে উঠিয়ে ট্রলি ঠেলে ক্যানপিতে নিয়ে যাচ্ছেন। যাত্রী বয়সে তরুণ এবং সুস্থ। তিনি হুইলচেয়ারে উপবিষ্ট নন। ক্যানপিতে যাওয়ার পর রিয়াদ উদ্দিন ওই যাত্রীর কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন।

হুইলচেয়ার ঠেলার কাজ না থাকলেও ওই যাত্রীর লাগেজ ঠেলে বকশিস নেয়ার অপরাধে রিয়াদ উদ্দিনকে জরিমানা করা হয়েছে। পাশাপাশি তাকে বই দেয়া হয়েছে পড়ার জন্য। সাত দিন পর পঠিত বইয়ের উপর লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা দিবেন তিনি। এটাও তার শাস্তির অংশ।

বিমানবন্দরে তানিয়াদের সংখ্যা কম। রিয়াদ উদ্দিনদের সংখ্যা অনেক বেশি। নিজের কাজ ফেলে যাত্রীদের লাগেজ ঠেলে ও টাকা নিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ে প্রতিদিনই কেউ না কেউ শাস্তি পাচ্ছেন বলেও এতে জানানো হয়।

সূত্র : বিডি২৪লাইভ
এন এইচ, ২০ আগস্ট.

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে