Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ১ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.9/5 (70 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০৫-২০১১

মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাকারী বিল্ট ডেমিংকে সংবর্ধনা

মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাকারী বিল্ট ডেমিংকে সংবর্ধনা
আমেরিকান বিন্ট ডেমিংকে সংবর্ধনা জানালেন প্রবাসীরা।
একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে ব্যবহারের জন্যে বাল্টিমোর ও ফিলাডেলফিয়া থেকে অস্ত্রভর্তি পাকিস্তানী জাহাজ অবরোধকারীদের অন্যতম আমেরিকান বিন্ট ডেমিংকে প্রবাসীদের পক্ষ থেকে বিশেষ সম্মান জানানো হলো। ৩ ডিসেম্বর পেনসিলভেনিয়ার ?বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব দেলওয়ার ভেলী? আয়োজিত ?মুক্তিযুদ্ধের বিদেশী বন্ধু সভা? শীর্ষক এ অনুষ্ঠানে বিন্ট ডেমিংকে সম্মাননা পদক হস্তান্তর করেন এসোসিয়েশনের সভাপতি পরিবেশবিদ ড.গোলাম কবির। এ সময় সকলে দাঁড়িয়ে বিপুল করতালিতে অভিনন্দন ও শ্রদ্ধা জানান মুক্তিযুদ্ধের বিদেশী এই বন্ধুকে। একইসাথে পেনসিলভেনিয়া অঞ্চলে বসবাসরত ১০ মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের বীর প্রতিক, ডা. জিয়াউদ্দিন আহমেদ, আবুল কাশেম, মোখলেসুর রহমান, তাহের ভূইয়া, কাজী মতিউর রহমান,আবু রহমান, নাজমুল ইসলাম খান এবং ড. খালেকুজ্জামানকেও স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়। ফিলাডেলফিয়ায় ড্রেক্সেল হিল মিডল স্কুলের মিলনায়তনের এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ড. গোলাম কবির এবং পরিচালনা করেন সেক্রেটারী মিয়া করিম। অনুষ্ঠানে একাত্তরের স্মৃতিচারণ করেন মি. ডেমিং। তিনি বলেন, স্বাধীনতার জন্যে বাঙালিদের মুক্তিযুদ্ধের সংবাদ জেনে আমরা কয়েকজন ঐক্যবদ্ধ হই। পাকিস্তানীদের নির্বিচার গণহত্যার সংবাদে আমরা বিচলিতবোধ করি এবং আমেরিকান মিডিয়ায় তা প্রচারের উদ্যোগ নেই। একই সময়ে আমরা জানতে পারি যে পাকিস্তান থেকে জাহাজ এসেছে অস্ত্র নিতে। নোঙর করেছে বাল্টিমোর এবং ফিলাডেলফিয়া সমুদ্র বন্দরে। আমরা কয়েকজন ছোট ছোট নৌকা ভাড়া করে ঐ জাহাজের সামনে অবরোধ সৃষ্টি করি। সাথে কয়েকজন বাঙালিও ছিলেন। এক পর্যায়ে পুলিশ এসে আমাদের গ্রেফতার করেছিল। তবে বেশীক্ষণ আটকে রাখতে পারেনি। আমরা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে এভাবেই কাজ করেছি এবং তা আন্তর্জাতিক মিডিয়ায় ফলাও করে প্রচারিত হয়েছিল। মি. ডেমিং বলেন, আজ ৪০ বছর পর সেই দেশটির মানুষদের সাথে মিশতে পেরে আমার খুব ভালো লাগছে। আমি আশা করছি, বাংলাদেশ পৃথিবীর বুকে সুখ ও সমৃদ্ধশালী একটি রাষ্ট্রে পরিণত হবে। তিনি উলে?খ করেন, বিগত বছরগুলোতে বাংলাদেশ অনেক অগ্রগতিসাধন করেছে। এ সময় ডা. জিয়াউদ্দিন আহমেদ বার্তা সংস্থা এনাকে জানান যে, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে বিশেষ ভূমিকা পালনকারী আরো কয়েক আমেরিকানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু তারা ভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকায় আসতে পারেননি। তবে তারা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বাংলাদেশের সর্বস্তরের মানুষকে।
এ অনুষ্ঠানের সংবর্ধিত মুক্তিযোদ্ধারাও স্মৃতিচারণ করেন এবং শহীদ পরিবারের স্বজনদের বক্তব্য সম্বলিত একটি ভিডিও প্রদর্শিত হয়। অনুষ্ঠানে সমবেত সকলে একাত্তরের ঘাতকদের বিচার দ্রুত সম্পাদনের প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। একাত্তরের ঘাতকদের রক্ষায় যারা নানা তৎপরতায় লিপ্ত রয়েছে তাদের কঠোর সমালোচনা করা হয়। অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আলোকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সকলের প্রশংসা কুড়িয়েছে।

যূক্তরাষ্ট্র

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে