Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৫ আগস্ট, ২০১৯ , ১০ ভাদ্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-০৪-২০১৯

মাশরাফি না থাকলেও এগিয়ে যেতে হবে: স্টিভ রোডস

রবিউল ইসলাম


মাশরাফি না থাকলেও এগিয়ে যেতে হবে: স্টিভ রোডস

লন্ডন, ০৪ জুলাই- বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি মুর্তজার অবসর নিয়ে লর্ডসে গুঞ্জন। এখানেই কি বাংলাদেশের সেরা অধিনায়কের পথ চলা থেমে যাবে? থামুক আর না থামুক- সেসব প্রশ্নের উত্তরে যেতে চাইলেন না হেড কোচ স্টিভ রোডস। বাস্তবতা মেনে এখন থেকেই তৈরি হতে বলেছেন বাকি ক্রিকেটারদের।

চলতি বিশ্বকাপে ৭ ম্যাচে কেবল ১টি উইকেট নিতে পেরেছেন বাংলাদেশের সফলতম ওয়ানডে বোলার। বিশ্বকাপের শুরু থেকে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে ভুগছেন। চোট নিয়ে খেলেছেন প্রতিটি ম্যাচ। শুক্রবার পাকিস্তানের বিপক্ষে লর্ডসে অবসর না নিলে চলতি মাসের শেষ দিকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ হওয়ার সম্ভাবনা আছে। সে সফরে কি মাশরাফিকে পাওয়ার আশা করছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে স্টিভ রোডস নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারলেন না, ‘মাশরাফি আমাদের দলের নেতা। সে যদি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলে, তাহলে আমাদের জন্য দারুণ ব্যাপার হবে। যদি অন্য কিছু ভাবে সেটাও ভালো। আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। জীবন তো থেমে থাকবে না। সে আমাদের সঙ্গে থাকলে অসাধারণ ব্যাপার। আবার সে না থাকলেও আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।’

সংবাদ সম্মেলন শেষ হতেই মাশরাফিকে ছাড়া এগিয়ে চলা বলার কারণে যাতে কোন ভুল বোঝাবুঝি না হয় এর ব্যাখ্যাও দিয়েছেন স্টিভ রোডস, ‘মাশরাফিকে নিয়ে আমাকে বলতে হবে, আমিও জানি এখান থেকেই আপনারা শিরোনাম বেছে নেবেন। তাই আবারও ব্যাখ্যা করছি। মাশরাফি যদি শ্রীলঙ্কাতে না যায়, আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। মাশরাফিকে ছাড়া একদিন বাংলাদেশ দলকে চলতে হবে। সেটা বিশ্বকাপের পরে হোক আর এক বছর পর হোক, কিন্তু চলতেই হবে। কাজটা সহজ নয়। তার মতো একজনের শূন্যতা পূরণ সত্যিই খুব কঠিন।’

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে মাশরাফির অবসর নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে আলোচনা হয়েছে বেশি। মাশরাফিকে নিয়ে এমন আলোচনা দলে কি কোন প্রভাব ফেলছে? এমন প্রশ্নের জবাবে স্টিভ রোডসের উত্তর, ‘এসব আলোচনা দলে কোন প্রভাব ফেলছে না। সমর্থকদের চিন্তা, মিডিয়ার হাইপ, সামাজিক মাধ্যমের আলোচনা- এসবে ছেলেরা ভালো করেই মানিয়ে নিয়েছে। সংবাদমাধ্যমের নানা শিরোনাম দেখে তারা অভ্যস্ত। ওদের তা খুব স্পর্শ করে না।’

আগে থেকেই জানা পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি দিয়েই বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচটি খেলতে যাচ্ছেন মাশরাফি। দলের অনুপ্রেরণাদায়ী নেতা, মাঠের ভেতরে-বাইরে এমন কাছের একজনের বিদায়ী ম্যাচে আবেগ ছুঁয়ে যাওয়া স্বাভাবিক বলে মনে করেন রোডস, ‘মাশরাফিকে তার সতীর্থরা অবিশ্বাস্য রকম সম্মান করে। আমি প্রায় তাকে যোদ্ধা বলে ডাকি। কারণ সে তার দল নিয়ে যুদ্ধ করে। ছেলেরা এটাকে সম্মান করে, তাকে ভালোবাসে। তার বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচে ছেলেদের আবেগ স্পর্শ করতেই পারে।’

অবশ্য আবেগ নিয়ন্ত্রণ করে শেষ ম্যাচের দিকে মনোযোগ রাখতে বললেন শিষ্যদের, ‘আমার দায়িত্ব হলো, কাজটা ঠিকঠাক হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করা। মাশরাফির শেষ বিশ্বকাপ ম্যাচের বাস্তবতা বুঝেই ক্রিকেটে মনোযোগটা দেওয়া উচিত।’

এনইউ / ০৪ জুলাই

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে