Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২০ , ১৫ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-২৬-২০১৩

বাংলাদেশকে জনগণের হাতে ফিরিয়ে দিতেই এ আন্দোলন


	বাংলাদেশকে জনগণের হাতে ফিরিয়ে দিতেই এ আন্দোলন

ঝিনাইদহ, ২৬ সেপ্টেম্বর- রামপালে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প বাতিলসহ সাত দফা দাবিতে তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সুন্দরবন অভিমুখী লংমার্চ ঝিনাইদহ থেকে যশোরের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছে। বৃহস্পতিবার মাগুরায় সমাবেশ শেষে বিকাল ৪টার দিকে ঝিনাইদহ শহরের প্রদান টার্মিনালে এসে পৌঁছালে ঝিনাইদহে লংমার্চকে স্বাগত জানান প্রস্তুতি কমিটির ঝিনাইদহের আহবায়ক আব্দুস সালাম, সমন্বয়কারী নেহাল উদ্দীন সোহেল, সিপিবি নেতা কাজী ফারুক, রবিউল আলম খোকন ও বাসদ নেতা আসাদুলসহ বহু নেতা-কর্মী। পরে সেখান থেকে তারা মিছিল নিয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক দক্ষিণ করে শহরের আরাপপুর বাসষ্ট্যান্ডে সমাবেশ করে। এখানে কয়েক হাজার মানুষ সমাবেশে অংশ নেন। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন করেন ঝিনাইদহ জেলা আহ্বায়ক কাজী ফারুক। সমাবেশে জাতীয় কমিটির আহবায়ক প্রকৌশলী শেখ শহিদুল্লাহ বলেন, ভারতীয় আগ্রাসন থেকে সুন্দরবনকে রক্ষাা করতেই এই আন্দোলন। তিনি বলেন, ভারতীয় আধিপত্যবাদীদের আকাংখা সুন্দরবনকে ধ্বংস করা। তারা মনে করে ভারতের বিরুদ্ধে আমাদের প্রতিরোধ করার শক্তি নেই। সেই জন্য সকলকে এই আন্দোলনে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সুন্দরবন রক্ষার শক্তিকে বেগবান করতে হবে। তিনি বলেন এই আন্দোল নতুন বাংলাদেশ গড়ার আন্দোলন। এই আন্দোলন নতুন করে মুক্তিযুদ্ধের আন্দোলন। তাই যে কোন ভাবে সরকারের এই চক্রান্ত রুখে না দিলে সুন্দরবন ধ্বংস হয়ে যাবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। সমাবেশে অধ্যাপক আনু মোহাম্মদ বলেন, পৃথিবীতে বাংলাদেশের মতো একটি দেশ পাওয়া কঠিন। যেখানে এমন কোন সম্পদ নেই। তিনি বলেন পৃথিবীর অন্যান্য দেশ পানি কিনে খায়। আর আমাদের দেশে পানির অভাব নেই। তিনি বলেন, তারপরও আমরা ভারতীয়দের কারণে ঠিকমতো পানি পায় না। বাংলাদেশ আর বাংলাদেশের জনগনের হাতে নইে উল্লেখ করে তিনি বলেন জনগনের হাতে বাংলাদেশকে ফিরিয়ে দিতেই আমাদের এই লংমার্চ। সমাবেশে সিপিবির রুহিন হোসেন প্রিন্স, ওয়ার্কাসপার্টির রাগিব আহসান মুন্না, নজরুল ইসলাম গনসংহতির জোনায়েদ সাকি, কুষ্টিয়ার নেতা কমরেড ফজলুল হক, ইসবারুল হক, সিরাজুল ইসলাম বাবু, গুজরত আলী মোল্লাহ উপস্থিত ছিলেন। সমাবেশ শেষে ঢাকা থেকে আগত লংমার্চে অংশ নেয়া নেতাকর্মীরা ঝিনাইদহে আপ্যায়িত হন। এরপর বিকাল ৫টার দিকে যশোরের উদ্দেশ্যে তারা ঝিনাইদহ ত্যাগ করেন।
উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে সুন্দরবন রক্ষার দাবিতে তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির পাঁচ দিনব্যাপী ঢাকা-সুন্দরবন লংমার্চটি যাত্রা শুরু করে।

ঝিনাইদহ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে