Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৫ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-০৬-২০১৯

কমিটি বাতিলে আ’লীগের ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম

কমিটি বাতিলে আ’লীগের ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম

ঢাকা, ৬ জুলাই - একাত্তরের শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি প্রয়াত আবদুল হামিদের নাতি জোবায়ের হোসেন সোহানকে ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌর তাঁতী লীগের আহ্বায়ক করা হয়েছে। কমিটি বাতিলের দাবিতে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন।

শনিবার গৌরীপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিধু ভূষণ দাস।

তিনি বলেন, পৌর তাঁতী লীগের আহ্বায়ক জোবায়ের হোসেন সোহানের দাদা প্রয়াত আবদুল হামিদ মুসলিম লীগের এমপি ও ১৯৭১সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় গৌরীপুর উপজেলা শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলেন। সোহানের চাচা ডা. মো. আব্দুস সেলিম ডক্টর অ্যাসোসিয়েশেন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিংহ-৩ গৌরীপুর আসনে বিএনপির প্রাথমিক মনোনয়নপ্রাপ্ত তিনজন প্রার্থীর একজন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিধু ভূষণ দাস আরও বলেন, ওই নির্বাচনকে সামনে রেখে সোহান বিএনপির হয়ে গণসংযোগ করেন। এই অবস্থায় একজন চিহ্নিত শান্তি কমিটির চেয়ারম্যানের নাতি ও বিএনপি পরিবারের সদস্য সোহানকে তাঁতী লীগের আহ্বায়ক করায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ক্ষোভে ফুসে উঠেছেন। এ কমিটি আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে। তাই ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই কমিটি বাতিলের দাবি জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ডা. হেলাল উদ্দিন আহাম্মেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন জুয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল মুন্নাফ, দফতর সম্পাদক অধ্যক্ষ শফিকুল ইসলাম মিন্টু, রামগোপালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম মাস্টার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহফুজ উল্লাহ, উপজেলা তাঁতী লীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক মো. আবদুল লতিফ, উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবু সাঈদ, রেজাউল করিম, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোকাম্মেল হক তালুকদার, কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মতিউর রহমান রফিক, ছাত্রলীগ নেতা উমর ফারুক স্বাধীন, তাঁতী লীগ নেতা শাহ জাহান কবীর প্রমুখ।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা তাঁতী লীগের আহ্বায়ক জুবায়ের হোসেন সোহান বলেন, আমার দাদা যেহেতু একটি দল করতেন, তার ওপর কমিটির দায়িত্ব আসতেই পারে। কিন্তু আমার দাদা এখানকার হিন্দু সম্প্রদায়ের পরিবারকে আশ্রয় ও মুক্তিকামী মানুষের সহযোগিতা করার কারণে উল্টো পাকহানাদার বাহিনী বেঈমান আখ্যায়িত দিয়ে মেরে ফেলতে চেয়েছিল। আর আমি বিগত নির্বাচনে নৌকা পক্ষের বিজয়ের জন্য কাজ করেছি। কখনও আমি বিএনপির সঙ্গে ছিলাম না।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা তাঁতী লীগের আহ্বায়ক তাজুল ইসলাম বলেন, তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পেলে কমিটি বাতিল করা হবে।

উল্লেখ্য, ৫ জুলাই জুবায়ের হোসেন সোহানকে আহ্বায়ক করে ২১ সদস্যবিশিষ্ট গৌরীপুর পৌর শাখা তাঁতী লীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়।


সূত্র : যুগান্তর

এন এইচ, ৬ জুলাই.

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে