Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন, ২০১৯ , ১২ আষাঢ় ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.2/5 (27 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৯-১৫-২০১৩

নাগরপুরে হিন্দু বাড়িতে ডাকাতি মামলা ভিন্নখাতে প্রভাহিত চেষ্টা : গ্রেপ্তার ২জন


	নাগরপুরে হিন্দু বাড়িতে ডাকাতি মামলা ভিন্নখাতে প্রভাহিত চেষ্টা : গ্রেপ্তার ২জন
টাঙ্গাইল, ১৫ সেপ্টেম্বর- নাগরপুর উপজেলার সহবতপুর ইউনিয়নের কোকদাইর গ্রামে এক সংখ্যালঘু হিন্দু বাড়িতে ডাকাতির মামলাটি ভিন্নখাতে প্রভাহিত করার জন্য একটি বিশেষ মহল তৎপরতা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গ্রেপ্তারকৃত দুই আসামীর সহযোগীরা মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি দিচ্ছে, মামলা তুলে না নিলে ভিকটিম হিন্দু পরিবারের সদস্যদের খুন করে লাশ গুম করা হবে। অব্যাহত হুমকির কারণে নিরীহ হিন্দু পরিবার এবং এলাকার অন্যান্য সংখ্যালঘু পরিবারের সদস্যদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। তারা সরকারের নিকট নিজেদের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানের আবেদন জানিয়েছেন।
জানা গেছে, গত ৬ সেপ্টেম্বর রাত পৌনে ২টায় ৯/১০জনের একদল ডাকাত মারাত্মক অস্ত্রসজ্জিত হয়ে তালা ও দরকার ছিটকিনি ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে কোকদাইর গ্রামের অমল কুমার সাহার ঘরে । তারা প্রথমে গৃহস্বামীর মেঝো ছেলে ব্যবসায়ী সুশান্ত কুমার সাহার (৪২) উপর হামলা চালায়। তারা ধারালো অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে তার নিকট যা আছে দিতে নির্দেশ দেয়। এ সময় ডাকাতরা তাদের সাথে থাকা অস্ত্র দিয়ে সুশান্তর মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় ভাইকে রক্ষার জন্য অপর ভাই সুকোমল সাহা চন্ডি (৪৫) এগিয়ে এলে ডাকাতরা তাকেও বেদম প্রহার করে। এরপর তারা এই বাড়ি থেকে নগদ টাকা, বিদেশী মুদ্রাসহ প্রায় এক লাখ টাকা মূল্যের মালামাল লুট করে। প্রায় ১৫ মিনিট ধরে ডাকাতির পর আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসছে বুঝতে পেরে ডাকাতরা বিকট শব্দে একটি পটকা ফাটিয়ে পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে ৭ সেপ্টেম্বর গৃহস্বামী অমল কুমারের অপর ছেলে টুটন কুমার সাথে (২৮) বাদি হয়ে নাগরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে কুকদাইর গ্রামের মৃত তুলা মিয়ার ছেলে কিবরিয়া (৩২) ও ভাররা গ্রামের নাসিরের ছেলে মাহিন (২৫)কে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পর ধৃতদের একদিনের রিমান্ডে আনে নাগরপুর থানা পুলিশ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান, রিমান্ডে ধৃতরা ডাকাতির ঘটনায় তাদের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে জড়িত অন্যান্য অপরাধীদের নামও বলেছে। পুলিশ বাকী জড়িতদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চালাচ্ছে। বাদিপক্ষ অভিযোগ করেছেন গ্রেফতারকৃত আসামীদের ঘনিষ্ঠজন এবং সহযোগীরা মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি দিচ্ছে। নইলে তারা অপহরণ, খুন এবং লাশ গুম করার ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। অব্যাহত হুমকির কারণে এলাকার সংখ্যা লঘুদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পরেছে।

টাঙ্গাইল

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে