Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৪ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৭-২১-২০১৯

বিয়েতে ব্যর্থ হয়ে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা!

বিয়েতে ব্যর্থ হয়ে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা!

কিশোরগঞ্জ, ২১ জুলাই- কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় স্কুল ছাত্রী স্মৃতি আক্তার রিমাকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় মামলা হয়েছে। শুক্রবার রাতে নিহতের মা আঙ্গুরা খাতুন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে চারজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ৫-৬ জনকে আসামি করে পাকুন্দিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলায় একই উপজেলার চরফরাদী গ্রামের খুরশিদ মিয়ার ছেলে জাহিদ মিয়া, রুবেল মিয়ার ছেলে পিয়াস মিয়া, ফারুক মিয়ার ছেলে রুমান মিয়া ও কফুল উদ্দিনের ছেলে রাজু মিয়াসহ অজ্ঞাত আরো ৫-৬ জনকে আসামি করা হয়েছে।

এদিকে স্কুলছাত্রী স্মৃতি আক্তার রিমাকে গণধর্ষণ শেষে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে শনিবার পাকুন্দিয়া এবং হোসেনপুর দুই উপজেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ্য করা হয়, পাকুন্দিয়া উপজেলার গাংধোয়ারচর গ্রামে স্কুল ছাত্রী স্মৃতি আক্তার রিমার নানার বাড়ি। নানার বাড়ি বেড়াতে যাওয়া-আসার সুবাদে পাশের চরফরাদী গ্রামের জাহিদের সাথে রিমার পরিচয় হয়। এই সূত্র ধরে জাহিদ মুঠোফোনে প্রায়ই নানা কথা বলে রিমাকে বিরক্ত করতো।

গত মঙ্গলবার বিকালে নানির অসুস্থতার খবর পেয়ে মায়ের সাথে নানার বাড়ি যায় রিমা। খবর পেয়ে বুধবার রাত নয়টার দিকে জাহিদ তার বন্ধু পিয়াস, রুমান ও রাজুসহ অজ্ঞাত আরো পাঁচ-ছয়জনকে সঙ্গে নিয়ে রিমার নানার বাড়ি যায়। সেখানে রিমার মায়ের কাছে গিয়ে রিমাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয় জাহিদ। মা রিমাকে জাহিদের কাছে বিয়ে দিতে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয় জাহিদ ও তার সঙ্গীরা।

এসময় রিমার মা জাহিদকে বাড়ি থেকে চলে যেতে বলে। তখন জাহিদ ও তার সঙ্গীরা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে রিমা ও তার মাকে হত্যার হুমকি দিয়ে বাড়ি থেকে চলে যায়। পরে মধ্যরাতের দিকে রিমা প্রকৃতির ডাকে বসতঘরের বাইরে একটি টয়লেটে যায়। টয়লেট থেকে ঘরে ফিরতে দেরি হওয়ায় রিমাকে খুঁজতে বের হয় রিমার মা। খুঁজে না পেয়ে বাড়ির পশ্চিম পাশের পুকুর পাড়ে গিয়ে দেখেন জাহিদ ও তার সঙ্গীরা রিমাকে আটকে রেখেছে। মা রিমাকে ডাকতে থাকলে এসময় জাহিদ রিমার মাকে উদ্দেশ্যে করে বলে, আমি আপনার মেয়ে রিমাকে বিয়ে করব। এই কথা বলে রিমাকে জোর করে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে পালিয়ে যায় জাহিদ ও তার সঙ্গীরা। পরে ভোরে বাড়ির পশ্চিম পাশের পুকুর পাড়ে একটি বরই গাছের সাথে রিমার মৃতদেহ ঝুলানো, রিমার হাঁটু মাটিতে লেগে রয়েছে, ডান হাত ও বাম-পা ভাঙা এবং যৌনাঙ্গ ও পায়ুপথ রক্তাক্ত অবস্থায় রয়েছে। বিয়েতে ব্যর্থ হয়ে রিমাকে অপহরণ করে জোরপূর্বক গণধর্ষণ করে হত্যা করা হয় বলে মামলার এজাহারে অভিযোগ করা হয়।

এদিকে স্কুল ছাত্রী রিমাকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে শনিবার দুপুরে পাকুন্দিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে সত্যের পথে আলোর সন্ধানে যুব সংঘ নামে একটি সংগঠন। বিক্ষোভ মিছিলটি পৌরবাজার প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ গেইটের সামনে গিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচিতে মিলিত হয়।

অন্যদিকে স্মৃতি আক্তার রিমার হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার ও ফাঁসির দাবিতে রিমার স্কুল হোসেনপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে তীব্র রোদ উপেক্ষা করে সহপাঠী স্মৃতি আক্তার রিমা ধর্ষণ ও হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার ও ফাঁসির দাবিতে হোসেনপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও পার্শ্ববর্তী বিদ্যালয়সমূহের শতশত ছাত্রছাত্রী দীর্ঘ সময় রাস্তায় দাঁড়িয়ে এই কর্মসূচি পালন করে।

নিহত স্মৃতি আক্তার রিমা হোসেনপুর উপজেলার জামাইল গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের মেয়ে এবং হোসেনপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

১৭ জুলাই রাতে পাকুন্দিয়া উপজেলার গান্দারচর গ্রামে নানার বাড়িতে বেড়াতে গেলে ধর্ষণ ও হত্যার শিকার হয় রিমা।

এমএ/ ০০:১১/ ২১ জুলাই

কিশোরগঞ্জ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে