Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২০ জুলাই, ২০১৯ , ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.8/5 (23 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-৩০-২০১৩

নীলফামারীতে আইডিয়ার ঋনের ফাদে পথে বসেছে শত শত পরিবার


	নীলফামারীতে আইডিয়ার ঋনের ফাদে পথে বসেছে শত শত পরিবার
নীলফামারী, ৩০ সেপ্টেম্বর-: নীলফামারী জেলার সদর উপজেলার পঞ্চপুকুর ইউনিয়নে আইডিয়া নামের একটি অনুমোদনহীন বেসরকারি সংস্থা গ্রামের সহজ-সরল মানুষকে ঋনের ফাদে ফেলে চড়া সুদ আদায় করছে। তাদের সুদের খপ্পরে পড়ে এলাকার শত শত পরিবার পথে বসেছে। সরকারের পক্ষ হতে কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় দিন দিন তারা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। সমাজসেবা কর্মকর্তারা সংস্থাটিকে অনুমোদনহীন বললেও অজ্ঞাত কারণে তারা কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না। ঋনের টাকা পরিশোধ করার পরও সংস্থাটির বিরুদ্ধে সুদের টাকার জন্য মানুষজনকে মারধরসহ বিভিন্নভাবে হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে।
২০০৬ সালে জেলার সদর উপজেলার পঞ্চপুকুর ইউনিয়নের নিভৃত পল্লী ফকিরের বাজারে একটি অফিস খুলে কার্যক্রম শুরু করে আইডিয়া নামের ওই সংস্থাটি। প্রথমে মোটা অংকের ঋনসহ অন্যান্য সুযোগ- সুবিধার প্রলোভন দেখিয়ে ৫০ টাকা ফি নিয়ে গ্রামের সহজ সরল মানুষকে সদস্য করেন। এভাবে গত কয়েক বছরে প্রায় তিন হাজার মানুষকে সদস্য করে সঞ্চয় আদায় করে সংস্থাটি। ঋনগ্রহীতারা জানান, বেসরকারি অন্যান্য সংস্থা ও ব্যাংকের চেয়ে দ্বিগুণহারে সুদ নেয়া হয় এখানে। ১০ হাজার টাকা নলে এক বছরে সুদে আসলে প্রায় ১৭ হাজার টাকা দিতে হয়। এছাড়া কিস্তি খেলাপি হলে সুদের পরিমাণ আরও বেড়ে যায়। পঞ্চপুকুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নাসির উদ্দিন জানান, আইডিয়া থেকে ১০ হাজার টাকা ঋন নিয়ে তাকে ২০ হাজার টাকা দিতে হয়েছে। একই ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড সদস্য মিজানুর রহমান জানান, দুই বছর আগে সংস্থাটি থেকে ২০ হাজার টাকা নিয়ে ১২ হাজার টাকা পরিশোধ করার পর এখন তারা তার কাছে আরও ৩০ হাজার টাকা দাবি করছে। এলাকাবাসী জানায়, ব্যবসা- বাণিজ্য করার জন্য আইডিয়া থেকে ঋণ নিয়ে অনেকে আজ পথে বসেছে। চড়া সুদের ফাদে পড়ে গরু-ছাগল, বাড়ির গাছপালাসহ অন্যান্য জিনিসপত্র বিক্রি করে অনেকে নি:স্ব হয়েছে। এছাড়া ১ লাখ টাকায় প্রতিমাসে তিন হাজার টাকা লাভ দেয়ার কথা বলে প্রায় ৫০ লাখ টাকা আমানত সংগ্রহ করেছে সংস্থাটি। এদিকে সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পারলে সংস্থাটির লোকজন ঋনগ্রহীতাদের অফিসে এনে আটকে রেখে মারধরসহ নানাভাবে হয়রানি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে নীলফামারী সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা কাওছার আহমেদ জানান, আইডিয়া নামের সংস্থাটির কোনো অনুমোদন নেই। তারা অবৈধভাবে গ্রামে লেনদেনের কার্যক্রম করে যাচ্ছে বলে তিনি দাবি করেন। এ বিষয়গুলি জানার জন্য আইডিয়ার নির্বাহী পরিচালক বুলবুল হোসেনের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
 

নীলফামারী

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে