Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৯ , ২৮ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-১৫-২০১৯

প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় এরশাদ

প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় এরশাদ

ঢাকা, ১৫ জুলাই- জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আর নেই। কিন্তু তার অবদান রয়ে গেছে মানুষের হৃদয়জুড়ে।

তিনি নিজের প্রজ্ঞা, জ্ঞান ও শিক্ষা দিয়ে গড়ে তুলেছেন নতুন বাংলাদেশ। তার অনেক অবদান রয়েছে আধুনিক বাংলাদেশ বিনির্মাণে। দেশের সার্বিক উন্নয়নের পাশাপাশি দুর্যোগ মোকাবেলায় তার অনেক অবদান রয়েছে।

পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসনামলে আঞ্চলিক ভিত্তিতে আর্ন্তজাতিক সহযোগিতায় বন্যা সমস্যার স্থায়ী সমাধানে নীতি গ্রহণ করা হয়। স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদী অভ্যন্তরীণ বন্যা নিরোধ প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়নের সূচনা করা হয়।

তার উদ্যোগে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় জাতিসংঘে বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা করা হয়। ওই সময়ে পল্লীবন্ধু এরশাদের আমন্ত্রণে জাতিসংঘের মহাসচিব বাংলাদেশ সফর করে দেশের দুর্যোগ পরিস্থিতি অবলোকন করেন।

এরশাদের সময় ঢাকা মহানগরী রক্ষা বাঁধ নির্মাণ করা হয় এবং নদী বরাবর বাঁধের পামে কংক্রিটের দেয়াল নির্মাণ করা হয়।

প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে জরুরি ভিত্তিতে ত্রাণ সামগী প্রেরণের জন্য প্রতি উপজেলায় এরশাদের সরকারের সময় হেলিপ্যাড নির্মাণের কাজ শুরু করা হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে ৩২৫ উপজেলায় হেলিপ্যাড নির্মাণ করা হয়।

পল্লীবন্ধু এরশাদের সময়ে ভরাট নদী খননের সূচনা করা হয়। সম্ভাব্য স্থানে ড্রেজিং আরম্ভ করে ৩৩টি নদীর খনন কাজ সম্পন্ন হয়।

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ জাতীয় দুর্যোগ প্রতিরোধ কমিশন গঠন করেন। এই পরিষদে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সেবামূলক প্রতিষ্ঠান, পেশাজীবী সংগঠনের প্রতিনিধিত্ব রাখার ব্যবস্থা করা হয়।

তার শাসন আমলে বাংলাদেশের বন্যা সমস্যা একটা মানবিক সমস্যা হিসেবে বিশ্ববাসীর দৃষ্টি আর্কষণ করা হয়। পল্লীবন্ধু এরশাদের প্রচেষ্টা ও তৎপরতার ফলে পৃথিবীর শিল্পোন্নত দেশগুলো বাংলাদেশের বন্যা সমস্যার সমাধানের ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করে।

এরশাদের ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় ‘বাংলাদেশের বন্যাঃ আঞ্চলিক ও ভূমণ্ডলীয় পরিবেশগত প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক আর্ন্তজাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। এই সেমিনারে বিদেশ থেতে আগত ৩৫ জন বিজ্ঞানীসহ ১৮২ জন অংশগ্রহণ করেন।

প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক সমাজের দুঃখ-দুর্দশা লাঘবের জন্য কৃষকদের ঋণের সুদের বোঝা থেকে রক্ষা করার লক্ষ্যে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত কৃষি ঋণের সুদ মওকুফ করা হয়। যার পরিমাণ ছিল ৬০০ কোটি টাকা।

তার আমলে জাতীয় ঐক্যমত গড়ে তোলার লক্ষ্যে শুধূমাত্র বন্যা ও বন্যা পরিস্থিতি সর্ম্পকে আলোচনার জন্য জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এরশাদ সরকারের নির্মাণ নীতিতে সমস্ত নির্মাণ কাজে বন্যা সমস্যাকে বিবেচনায় রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।

এরশাদ সরকারের আমলে বন্যার পরে রোপন করা যায় এমন জাতের ধান উদ্ভাবন করা হয়েছে এবং বন্যায় টিকে থাকতে পারে এমন জাতের ধান উদ্ভাবনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল।

তার আমলে দুটো ভয়াবহ বন্যা এবং দুটি ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড় ও সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস হয়েছে। এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কিন্তু এরশাদের আপ্রাণ ও নিরলস সর্বাত্মক প্রচেষ্টা, যোগ্যতা ও দক্ষতার ফলে অতি অল্প সময়ে এসব অকল্পনীয় দুর্যোগ মোকাবেলায় সক্ষম হন। এজন্য তিনি দেশে বিদেশে সমানভাবে প্রশংসিত হয়েছেন।

এসব দুর্যোগকালে প্রতিবারই দেশে-বিদেশে মহা দুর্ভিক্ষের আশঙ্কা ব্যক্ত করা হয়েছে। কিন্তু প্রতিবারই পল্লীবন্ধু এরশাদ সেই আশঙ্কাকে অমুলক প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন।

১৯৮৭ সালে নজীরবিহীন ভয়াবহ বন্যার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির কারণে কৃষি ঋণ গ্রহীতাদের ওপর থেকে সব প্রকার সার্টিফিকেট মামলা ও মাল ক্রোক প্রভৃতি স্থগিত রাখার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

১৯৮৮ সালের মহা প্রলংয়করী বন্যায় ধ্বংসলীলা, চরম বিপর্যয় থেকে কৃষকদের রক্ষা করার জন্য এবং স্বাভাবিক জীবন-যাত্রা ফিরিয়ে আনার জন্য বন্যাত্তোর কৃষি পূণর্বাসনের আওতায় পর্যাপ্ত পরিমাণ অর্থ বরাদ্দসহ বীজ-ধান, গমের বীজ, রবি শষ্যের বীজ ও পশু খাদ্যের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

১৯৮৮ সালের নভেম্বরের ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসে ক্ষতিগ্রস্থ , ধ্বংসপ্রাপ্ত ঘড়-বাড়ি নির্মাণ ও ফসলের ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠার জন্য কৃষকদের সব প্রকার ঋণ সহজলভ্য করার জন্য ঋণদান সংস্থা ও ব্যাংকসমূহকে জরুরি নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।

উল্লেখ্য, এইচএম এরশাদ রোববার সকাল পৌনে ৮টায় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

সূত্র: যুগান্তর

আর/০৮:১৪/১৫ জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে