Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৫ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (4 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-১২-২০১৯

আপনার কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকব মমতাময়ী মা

আপনার কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকব মমতাময়ী মা

ফেনী, ১২ আগস্ট- আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির পরিবারের সদস্যরা কিছুতেই তাকে ভুলতে পারছেন না।

প্রতি ক্ষণে মনে পড়ছে নুসরাত ও তার অতীত স্মৃতিকে। বুকে চাপানো ব্যথা নিয়ে ফেসবুকে এক আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন নুসরাতের ছোট ভাই রাশেদুল হাসান রায়হান।

ঈদের দিন সোমবার ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে রাশেদুল হাসান রায়হান লিখেছেন, ‘আপু নেই, তাই আমাদের ঈদের আনন্দ নেই।’

রাশেদুল হাসান আরও লিখেছেন, ‘শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করে এখনো বেঁচে আছি ওই মানুষরূপী হায়েনাদের ফাঁসির দড়িতে ঝুলতে দেখবো বলে।’

রাশেদুল স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জাতির অহংকার, বাংলাদেশের রূপকার মমতাময়ী মা দেশরত্ন শেখ হাসিনা আমাদের পরিবারকে ডেকে নিয়ে একজন মমতাময়ীর পরিচয় দিয়েছেন। আমরা তার কাছে বলেছি, আপুর হত্যাকারীদের যেন দ্রুত বিচার ও সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়া হয়। তিনি আমাদের নিশ্চিত করেছেন। বিচারে কোনো দুর্বলতা রাখা হবে না। আসামিদের রেহাই দেয়া হবে না বলে তিনি বার বার অবগত করেছেন জাতিকে। সর্বশেষ জাতীয় সংসদেও উপস্থাপন করেছেন একাধিকবার, তিনি জানিয়েছেন খুনিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে তার সর্বাত্মক সহায়তা থাকবে। প্রধানমন্ত্রী ও বিচার বিভাগের প্রতি আস্থা রেখে আমরা আশাবাদী, আমার কলিজার টুকরা বোনের নির্মম হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত হবে।’

রাশেদুল হাসান আরও লিখেছেন, ‘একজন রাষ্ট্রপ্রধান যিনি হাজারো ব্যস্ততার মাঝেও আমাদের মামলাটি সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছেন। তারই আলোকে দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে মামলার কার্যক্রম। নিঃস্বার্থভাবে একজন মমতাময়ী মায়ের ভূমিকা পালন করে শুরু থেকে এ পর্যন্ত আমাদের সর্বোচ্চ সহায়তা করে এসেছেন তিনি। প্রতিদিন একজন এসআইয়ের নেতৃত্বে আমাদের নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করে আসছে পুলিশ বাহিনী। মামলাটি দ্রুতগতিতে এগোনোর পেছনে একমাত্র সঙ্গী প্রধানমন্ত্রী। তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশের ভাষা আমাদের পরিবারের সদস্যের জানা নেই।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে রাশেদুল হাসান লিখেছেন, ‘আপনার (প্রধানমন্ত্রী) অবদানের কথা লিপিবদ্ধ করে শেষ করা যাবে না। আপনার কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকব মমতাময়ী মা। মহান আল্লাহর কাছে আপনার সুস্থ জীবন ও দীর্ঘায়ু কামনা করি। বোনহারা হতভাগা এই ভাইয়ের আকুতি, আপনার সুদৃঢ় নেতৃত্বের মাধ্যমে বাংলার জমিনে এ ধরনের হত্যাকাণ্ডের বিচার যেন স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ হয়ে থাকে।’

রাশেদুল হাসান আরও লিখেছেন, ‘শোকের সাগরে বাসিয়ে চিরনিদ্রায় শায়িত আমার কলিজার টুকরা বোনের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই, আল্লাহ যেন আমার বোনকে জান্নাতুল ফেরদাউস দান করেন (আমিন)।’

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/১২ আগস্ট

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে