Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ , ৩০ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-০৭-২০১৯

টরন্টোতে ইয়ুথফোর্স ইউনাইটেড এর কার্যক্রমের উদ্বোধন

টরন্টোতে ইয়ুথফোর্স ইউনাইটেড এর কার্যক্রমের উদ্বোধন

টরন্টো, ০৭ আগষ্ট- গত ৪ আগস্ট টরন্টো নগরীর বিভিন্ন কমিউনিটির তরুণদের নিয়ে গঠিত যুব সংগঠন “ইয়ুথ ফোর্স ইউনাইটেড” এর কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়েছে। 
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি আসাদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টরন্টোতে নিযুক্ত বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল নাঈম উদ্দীন আহমেদ এবং স্কারবোরো সাউথওয়েস্ট এর এমপিপি ডলি বেগম। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য যুব সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, অন্যান্য এথ্নিক কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ এবং সাংবাদিকবৃন্দ। 
“বহুমাত্রিক বৈচিত্রেই আমাদের শক্তি” এই মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে নানান ধর্ম আর বর্ণের প্রায় অর্ধশত তরুণ সদস্যের উদ্দীপ্ত উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই ইয়ুথ ফোর্স এর চেয়ারম্যান ও পৃষ্ঠপোষক রিজওয়ান রহমান ইয়ুথ ফোর্স গঠনের পটভূমি এবং এর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার বিস্তারিত তুলে ধরেন।
রিজওয়ান বলেন, যে সংগঠনের প্রথম পর্যায়ের প্রকল্পগুলোর মধ্যে প্রধান হলো “ইয়ুথ হাব্”, সহজ বাংলায় যার অর্থ দাঁড়ায় “তারুণ্যের কেন্দ্র”।
২২২৬ কিংস্টন রোড এ অবস্থিত এই “ইয়ুথ হাব্”-এ সংগঠনের সদস্যরা একত্রিত হয়ে সমকালীন বিষয়াদি থেকে শুরু করে তাদের দৈনন্দিন জীবনের বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ ইত্যাদি সমস্ত বিষয়ে সমবয়সী এবং তরুণমনা অগ্রজদের সাথে আলোচনা করতে পারবে, টেক্সট বই থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরণের শিক্ষামূলক বই অথবা উপন্যাস পড়তে ও ধার নিতে পারবে, নানান সৃষ্টিশীল কর্মকান্ড, বিতর্ক প্রতিযোগিতা, খেলাধুলা এবং আলোচনায় নিজেদের ব্যস্ত রাখতে পারবে। এক কথায় বলতে গেলে এই “ইয়ুথ হাব্” টি হবে চটপটে অথবা লাজুক, খেলোয়াড় অথবা শিল্পী এমন অসংখ্য তরুণের নির্ভরতার স্থান, যেখানে তারা নির্ভয়ে নিজেদের মনের ভাব প্রকাশ করতে পারবে এবং তাদের সমবয়সী অথবা অগ্রজদের কাছ থেকে উপদেশ পরামর্শ থেকে শুরু করে নানান ধরণের সহায়তা পাবে।
খুব শিগগিরই এই ইয়ুথ হাব্ এ সাইকোলোজিক্যাল/মোটিভেশনাল কাউন্সিলিং থেকে শুরু করে একাডেমিক কাউন্সিলিং এবং বিনামূল্যে বিজ্ঞান, গণিত এবং বিভিন্ন ভাষার টিউটোরিং এর ব্যবস্থা করা হবে। এছাড়া ইয়ুথ হাব এ থাকবে ইয়ুথ এমপ্লয়মেন্ট ডেস্ক, যেখানে স্কীলড ভলান্টিয়ার রা তরুণদের পার্ট-টাইম অথবা ফুল-টাইম চাকরি খুঁজতে সাহায্য করবে।
সংগঠনটির একটি শক্তিশালী এবং আকর্ষণীয় বিভাগ হল এর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ। সমাজসেবার পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কিশোর-তরুণদের মাঝে যোগাযোগ ও সম্প্রীতির দৃঢ় বন্ধন তৈরী করা ইয়ুথ ফোর্স এর অন্যতম লক্ষ। এই বিভাগটির কথা বলতে গিয়ে রিজওয়ান জানান, নিজ দেশ কানাডায় সমাজকর্মের পাশাপাশি আমরা চাইবো আমাদের প্রতিটি সদস্য তাঁদের শিকড় যে দেশে, সেখানকার উন্নয়নেও কিছু অবদান রাখুক। এতে তাদের জ্ঞান এবং চিন্তা চেতনার পরিধিটা যেমন বাড়বে, তেমনি নিজের শিকড়ের সাথে সংযোগটাও দৃঢ় হবে।
এই বিভাগের তরুণ কর্মীরা ইতোমধ্যে বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলংকা, ইউক্রেন, জার্মানী, আয়ারল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া এবং দক্ষিণ কোরিয়াতে সেখানকার স্থানীয় তরুণদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করে ইয়ুথ ফোর্সের স্থানীয় শাখা স্থাপন করে ক্ষুদ্র পরিসরে বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কর্মকান্ড শুরু করেছে।
খুব শিগগিরই বাংলাদেশে “আবাসিক পরিবেশে পরিচ্ছন্নতা” প্রকল্প এবং সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ বাংলাদেশ, পাকিস্তান, শ্রীলংকা ও ইউক্রেন এ বৃক্ষরোপন অভিযান পরিচালিত হবে। এছাড়াও সীমিত আকারে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান এবং বিভিন্ন দেশে দুস্থ মানুষের সাহায্যার্থে খাবার পানির ব্যবস্থা ইত্যাদি নানান প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে আগামী ৬ মাসে, আর এই সমস্ত কর্মকান্ডের সমন্বয় এবং পৃষ্ঠপোষকতা করবে কানাডার প্রধান কার্যালয়। নিয়মিত ভিডিও কনফারেন্সিং এবং অদূর ভবিষ্যতে ২/৩ মাস দৈর্ঘ্যের এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম এর মাধ্যমে এইসব দেশগুলোর তরুণদের মধ্যে সম্প্রীতির সেতুবন্ধন তৈরী ইয়ুথ ফোর্স এর একটি মূল লক্ষ্য হবে বলে জানানো হয়।
অনুষ্ঠানে ইয়ুথ ফোর্সের ক্রীড়া বিভাগের যাত্রার প্রথম পদক্ষেপ হিসাবে “টীম ৭১” ক্রিকেট টীম এর লোগো উন্মোচন করা হয়। “টীম ৭১” টরন্টোর মূলধারার অফিসিয়াল ক্রিকেট লীগ এর দ্বিতীয় বিভাগে খেলার মাধ্যমে তাঁদের যাত্রা শুরু করবে আগামী মৌসুমে। সংগঠনের আরেকটি দল “দ্য ব্লিজার্ডস” খেলবে বিভিন্ন টেনিসবল ক্রিকেট টুর্নামেন্টে। দুই ক্ষেত্রেই শক্তিশালী দল গঠনের জন্য এখন থেকেই নিয়মিত প্রশিক্ষণ শুরু করেছেন বলে জানান সেক্রেটারী অফ স্পোর্টস হোসাইন সুমন। খুব শিগগিরই আরো বেশ কিছু খেলায় পুরুষ এবং মহিলা দুই বিভাগেই দল গঠন করা হবে বলেও জানানো হয় অনুষ্ঠানে।
সংগঠনের সবচাইতে ব্যতিক্রমধর্মী দিক হলো এর সাংগঠনিক কাঠামো। গতানুগতিক ধারার বাইরে থেকে পথচলা এবং অধিক সংখ্যক তরুণদের মাঝে নেতৃত্বগুণ জাগিয়ে তোলার আকাঙ্খায় সংগঠনটিতে কোনো প্রেসিডেন্ট বা সেক্রেটারী পদ রাখা হয়নি। সংগঠন পরিচালনায় সর্বোচ্চ ক্ষমতার অধিকারী হচ্ছে ১৩ সদস্যের লিডারশিপ কাউন্সিল। কাউন্সিলের প্রতিটি সদস্যের দায়িত্বে রয়েছে একটি নির্দিষ্ট বিভাগ, তবে সংগঠনের প্রতিটি সিদ্ধান্ত এই কাউন্সিলের মাসিক সভায় আলোচনার পর ভোটের মাধ্যমে নির্ধারিত হয়।
প্রধান অতিথি কবি আসাদ চৌধুরী তাঁর বক্তব্যে বহুমাত্রিক বৈচিত্রের এই দেশে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তরুণদের এমন একটি প্রচেষ্টায় নেতৃত্ব দেয়াকে অসাধারণ একটি পদক্ষেপ হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি কানাডার সাথে বাংলাদেশের নিবিড় সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন অমর ২১-কে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের মর্যাদা এনে দেবার কাজ এই কানাডিয়ান বাংলাদেশিদের উদ্যোগেই হয়েছে। এখানকার বাংলাদেশি লেখকেরা লিখেছেন মুক্তিযুদ্ধের উপর অসাধারণ অসংখ্য বই। তাই কানাডার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তরুণদের অনেক উপলক্ষ আছে গর্ব করার, অনুপ্রেরণা নেবার। বাঙালি-অবাঙালি তারুণ্যকে একসুতোয় গাঁথার প্রচেষ্টার জন্য তিনি ইয়ুথ ফোর্সকে ধন্যবাদ জানান।
বিশেষ অতিথি টরন্টোতে নিযুক্ত বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল নাইম উদ্দিন আহমেদ তাঁর বক্তব্যে প্রবাসী তরুণদের নিজেদের শিকড়ের সাথে নিবিড় যোগাযোগ তৈরির উপর গুরুত্ব দেন। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ইয়ুথ হাব এর লাইব্রেরিতে বাংলাদেশের ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধ এবং সংস্কৃতির উপর বেশ কিছু বই উপহার দেবার ঘোষণা দেন।
স্কারবোরো সাউথওয়েস্ট এর প্রাদেশিক সাংসদ ডলি বেগম বলেন, কানাডায় বেড়ে ওঠা কিশোর তরুণদের নানান ধরণের চ্যালেঞ্জ এর মুখোমুখি হতে হয়। আর এইসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তাদের পরিবারের সমর্থন যেমন প্রয়োজন, তেমনি প্রয়োজন সমবয়সীদের সাথে নির্ভয়ে নিজেদের চিন্তা ভাবনা শেয়ার করার সুযোগ। ইয়ুথ ফোর্স তরুণদের সেই প্রয়োজন পূরণ করবে বলে ডলি আশা প্রকাশ করেন।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশি কানাডিয়ান তরুণ সংগঠক রাইফাহ নাজাহ খান এবং তামিল যুব সংগঠক এবং প্রাক্তন সিটি কাউন্সিলর নিথিন শান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে ইয়ুথ হাব্-এ ব্যবহারের জন্য কিছু আসবাবপত্র অনুদান দেন ড্যানফোর্থ বাংলা টাউনের প্রিয়মুখ এবং মিজান ফার্নিচার এর কর্ণধার মিজানুর রহমান।
অনুষ্ঠানে ইয়ুথ ফোর্স এর প্রথম কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্যদের পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। সংগঠনের বিভাগীয় সচিব পদের অধিকারীরা হলেন ওলিউর রহমান (অ্যাডমিনিস্ট্রেশন), রাদিয়া রেজা (ফাইন্যান্স), মাহবুব আহমেদ সজীব (প্রোগ্রামস), হাসিব করিম (মেম্বারশীপ), সাউদা রেজা (মিডিয়া এন্ড পাবলিক রিলেশনস), হায়াৎ আসফিয়া হক (সোশ্যাল মিডিয়া), হোসাইন সুমন (স্পোর্টস), মোমিনা হাসান এবং নাজিয়া সুলতানা (ইন্টারন্যাশনাল কোলাবোরেশন), রাইফ নাজাহ খান এবং রুমা হোসাইন স্বর্ণা (মেম্বার-এট-লার্জ)।
ইয়ুথ ফোর্স ইউনাইটেড সম্পর্কে আরো তথ্য জানতে সংগঠনের ফেইসবুক পেজ @YouthForceUnited এ চোখ রাখতে অনুরোধ করা হয়। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে অতিথিরা সংগঠনের প্রধান কার্যালয় “ইয়ুথ হাব্” ঘুরে দেখেন।
-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

কানাডা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে