Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ , ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-৩০-২০১৯

জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব টরন্টোর বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত

ইলিয়াছ খান


জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব টরন্টোর বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত

গত ২৮-শে জুলাই (রোববার) স্কারবোরোস্থ থমসন মেমোরিয়াল পার্কে অনুষ্ঠিত হয় জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব টরন্টো, কানাডা কর্তৃক আয়োজিত বার্ষিক বনভোজন ২০১৯। প্রতিবছরের মত এবারও বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা এবং অত্যন্ত আনন্দঘন ও উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই সুবিশাল আয়োজন। হাজারেরও অধিক অতিথির আগমনে সরগরম হয়ে উঠে থমসন মেমোরিয়াল পার্কের বিশাল এলাকা। 

আয়োজনের একটি বড় আকর্ষণ ছিল ক্রীড়া প্রতিযোগিতা যার মধ্যে ছিল ছোটদের বিভিন্ন বিভাগে দৌড় প্রতিযোগিতা, মহিলাদের মিউজিকাল পিলো, দম্পতিদের নিয়ে বিষেশ বেলুন দৌড় এবং পুরুষদের ব্লাইন্ড ক্রলিং প্রতিযোগিতা। ক্রীড়া প্রতিযোগিতাগুলো পরিচালনা করেন এজাজ চৌধুরী, আহমেদ জয়, ইলিয়াছ খান এবং মনসুর আহমেদ।  

এবারের পিকনিককে স্মরণীয় করে রাখার লক্ষ্যে স্থাপন করা হয় ডিজিটাল ফটোবুথ এবং দেশে বিদেশে মিডিয়া’র সৌজন্যে রাঁধুনি প্রতিযোগিতা। ডিজিটাল ফটোবুথের কল্যানে সম্পূর্ণ ফ্রীতে ছবি তুলে সেটা সাথে সাথে প্রিন্ট করে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ অতিথিবৃন্দের কেউই হাতছাড়া করতে চাননি আর সেজন্যই বুথের সামনে ছিল লম্বা লাইন। এটির সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন উজ্জ্বল দাস এবং দেবব্রত দে তমাল। অন্যদিকে বেশ কয়েকজন প্রতিযোগীদের নিয়ে সেরা রাঁধুনি কে হবেন সেটা নিয়ে চলছিল আরেক আয়োজন। রাঁধুনী প্রতিযোগিতার আকর্ষণীয় অনুষ্ঠানে বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আসমা আহমেদ, কলি বখত ও রিফফাত নূয়েরীন। বিচারকদের রায়ে সর্বোচ্চ ৮.৫ পয়েন্ট পেয়ে এই পর্বে প্রথম পুরুষ্কার অর্জন করেন দেওয়ান বুশরা আল জান্নাত। দ্বিতীয় হয়েছেন পূর্ণিমা মজুমদার প্রমা ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেছেন দু'জন যথাক্রমে সেলিনা নজরুল ও মলি বখত। সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন দেশে বিদেশে ফাউন্ডেশনের প্রধান সমন্বয়কারী জাহানারা নাসিমা। বিজয়ীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন স্কারবোরো সাউথ থেকে নির্বাচিত কানাডার প্রথম বাংলাদেশি বংশদ্ভুত এমপিপি ডলি বেগম।

আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য যথারীতি সংগঠনের নিজস্ব তত্ত্বাবধানে প্রস্তুত এবং পরিবেশনা করা হয় হরেক রকম মজাদার খাবার-দাবার । নিজাম এনায়েত হোসেন (এনু) এবং রুমেল সালাউদ্দিনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এই পর্বে সহযোগিতায় ছিলেন হাবিবুর রহমান, মনসুর আহমেদ, ফয়জুল চৌধুরী, আব্দুল হামিদ (শিপ্লু), ফরিদুল ইসলাম রাফে, আহমেদ জাভেদ চৌধুরী, শফিক আহমেদ, ইন্তিখাব চৌধুরী তুহিন, মিজান চৌধুরী, ফারুক আহমেদ, সাকের মুস্তাফা চৌধুরী, মাহবুব কাদির, মুজিবুল হক সহ আরো অনেকে। তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে রাতভর তৈরী খাবার মেনুতে উল্ল্যেখযোগ্য ছিল চিকেন রোস্ট, ডাল দিয়ে খাসির মাংস ভুনা, আলু দিয়ে হিঁদল ও লইট্যা মাছের শুঁটকি এবং ডেজার্ট হিসেবে ছিল ফিরনি। এছাড়াও ছিল বিভিন্ন ধরনের স্নাক্স এবং কোমল পানীয়। 

আয়োজনের বিষেশ আকর্ষণ রাফেল ড্র-তে প্রথম পুরুষ্কার হিসেবে ছিল কানাডা এক্সপ্রেস-এর সৌজন্যে টরোন্টো টু নিউ ইয়র্ক রিটার্ন টিকেট এবং সেটা জিতে নেন আলতাফ হোসেন নামের সৌভাগ্যবান অতিথি। এছাড়াও ছিল ইউ. পি. এস. (জাহির উদ্দিন)-এর সৌজন্যে স্যামসাঙ ট্যাবলেট, ইসলামিয়া হালাল ফুড-এর সৌজন্যে $২০০ গ্রোসারি গিফ্ট কার্ড, জাহিদুল ইসলাম এর সৌজন্যে বারবিকিউ মেশিন, মকবুল হোসেন মন্জুর সৌজন্যে আই পি বক্স এবং ফারুক আহমেদ-এর সৌজন্যে আয়রন মেশিন। এই পর্বটি পরিচালনায় ছিলেন আসাদ আহাদ এবং মকবুল হোসেন মন্জু। 

এবারের আয়োজনে প্রধান পৃষ্টপোষকতায় ছিলেন এমেরাল্ড লিগাল প্রফেশনাল কর্পোরেশন-এর কর্নধার ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক, কানাডা ন্যাশনাল কনস্ট্রাকশন ইন্ক্এ-র কর্নধার এম ডি হাসান, অকরিজ মর্টগেজ-এর কর্নধার অসাবুদ্দিন খান অসাব। এছাড়াও পৃষ্টপোষকতায় ছিলেন মারহাবা সুপার মার্কেট, রিয়েল এস্টেট সেলস রিপ্রেসেন্টেটিভ সাব্বির চৌধুরী, রিয়েল এস্টেট সেলস রিপ্রেসেন্টেটিভ কাজী হাসান, রিয়েল এস্টেট সেলস রিপ্রেসেন্টেটিভ সুশীতল চৌধুরী, এ ডাব্লিউ এস ল ফার্ম-এর প্রতিষ্ঠাতা ব্যারিস্টার ওয়াসিম আহমেদ, এস এস আর কলুশন এক্সপার্ট, ইন্সুরেন্স সেলস রিপ্রেসেন্টেটিভ শক্তি দেব, টি-একাউন্টিং ফার্ম এর তপন এম সায়ীদ, রিয়েল এস্টেট সেলস রিপ্রেসেন্টেটিভ মুহাম্মদ শরিফুল ইসলাম, রিয়েল এস্টেট সেলস রিপ্রেসেন্টেটিভ কোহিনুর ইসলাম তানভীর, ব্রোকার অব রেকর্ড আজমল মিয়াঁ, রিয়েল এস্টেট সেলস রিপ্রেসেন্টেটিভ আব্দুল আজিজ, রিয়েল এস্টেট সেলস রিপ্রেসেন্টেটিভ বিবেক সেন রাজীব, ট্রাভেল ওয়ার্ল্ড এর মোহাম্মদ দেলোয়ার খান, সাবু শাহ লিমোজিন সার্ভিস, গেটওয়ের মকবুল হোসেন মন্জু এবং আশা ট্রাভেল। 

আয়োজনের শেষের দিকে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার বিভিন্ন বিভাগে বিজয়ীদের আকর্ষণীয় পুরুস্কারে পুরুস্কৃত করা হয়। অনেকটা উৎসব আর টান টান উত্তেজনায় রাফেল ড্র-এর মাধমে বনভোজনের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

বনভোজনে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মাধ্যমে অংশগ্রহকারী সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন আহ্বয়াক মিলাদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মাহবুব চৌধুরী এবং সভাপতি দেবব্রত দে তমাল সহ সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন জুমেল চৌধুরী।

এবারের আয়োজক কমিটির মধ্যে যারা ছিলেন 
আহ্বায়কঃ মিলাদ চৌধুরী, যুগ্ন আহ্বায়কঃ মাশরুর হোসেন রিপন, আসাদ আহাদ, মেহেদী শরীফ, হাবিবুর রহমান চৌধুরী
ফাইন্যান্স সেক্রেটারিঃ ফারুক আহমেদ, স্পোর্টস সেক্রেটারিঃ এজাজ চৌধুরী, এন্টারটেইনমেন্টঃ মকবুল হোসেন মন্জু, ফুড এন্ড বেভারেজঃ মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টঃ আহমেদ জয়, জুমেল চৌধুরী এবং উজ্জ্বল দাস, প্রেস এন্ড পাবলিসিটিঃ ইলিয়াছ খান, উপদেষ্টা মন্ডলিঃ ফয়জুল চৌধুরী, আব্দুল হামিদ (শিপ্লু), ফরিদুল ইসলাম রাফে, আহমেদ জাভেদ চৌধুরী এবং রিফফাত নূয়েরীন। 

কানাডা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে