Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৫ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-১৩-২০১৯

বর্জ্য অপসারণ চ্যালেঞ্জে জয়ের পথে সিটি মেয়ররা!

বর্জ্য অপসারণ চ্যালেঞ্জে জয়ের পথে সিটি মেয়ররা!

ঢাকা, ১৩ আগস্ট- রাজধানীতে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণে ঢাকা উত্তর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ২৪ ঘণ্টার বেঁধে দেওয়া নির্ধারিত সময়ে অপসারণ চ্যালেঞ্জে জয়ের পথে দুই মেয়র! দুই সিটির প্রধান প্রধান সড়কসহ পাড়া-মহল্লায় বেশিরভাগ এলাকার বর্জ্য অপসারণ হয়েছে বলে মনে করছেন নগরবাসী।

গতকাল ঈদের নামাজের পরে থেকেই দুই সিটি কর্পোরেশন এলাকায় কোরবানির পশু জবাই শুরু হয়। দুপুর ১২টার পর থেকেই সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নকর্মীরা ছোট-বড় গাড়ি নিয়ে বর্জ্য অপসারণের কাজে নেমে পড়েন। দুই সিটি কর্পোরেশনের আঞ্চলিক কর্মকর্তাদের মনিটরিং ও সুপারভিশনে পাড়া মহল্লা ও ওয়ার্ডভিত্তিক বর্জ্য অপসারণ করা হয়।

এ প্রতিবেদক আজ (মঙ্গলবার) সকাল ১০টায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকার আওতাধীন লালবাগ, নবাবগঞ্জ, আজিমপুর, পলাশী, নাজিমউদ্দিন রোড, উর্দুরোড, রহমতগঞ্জ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, কলাবাগান, জিগাতলা, ধানমন্ডিসহ একাধিক এলাকা ঘুরে রাস্তাঘাটের কোথাও বড় ধরনের কোনো কোরবানির পশুর বর্জ্য পড়ে থাকতে দেখেননি।


কয়েকবছর আগেও বিভিন্ন পাড়া-মহল্লার অলিগলিতে পশুর বর্জ্যে ও রক্তের দুর্গন্ধে মুখে রুমাল চেপে হাঁটাচলা করা দায় হলেও এখন সিটি কর্পোরেশন কর্মীদের তৎপরতায় দ্রুত বর্জ্য অপসারণ এবং পাশাপাশি জনসচেতনতা বৃদ্ধির ফলে সেই দৃশ্য আর চোখে পড়েনি।

তবে কোথাও কোথাও সিটি কর্পোরেশনের বড় বড় ডাস্টবিনে আজ সকাল ১০টায়ও কোরবানির পশুসহ বিভিন্ন ধরনের বর্জ্য পড়ে থাকতে দেখা যায়। তবে সেগুলোর জন্য পাড়া-মহল্লায় সিটি কর্পোরেশনের বড় বড় বর্জ্য অপসারণের গাড়ি দেখা গেছে।

আজিমপুর নতুন পল্টন এলাকার ইরাকি মাঠের পাশে বর্জ্যে অপসারণের দায়িত্বে থাকা একজন কর্মকর্তা বলেন, মূলত তারা পাড়া মহল্লার অলিগলিতে পড়ে থাকা বর্জ্য অপসারণে বেশি নজর দিয়েছেন। বড় বড় ডাস্টবিন থেকে ময়লা ঘণ্টাখানেকের মধ্যে অপসারিত হবে। দ্বিতীয় দিনও পশু কোরবানি হওয়ায় কিছু বর্জ্য নতুন করে জমা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

রাজধানীর কলাবাগানের বাসিন্দা আলমগীর হোসেন বলেন, সিটি কর্পোরেশন কর্মীরা এবার বর্জ্য অপসারণে বেশ তৎপর ছিল। বর্জ্য অপসারণে দুই মেয়রের আন্তরিকতা, মনিটরিং ও সুপারভিশনের ফলে এমনটা সম্ভব হয়েছে বলে তিনি মনে করেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটির মতো উত্তরেও এবার বর্জ্যে অপসারণ কার্যক্রম সফল হতে যাচ্ছে বলে অনেকেই মনে করছেন। তবে বর্জ্য অপসারণে সিটি মেয়ররা কতটুকু সফল হলে সে সম্পর্কে দুই মেয়র বিকেলে আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবেন।

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/১৩ আগস্ট

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে