Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০১৯ , ২ শ্রাবণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-১১-২০১৯

নয়ন বন্ডের মতো মোখলেছের লাশ দাফনেও বাধা

নয়ন বন্ডের মতো মোখলেছের লাশ দাফনেও বাধা

কুমিল্লা, ১১ জুলাই - গত কয়েকদিন ধরে দেশজুড়ে শুধু একটাই আলোচনা চলছিল। স্ত্রীর সামনে স্বামীকে খুন। আর তাও দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখল শ খানেক লোক। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসল না। এ নিয়ে উত্তাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। রিফাত শরীফের (২২) মৃত্যুর ঘটনায় দেশজুড়ে চলছিল শোকের মাতম।

এদিকে রিফাত হত্যাকাণ্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই কুমিল্লার দেবিদ্বারে দিন দুপুরে মা-ছেলেসহ তিনজনকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছেন মোখলেছুর রহমান (৩৪) নামে এক রিকশাচালক। এ ঘটনায় গণপিটুনিতে নিহত হয়েছেন ঘাতক মোখলেছ। বুধবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার রাধানগর গ্রামে এ হত্যার ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পর হত্যাকারী রিকশাচালক মোখলেছুর রহমানের জানাজা ও লাশ দাফনে বাধা প্রদান করে এলাকায় বিক্ষোভ করেছে স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে একটি পিকআপযোগে তিনজনের মরদেহের সঙ্গে ওই ঘাতকের মরদেহ এলাকায় আনার পর স্থানীয়রা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। তারা ঘাতক মোখলেছের জানাজা ও লাশ দাফনে বাধা দিয়ে বিক্ষোভ করে। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে নিহতদের পরিবার ও স্থানীয়দের সঙ্গে সমঝোতা করে তার মরদেহ দাফন করা হয়।

এদিকে তিনজনের মরদেহ একসঙ্গে এলাকায় আনার পর তাদের আত্মীয়-স্বজনরা কান্নায় ভেঙে পড়ে। এসময় এলাকায় এক শোকাবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। তাদের জানাজায় এলাকার সর্বস্তরের লোকজন অংশ নেয়।

অন্যদিকে ওই ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে দেবিদ্বার থানায় পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে। দেবিদ্বার থানার ওসি জহিরুল আনোয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সকালে নিহত নাজমা বেগমের ছোট ভাই মো. রুবেল হোসেন বাদী হয়ে জনতার হাতে গণপিটুনিতে নিহত মো. মোখলেছুর রহমানকে একমাত্র আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। অপরদিকে ঘাতক মোখলেছুর রহমানের স্ত্রী মো. রাবেয়া বেগম বাদী হয়ে তার স্বামীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় রাধানগর গ্রামের অজ্ঞাতনামা ১৫০০ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা দুটি অধিকতর তদন্ত ও হত্যাকাণ্ডে মূল রহস্য উদঘাটনের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কুমিল্লাকে হস্তান্তর করার কথা রয়েছে।

ওই ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ঘাতকের বাড়িতে হামলার আশঙ্কায় এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে। সন্ধ্যায় কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম জানান, ওই হামলার সময় আহত হয়ে যারা এখনও হাসপাতালে রয়েছেন তাদেরকে পুলিশের পক্ষ থেকে সহায়তা করার পাশাপাশি বুধবার থেকে নিহতের পরিবারের সদস্যদের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এর আগে গত বুধবার সকাল ১০টায় দেবিদ্বার উপজেলার রাধানগর গ্রামে রিকশাচালক মোখলেছুর রহমান ধারালো দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে নাজমা বেগম, আনোয়ারা বেগম আনু ও শিশু আবু হানিফকে কুপিয়ে হত্যা করে। এ সময় আহত হন আরও অন্তত পাঁচজন। পরে স্থানীয় লোকজন গণপিটুনি দিয়ে ঘাতক মোখলেছকে হত্যা করে।


সূত্র : বিডি২৪লাইভ

এন এইচ, ১১ জুলাই.

কুমিল্লা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে