Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ১০ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.1/5 (30 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-২৯-২০১৩

জেনে নিন লাল মাংসের ১৫টি লাভ-ক্ষতি!

শ্রাবণী জামান


জেনে নিন লাল মাংসের ১৫টি লাভ-ক্ষতি!

যে কোনো ধরনের মাংস আমিষ জাতীয় খাবারের প্রধান উৎস। আর আমিষ জাতীয় খাদ্য আমাদের শরীরের গঠন ও বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। সাধারন ভাবে যে মাংস কাঁচা অবস্থায় লাল রঙের থাকে ও রান্নার পরও যার রঙ সাদা হয় না সে ধরনের মাংসকেই আমরা লাল মাংস বা Red meat বলে থাকি। বেশিরভাগ স্তন্যপায়ী প্রাণী ও কিছু সংখ্যক পাখির মাংস লাল রঙের হয়ে থাকে।

লাল মাংসের ভেতর আমরা সাধারনত গরু ও খাসীর মাংসই বেশি খেয়ে থাকি। এইসব মাংস যেমন আমাদের শরীরের আমিষের চাহিদা পূরণ করছে তেমনি অধিক সেবনের ফলে লাল মাংসের দ্বারাই আমাদের শরীর নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। আসুন জেনে নেয়া যাক লাল মাংস বা রেড মিটের উপকারি ও ক্ষতিকর দিকগুলি –

উপকারি দিক 
১) লাল মাংসে প্রচুর পরিমানে জিংক থাকে যা মানব শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তোলে। জিংকের অভাবে শরীরের বৃদ্ধি কম হয়। এছাড়া শরীরের কোন স্থানে ক্ষত হলে জিংকের অভাবে ক্ষত শুকাতে বিলম্ব হয়।
২) লাল মাংস বা রেড মিটে রয়েছে প্রচুর পরিমানে আয়রন। আয়রন রক্তে হিমোগ্লোবিন তৈরিতে সাহায্য করে। শরীরে আয়রনের অভাব হলে রক্ত শূন্যতা দেখা দেয়। তাই যাদের রক্ত শূন্যতা আছে তাদের জন্য লাল মাংস ও কলিজা দারুন উপকারি।
৩) লাল মাংসে রয়েছে ভিটামিন বি। ভিটামিন বি আমাদের স্নায়ু কোষকে সচল রাখতে সাহায্য করে।
৪) লাল মাংসে আছে পর্যাপ্ত পরিমানে ফসফরাস যা আমাদের দাঁত ও হাড়ের জন্য খুব উপকারী।
৫) লাল মাংস বা রেড মিট প্রানিজ আমিষের গুরুত্বপূর্ণ উৎস। আমাদের শরীরের জন্য দরকারি প্রানিজ আমিষের পুরোই আমরা রেড মিট থেকে পেতে পারি।

ক্ষতিকর দিক 
১) লাল মাংসে থাকে প্রচুর পরিমানে সম্পৃক্ত চর্বি থাকায় লাল মাংস খেলে হৃদ রোগের ঝুঁকি বাড়ে। নিয়মিত লাল মাংস বেশি খেলে হৃদ রোগের সম্ভাবনা অনেকখানি বেড়ে যায়।
২) অতিরিক্ত লাল মাংস খেলে রক্ত নালীর পুরুত্ব বেড়ে যায় ফলে স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ে।
৩) গবেষণায় দেখা গেছে অধিক লাল মাংস খেলে কোষ্ঠ কাঠিন্য দেখা দেয় ফলে মলাশয় ও মলনালির ক্যানসার হবার আশংকা থাকে।
৪) লাল মাংস টাইপ-২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়। তাই যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে তাদের লাল মাংস পরিহার করা উচিত।

৫) নিয়মিত লাল মাংস সেবনে স্তন ক্যানসার, খাদ্যনালীর ক্যানসার ও পাকস্থলীর ক্যানসার হতে পারে। তাই সপ্তাহে ৩০০ গ্রামের (মাঝারি ৪ টুকরা) বেশি লাল মাংস খাওয়া ঠিক নয়।
৬) লাল মাংস রক্তে কোলেস্টোরলের পরিমান বাড়িয়ে দেয়। ফলে শরীরের ওজন অধিক বৃদ্ধি পায়। আর শরীরের ওজন বাড়ার কারনে উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিসের মতো ঘাতক ব্যাধি হতে পারে।
৬)  নিয়মিত লাল মাংস সেবনে উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি বেড়ে যায়।
৭) রেড মিট নিয়মিত খেলে ধূমপান ও মদ্যপানের অভ্যাস গড়ে ওঠে।

৮) গবেষণায় দেখা গেছে দৈনিক শুধুমাত্র একবার যারা লাল মাংস আহার করেন তাদের হৃদরোগে মৃত্যু ঝুঁকি ১৬ ভাগ বেশি এবং ক্যানসারে মৃত্যু ঝুঁকি স্বাভাবিকের চেয়ে ১০ ভাগ বেশি।
৯) অতিরিক্ত চর্বি জাতীয় মাংস দেহের বিপাক ক্রিয়ার সামর্থ্যকে কমিয়ে দেয় ফলে মানব শরীরের কর্মক্ষমতা হ্রাস পায়।
১০) অধিক পরিমানে রেড মিট খেলে এটি ব্রেনে লৌহের পরিমান বাড়িয়ে দেয়। ফলে আলঝেইমার্স রোগ হতে পারে।

উপকারি দিক -
১) লাল মাংসে প্রচুর পরিমানে জিংক থাকে যা মানব শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তোলে। জিংকের অভাবে শরীরের বৃদ্ধি কম হয়। এছাড়া শরীরের কোন স্থানে ক্ষত হলে জিংকের অভাবে ক্ষত শুকাতে বিলম্ব হয়।
২) লাল মাংস বা রেড মিটে রয়েছে প্রচুর পরিমানে আয়রন। আয়রন রক্তে হিমোগ্লোবিন তৈরিতে সাহায্য করে। শরীরে আয়রনের অভাব হলে রক্ত শূন্যতা দেখা দেয়। তাই যাদের রক্ত শূন্যতা আছে তাদের জন্য লাল মাংস ও কলিজা দারুন উপকারি।
৩) লাল মাংসে রয়েছে ভিটামিন বি। ভিটামিন বি আমাদের স্নায়ু কোষকে সচল রাখতে সাহায্য করে।
৪) লাল মাংসে আছে পর্যাপ্ত পরিমানে ফসফরাস যা আমাদের দাঁত ও হাড়ের জন্য খুব উপকারী।
৫) লাল মাংস বা রেড মিট প্রানিজ আমিষের গুরুত্বপূর্ণ উৎস। আমাদের শরীরের জন্য দরকারি প্রানিজ আমিষের পুরোই আমরা রেড মিট থেকে পেতে পারি।
 

ক্ষতিকর দিক –
১) লাল মাংসে থাকে প্রচুর পরিমানে সম্পৃক্ত চর্বি থাকায় লাল মাংস খেলে হৃদ রোগের ঝুঁকি বাড়ে। নিয়মিত লাল মাংস বেশি খেলে হৃদ রোগের সম্ভাবনা অনেকখানি বেড়ে যায়।
২) অতিরিক্ত লাল মাংস খেলে রক্ত নালীর পুরুত্ব বেড়ে যায় ফলে স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ে।
৩) গবেষণায় দেখা গেছে অধিক লাল মাংস খেলে কোষ্ঠ কাঠিন্য দেখা দেয় ফলে মলাশয় ও মলনালির ক্যানসার হবার আশংকা থাকে।
৪) লাল মাংস টাইপ-২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়। তাই যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে তাদের লাল মাংস পরিহার করা উচিত।
৫) নিয়মিত লাল মাংস সেবনে স্তন ক্যানসার, খাদ্যনালীর ক্যানসার ও পাকস্থলীর ক্যানসার হতে পারে। তাই সপ্তাহে ৩০০ গ্রামের (মাঝারি ৪ টুকরা) বেশি লাল মাংস খাওয়া ঠিক নয়।
৬) লাল মাংস রক্তে কোলেস্টোরলের পরিমান বাড়িয়ে দেয়। ফলে শরীরের ওজন অধিক বৃদ্ধি পায়। আর শরীরের ওজন বাড়ার কারনে উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিসের মতো ঘাতক ব্যাধি হতে পারে।
৬)  নিয়মিত লাল মাংস সেবনে উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি বেড়ে যায়।
৭) রেড মিট নিয়মিত খেলে ধূমপান ও মদ্যপানের অভ্যাস গড়ে ওঠে।
৮) গবেষণায় দেখা গেছে দৈনিক শুধুমাত্র একবার যারা লাল মাংস আহার করেন তাদের হৃদরোগে মৃত্যু ঝুঁকি ১৬ ভাগ বেশি এবং ক্যানসারে মৃত্যু ঝুঁকি স্বাভাবিকের চেয়ে ১০ ভাগ বেশি।
৯) অতিরিক্ত চর্বি জাতীয় মাংস দেহের বিপাক ক্রিয়ার সামর্থ্যকে কমিয়ে দেয় ফলে মানব শরীরের কর্মক্ষমতা হ্রাস পায়।
১০) অধিক পরিমানে রেড মিট খেলে এটি ব্রেনে লৌহের পরিমান বাড়িয়ে দেয়। ফলে আলঝেইমার্স রোগ হতে পারে।

গবেষণা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে