Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ , ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (22 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-১৩-২০১৯

বিয়ের দাবিতে তরুণীর অনশন, শ্বশুরবাড়ি থেকে পালালেন প্রবাসী!

বিয়ের দাবিতে তরুণীর অনশন, শ্বশুরবাড়ি থেকে পালালেন প্রবাসী!

কিশোরগঞ্জে, ১৩ জুলাই- কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে বিয়ের দাবিতে এক প্রবাসীর শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে অনশন করেছেন এক তরুণী। তাকে দেখে রাকিব হাসান রনি (৩০) নামের ওই সিঙ্গাপুর প্রবাসী শ্বশুরবাড়ি থেকে পালিয়ে গেছেন।

ওই তরুণীর বাড়ি নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলায় হলেও তিনি কিশোরগঞ্জ সদরে গাইটাল এলাকায় তার বোনের বাড়িতে থাকেন। সেখান থেকেই শহরের বড় বাজার এলাকায় একটি বিউটি পার্লারে কাজ করেন।

ওই তরুণীর দাবি, তাড়াইলের রাউতি ইউনিয়নের সুরঙ্গল গ্রামের আজিম উদ্দিনের ছেলে সিঙ্গাপুর প্রবাসী রাকিব হাসান রনির সঙ্গে তার পরিচয় হয় ফেসবুকে। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত চার বছর ধরে তাদের প্রেম চলছে।  

ওই তরুণীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক থাকা অবস্থায় গত ২০ দিন আগে পরিবারের পছন্দমতো পাশের এক তরুণীকে বিয়ে করেন রাকিব হাসান রনি। বিয়ের পর প্রেমিকা দাবি করা ওই তরুণীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। গত বৃহস্পতিবার রনির বিয়ের খবর পান তার ওই তরুণী। পরে গতকাল শুক্রবার সকালে রাকিব হাসান রনির সঙ্গে দেখা করতে তার শ্বশুরবাড়িতে যান। তাকে দেখতে পেয়ে শ্বশুরবাড়ি থেকে পালিয়ে যান রনি।

রনিকে না পেয়ে তার শ্বশুরবাড়ির একটি কক্ষে প্রবেশ করে আত্মহত্যার হুমকি দেন ওই তরুণী। খবর পেয়ে তাড়াইল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রাজীব আহম্মেদ রিপন গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন।  

ওই তরুণীর বরাত দিয়ে এসআই রাজীব আহম্মেদ রিপন জানান, ফেসবুকের মাধ্যমে প্রবাসী রনির সঙ্গে ওই তরুণীর পরিচয় হয়। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ২০১৮ সালে রনি দেশে এলে তারা দুজনে এক সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরেছেন। স্বামী-স্ত্রীর পরিচয়ে গত ১৮ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জে ওই তরুণীর ভগ্নিপতির বাড়িতে এক সঙ্গে রাতে থেকেছেন। এরপর রনি আবার সিঙ্গাপুরে চলে যান।

এসআই আরও জানান, বিয়ের দাবিতে অনশনে থাকা ওই তরুণী থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ দেননি। তাই তাকে উদ্ধার করে তাড়াইলের রাউতি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শরীফ উদ্দিন জুয়েলের জিম্মায় রেখে আসা হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান শরীফ উদ্দিন জুয়েল জানান, গতকাল বিকেলে রাউতি ইউপির গ্রাম পুলিশ ও স্থানীয় গণ্যমান্য লোকদের সঙ্গে ওই তরুণীকে দিয়ে সুরঙ্গল গ্রামে রাকিব হাসান রনির বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ওই তরুণীকে বাড়িতে ঢুকতে দেয়নি রনির পরিবারের লোকজন। পরে গতকাল রাতেই ওই তরুণীর ভাইয়েরা এসে তাকে বাসায় নিয়ে যায়।  

ওই তরুণী বলেন, ‘আমাকে বিয়ে না করলে রাকিব হাসান রনির বিরুদ্ধে নারী-নির্যাতন আইনে মামলা করব।’

সূত্র: আমাদের সময়
এনইউ / ১৩ জুলাই

কিশোরগঞ্জ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে