Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর, ২০১৯ , ২৮ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-১৪-২০১৯

পাবনায় নেতাকর্মীদের পরিবারের খোঁজ নিতে যাচ্ছেন বিএনপির এমপিরা

পাবনায় নেতাকর্মীদের পরিবারের খোঁজ নিতে যাচ্ছেন বিএনপির এমপিরা

ঢাকা, ১৪ জুলাই- পাবনার ঈশ্বরদীতে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা থাকাকালীন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ট্রেনবহরে হামলার মামলায় সাজাপ্রাপ্ত নেতাকর্মীদের পরিবারের খোঁজ-খবর নিতে পাবনা যাচ্ছেন একাদশ সংসদে নির্বাচিত বিএনপির সাত সংসদ সদস্য। আগামী ১৬ জুলাই সকাল সাড়ে সাতটায় সড়কপথে গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের নেতৃত্বে তারা রওনা হবেন।

রোববার (১৪ জুলাই) চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য জানান।

শায়রুল কবির খান বলেন, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে বিএনপির সংসদ সদস্যরা মঙ্গলবার সকালে পাবনায় রওনা হবেন।

জিএম সিরাজের নেতৃত্বে যারা পাবনায় যাবেন, তারা হচ্ছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য আমিনুল ইসলাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের সংসদ সদস্য আবদুস সাত্তার ভুঁইয়া, বগুড়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য মোশাররফ হোসেন, ঠাকুরগাঁওয়ের সংসদ সদস্য জাহিদুর রহমান জাহিদ ও সংরক্ষিত আসনের মহিলা সংসদ সদস্য রুমীন ফারহানা।

উল্লেখ্য, ৩ জুলাই পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতে ৯ জনের ফাঁসি, ২৫ জনের যাবজ্জীবন ও ১৩ জনের ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের রায় হয়। ওই রায়ের পর বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছিলেন, দীর্ঘ ২৪ বছর পর এই রায় ঘোষণায় প্রমাণিত হয় যে, সরকারের ক্রমপ্রসারমান ফাঁসির দড়ি এখন বিএনপির নিবেদিতপ্রাণ নেতাকর্মীদের দিকে ধাবিত হচ্ছে। বিএনপিসহ বিরোধী দল-মত নিশ্চিহ্নকরণে নাৎসিবাদী আয়োজনের নগ্ন বহিঃপ্রকাশ আজকে সরকারের নির্দেশে পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের রায়।

তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর দলীয় কর্মসূচিতে ট্রেনবহর নিয়ে রেলপথে খুলনা থেকে সৈয়দপুর যাচ্ছিলেন। পথে ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশন এলাকায় ট্রেনটি পৌঁছালে উপর্যুপরি গুলিবর্ষণ করা হয়।

এ ঘটনায় ঈশ্বরদী জিআরপি থানার তৎকালীন ওসি নজরুল ইসলাম বাদি হয়ে ৭ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। ৩ বছর পর ১৯৯৭ সালে ৩ এপ্রিল সিআইডির তদন্তে ৫২ জন আসামিকে অভিযুক্ত করে অভিযোগ পত্র দেয়া হয়।

এর মধ্যে রোববার (৩০ জুন) দুপুরে ৩০ জন আসামি আদালতে স্বশরীরে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। মারা গেছেন ৬ আসামি। বাকি আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

আসামিরা ঈশ্বরদী উপজেলা ও পৌর বিএনপি এবং অঙ্গ সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী বলে জানা গেছে।

এমএ/ ১১:২২/ ১৪ জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে