Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ , ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.9/5 (24 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-১০-২০১৯

‘খালেদা জিয়াকে সরিয়ে দেয়ার নীলনকশা করেছে সরকার’

মো. ইলিয়াস


‘খালেদা জিয়াকে সরিয়ে দেয়ার নীলনকশা করেছে সরকার’

ঢাকা, ১০ জুলাই- বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়াকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেয়ার নীলনকশা তৈরী করেছে সরকার।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় ক্ষমতার মত্ততায় দেড় বছর বন্দী রাখা হয়েছে। তিনি গুরুতর অসুস্থ। তাঁর জামিনে এখন সরাসরি বাধা দিচ্ছেন মিডনাইট নির্বাচনের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আদালতে হস্তক্ষেপ করার পাশাপাশি দেশনেত্রীর আইনজীবীদেরও আইনি পদক্ষেপ গ্রহণে বাধা দেয়া হচ্ছে। দেশনেত্রীর ওকালতনামায় স্বাক্ষর করতে দেয়া হচ্ছে না। এর মাধ্যমে একজন নাগরিক হিসাবে সংবিধান প্রদত্ত আইনগত অধিকার থেকেও তাঁকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। এর থেকে জুলুম আর কি হতে পারে? এখানেই প্রমানিত হয়-কর্তৃত্ববাদী সরকারের হাতের মুঠোয় থাকে রাষ্ট্রের সকল প্রতিষ্ঠান।

বুধবার (১০ জুলাই) রাজধানীর নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসকল কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে রিজভী বলেন, আর কত জুলুম করবেন ৭৪ বছর বয়সী একজন মহিয়সী বয়স্ক নারীকে? আর কতদিনে মিটবে আপনার নির্দয় প্রতিহিংসার তৃষ্ণা? আমি এই মুহূর্তে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও তাঁর নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানাচ্ছি; বলেন রিজভী আহমেদ।

তিনি বলেন, সরকারের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত মন্ত্রী, উপদেষ্টা এবং তাদের অত্যন্ত প্রিয়ভাজন এলএনজি আমদানিকারক ব্যবসায়ীদের বাড়তি খরচ মেটাতে জনগণের ঘাড়ে গ্যাসের দাম চাপিয়ে দেয়া হয়েছে। এলএনজি ব্যবসায়ীদের সুবিধা দিতে সাধারণ ভোক্তাদেরকে কেন বাড়তি দাম দিতে হবে?

গ্যাস খাতে লুটপাট, চুরি, দুর্নীতি, অব্যবস্থাপনায় ক্ষমতাসীনরা নানাভাবে জড়িত। এলএনজি আসার আগে সিষ্টেম লস বা চুরি ছিলো ৩ শতাংশ। এখন সেই চুরি ১২ শতাংশে গিয়ে ঠেকেছে। অর্থাৎ ৩০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস চুরি হচ্ছে। এর দাম আমদানি মূল্যের হিসাবে প্রায় ৭০০ কোটি টাকা। এখন এই চুরি গণবিরোধী সরকার বন্ধ না করে উল্টো জনগণকে শাস্তি দিচ্ছে।

গত ছয় মাসে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম শতকরা প্রায় ৫০ ভাগ কমে গেছে। বিশ্ববাজারে দরপতনের এই সময়ে বাংলাদেশের গণবিরোধী সরকার গ্যাসের দাম গড়ে ৩২ দশমিক ৮ শতাংশ বাড়িয়েছে। কৃষি, বিদ্যূৎ ও শিল্পে বেড়েছে ৪৬ শতাংশ। সার উৎপাদনে বেড়েছে ৬৪ শতাংশ। ফলে জীবনযাত্রা ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যে অস্থির অবস্থা। আন্তর্জাতিক বাজার থেকে যে গ্যাস ভারত কেনে ৬ ডলারে, পাকিস্তান কেনে ৮ ডলারে, সেখানে বাংলাদেশকে কেন তা ১০ ডলারে কিনতে হবে? দায়দায়িত্ব জনগণকে কেন গ্রহণ করতে হবে?

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, কোন অজুহাত দেখাবেন না। গ্যাসের দাম কমান। গ্যাসের দাম বাড়ানোর কারণে জনজীবনে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। জনগণ ক্ষোভে ফুঁসছে। অনতিবিলম্বে গ্যাসের দাম বাড়ানোর ঘোষণা স্থগিত করুন। অন্যথায় রাজপথে নেমে জনগণ দাবি আদায় করে নিবে।

সূত্র: বিডি২৪লাইভ

আর/০৮:১৪/১০ জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে