Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৯ , ৪ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (11 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-১৫-২০১৩

জাতীয় সংসদ নির্বাচন : ফরিদপুর ১ আসনে আওয়ামী লীগ এগিয়ে আছে


	জাতীয় সংসদ নির্বাচন : ফরিদপুর ১ আসনে আওয়ামী লীগ এগিয়ে আছে
ফরিদপুর, ১৫ সেপ্টেম্বর- আগামী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় যতই ঘনিয়ে আসছে ততই বাড়ছে প্রধান দুই দলের মধ্যে গ্রুপিং। ফরিদপুরের চারটি আসনেই দলীয় নেতাকর্মীদের মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছেন বর্তমান সরকার দলীয় এমপিরা। চারটির মধ্যে দুইটি আসনেই বিএনপি রয়েছে তুলনামুলক সুবিধা জনক অবস্থানে। তবে ফরিদপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর জয়ের সম্ববনা এগিয়ে আছে। 
ফরিদপুর-১ (বোয়ালমারী-মধুখালী-আলফাডাঙ্গা) আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ফরিদপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে যারা এলাকায় ব্যাপক গণসংযোগ ও কেন্দ্রে লবিং করে যাচ্ছেন তারা হলেন হলেন বর্তমান সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ফাউন্ডেশনের সভাপতি এলাকায় তরুন নেতা হিসাবে ইতিমধ্যেই দলীয় নেতা-কর্মীদের মন জয় করে নিয়েছেন লায়ন মো. সাখাওয়াত হোসেন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি লিয়াকত সিকদার, বোয়ালমারী উপজেলা চেয়ারম্যান ও বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়া এবং বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ডের চেয়ারম্যান ডা. দিলীপ রায়।
এ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেতে এলাকায় গণসংযোগ ও কেন্দ্র লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন ফরিদপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য খন্দকার নাসিরুল ইসলাম, সাবেক সংসদ সদস্য শাহ্ মো. আবু জাফর, সাবেক সংসদ সদস্য কাজী সিরাজুল ইসলাম ও কেন্দ্রীয় যুব দলের সহ সভাপতি মনিরজ্জামান মনির। 
ফরিদপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগের কোন্দল চরম আকার ধারণ করেছে। বর্তমান সংসদ সদস্য আব্দুর রহমানের সাথে আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীদের সাথে সম্পের্কের অবনতি হওয়ায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা প্রকাশ্যেই সমালোচনা করছেন বর্তমান সংসদ সদস্যের বিভিন্ন কর্মকান্ডের। স¤প্রতি গণভবনে অনুষ্ঠিত ফরিদপুরের তৃণমূল নেতাদের সাথে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকেও বর্তমান সংসদ সদস্যের ব্যাপক সমালোচনা করেন স্থানীয় নেতারা। আগামী সংসদ নির্বাচনে নেতৃত্বের পরিবতনের মাধ্যমে আসন টিকিয়ে রাখতে এক মত পোষণ করেছেন মনোনয়ন প্রত্যাশী। তাকে ঠেকাতে দলের বড় একটি অংশ সক্রিয় হয়ে কাজ করছেন। তিনি এলাকায় কিছুটা উন্নয়ন করলেও তার সাথে তৃণমূল নেতাকর্মীদের দূরত্ব অনেক। 
এদিকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেতে জোরেশোরে মাঠে নেমেছেন বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ফাউন্ডেশনের সভাপতি হাস্যউজ্জল বয়সে তরুন নেতা যিনি ইতিমধ্যেই মনবল ভেঙ্গে পড়া নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছেন লায়ন মো. সাখাওয়াত হোসেন। তিনি দীর্ঘ দিন ধরে স্থানীয় নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে তার নির্বাচনী এলাকার তিনটি উপজেলায় ব্যাপক গণসংযোগ করছেন। অতি অল্প সময়ের মধ্যে তার নির্বাচনী এলাকায় ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। এছাড়াও এ আসনে মনোনয়ন চাইবেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লিয়াকত সিকদার, বোয়ালমারী উপজেলা চেয়ারম্যান ও বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়া এবং বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথি বোর্ডের চেয়ারম্যান ডা. দিলীপ রায়।
এদিকে বিএনপি প্রার্থীদের মধ্যে সুবিধা জনক অবস্থানে আছেন সাবেক সংসদ সদস্য খন্দকার নাসিরুল ইসলাম। এছাড়াও মনোনয়ন চাইবেন সাবেক সংসদ সদস্য শাহ্ মো. আবু জাফর। তিনি এ আসনে এর আগের তিন দল থেকে চার বার সংসদ সদস্য হয়েছেন। অন্যদিকে সাবেক সংসদ সদস্য কাজী সিরাজুল ইসলাম দুই বার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে সংসদ সদস্য নিবার্চীত হয়েছিলেন। ২০০৫ সালে তিনি আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য থাকা অবস্থায় বিএনপিতে যোগদেন। এরপর তিনি নিবার্চনী এলাকায় গাড়ীর বহর নিয়ে প্রবেশ করতে চেষ্টা করলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের তোপের মুখে পড়ে। তখন বিক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ এর কর্মীরা তার বহরের ৭টি গাড়ী আগুন জ্বালিয়ে দেয়। তিনিও দশম জাতীয় সংসদ নিবার্চনে এ আসন থেকে নিবার্চনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানাযায়। তবে ফরিদপুর-১ আসন আওয়ামী লীগের ঘাটি হিসাবে পরিচিত। এ আসন এবাও আওয়ামী লীগের দখলে যেতেপারে বলে সাধারণ ভোটাররা মনেকরছেন।

ফরিদপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে