Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ , ৫ আশ্বিন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-০৪-২০১৯

রাজধানীর তিনটি গুরুত্বপূর্ণ সড়কে রিকশা বন্ধ 

রাজধানীর তিনটি গুরুত্বপূর্ণ সড়কে রিকশা বন্ধ 

ঢাকা, ০৪ জুলাই- রাজধানীর তিন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে রিকশা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী রবিবার থেকে গাবতলী-আজিমপুর, সায়েন্স ল্যাব-শাহবাগ এবং কুড়িল-রামপুরা-সায়েদাবাদ—এই তিন সড়কে রিকশা চলতে দেওয়া হবে না। 

গতকাল বুধবার ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) নগর ভবনে আয়োজিত ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের (ডিটিসিএ) গঠিত কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ডিএসসিসির মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

ডিটিসিএর কর্মকর্তারা জানান, রাজধানীর সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়েছে। অন্যান্য গণপরিবহনের তুলনায় রিকশার গতি কম হওয়ায় সড়কে যানজট বাড়ে। একই সঙ্গে রিকশার জন্য ঢাকার সড়কে আলাদা কোনো লেন না থাকায় সড়কজুড়ে রিকশার আধিক্য থাকে। ফলে মোটরচালিত গণপরিবহন সঠিক গতিতে চলতে পারে না। তাই এই দুই সড়কে প্রাথমিক পর্যায়ে রিকশা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী ৭ জুলাই থেকে এই তিন রুটে কোনো রিকশা চলতে দেওয়া হবে না। রিকশা বন্ধের কাজ বাস্তবায়ন করবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। তবে ফুটপাত পরিষ্কার রাখা এবং ট্রাফিক অবকাঠামো সংক্রান্ত কাজ নিশ্চিত করবে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। এ ছাড়া পুরো বিষয়টি দেখভাল করবে বিভিন্ন সংস্থার সমন্বয়ে গঠিত ১২ সদস্যের কমিটি।

মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে দুই সড়কে রিকশা চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এই তিন সড়ক ছাড়াও ঢাকার অন্য গুরুত্বপূর্ণ সড়কেও রিকশা, হিউম্যান হলার, লেগুনাসহ অবৈধ সব যান পর্যায়ক্রমে বন্ধ করা হবে।’

তিন সড়ক থেকে রিকশা বন্ধের বিষয়টি কোন সংস্থা নিশ্চিত করবে জানতে চাইলে ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘এই সিদ্ধান্ত সরাসরি বাস্তবায়ন করবে পুলিশ। তবে সড়কের ফুটপাত দখলমুক্ত রাখার দায়িত্ব দুই সিটি করপোরেশনের। পুরো বিষয়টি সমন্বিতভাবে দেখভাল করবে সব সংস্থার প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে গঠিত ১২ সদস্যের কমিটি।’

এর আগে গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর সড়ক নিরাপত্তা এবং গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরাতে ডিএসসিসি মেয়রকে প্রধান করে ১০ সদস্যের কমিটি গঠন করে সরকার। ওই কমিটি ছয়টি কম্পানির মাধ্যমে রাজধানীর সব বাস নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে কাজ করছে। এরই অংশ হিসেবে ধানমণ্ডি-নিউ মার্কেট-আজিমপুর এবং উত্তরা-মালিবাগ-গুলিস্তান রুটে চক্রাকার বাস চালু করা হয়েছে। পরে বিমানবন্দর থেকে দিয়াবাড়ী রুটে আরেকটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত চক্রাকার বাসসেবা চালু করা হয়।

ডিএসসিসি সভাকক্ষে আয়োজিত সভায় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান মশিয়ার রহমান, বাংলাদেশ পরিবহন করপোরেশন (বিআরটিসি) চেয়ারম্যান ফরিদ আহমদ ভূঁইয়া, ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মফিজ উদ্দিন আহমেদ, ঢাকা পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এনায়েতুল্লাহ খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: কালের কন্ঠ
এমএ/ ১০:০০ ০৪ জুলাই

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে