Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-০১-২০১৯

মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীকে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ

মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীকে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ

খুলনা, ০১ আগস্ট - জমি দখলকে কেন্দ্র করে খুলনায় এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত এবং অভিযুক্ত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে খুলনা জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগীর দশম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে লামইয়া আক্তার।

মুক্তিযোদ্ধা (গেজেট নং-১১৬১) আব্দুল কাদের আকন মহানগর সংশ্লিষ্ট লবনচরা এলাকায় বাস করেন। তথ্য মিলেছে, একই এলাকার নজরুল ইসলামের কাছ থেকে তিনি ১০ লাখ টাকায় দুই কাঠা জমি কেনেন। তবে টাকা নিয়েও তিনি জমি লিখে দেননি।

গত ১১ জুলাই মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদেরের স্ত্রী হেলেনা বেগম খুলনার আদালতে নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে সিআর মামলা করেন (নং-সি/১৮২)। আর এরপর মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা গত ২৯ জুলাই সন্ধ্যায় তার বাড়িতে অভিযান চালান।

সে সময় বাড়িতে শুধু আব্দুল কাদেরের স্ত্রী হেলেনা বেগম ও দশম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে লামইয়া আক্তার উপস্থিত ছিলেন। পরিবারের অভিযোগ, তল্লাশির নামে তাদের ঘর থেকে ইয়াবা উদ্ধারের নাটক সাজায়।

লামইয়া সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা হাওলাদার সিরাজুল ইসলামসহ ৫/৬ জনের দল আমাদের ঘরে ঢুকে নানাভাবে হেনস্তা করে। ঘরে তল্লাশির নামে অরাজকতা সৃষ্টির এক পর্যায়ে একজন লোক তার হাতে থাকা ছোট একটি পোটলা আমাদের জানালার কাছে রাখার চেষ্টা করলে আমি তা দেখে ফেলি। এ বিষয়ে কথা বলতে গেলে আমাকে ধমকানো হয়। এরপর আমার মা হেলেনা বেগমকে নিয়ে তারা চলে যায়। পরে জানতে পারি, আমার মায়ের নামে লবণচরা থানায় পাঁচ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মাদক আইনে মামলা দিয়েছেন তারা।’

‘এছাড়াও গত দুইদিন ধরে আমাদের বাড়িতে অজ্ঞাত যুবকরা এসে নানা ধরনের হুমকি ধামকি দিয়ে যাচ্ছেন। জমি ছেড়ে না গেলে আমি ও আমার মুক্তিযোদ্ধা বাবাকেও মাদক দিয়ে ফাঁসানো হবে বলে তারা হুমকি দিয়েছে। এছাড়া আমাকে এসিড মেরে ঝলসে দেয়াসহ ধরে নিয়ে সম্ভ্রমহানী করার হুমকিও দিচ্ছেন ওই অজ্ঞাত যুবকরা। নিরাপত্তাহীনতায় সে স্কুলেও যেতে পারছি না।’

তবে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ অস্বিকার করেছেন মাদ্রকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর খুলনার উপ-পরিচালক মো. রাশেদুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘ওই নারীর বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার সুনির্দিষ্ট অভিযোগ রয়েছে যার ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’

মুক্তিযোদ্ধা সংসদের খুলনা নগর শাখার কমান্ডার আলমগীর কবির বলেন, ‘আব্দুল কাদের আকনের পরিবার মাদক ব্যবসার সাথে কখনই জড়িত থাকতে পারে না। এটা পরিকল্পিতভাবে ফাঁসানো ছাড়া আর কিছুই নয়। আমরা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করছি।’

সূত্র : ঢাকাটাইমস
এন এইচ, ০১ আগস্ট.

খুলনা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে