Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ১ পৌষ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (16 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০১-২০১১

২০১১ বিশ্বের অন্যতম উষ্ণ বছর

২০১১ বিশ্বের অন্যতম উষ্ণ বছর
বিশ্বের উষ্ণতা ক্রমেই বাড়ছে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১১ সালকে বিশ্বে অন্যতম উষ্ণ বছর হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে। আর এর জন্য মানুষ নিজেই দায়ী।

মঙ্গলবার বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা (ডব্লিউএমও)'র এক প্রতিবেদনে একথা জানায়।

বৈশ্বিক গড় তাপমাত্রা বৃদ্ধির ফলে বন্যা, খরা ও আবহাওয়ার অন্যান্য ধরনে পরিবর্তন আসতে পারে বলেও প্রতিবেদনে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

ডব্লিউএমও তাদের প্রতিবেদনটি এমন একটি সময়ে প্রকাশ করেছে যখন জাতিসংঘের জলবায়ু বিষয়ক আলোচনার জন্য ডারবানে প্রায় ২শ?টি দেশের প্রতিনিধিরা জড়ো হয়েছেন।

বৈশ্বিক উষ্ণতার জন্য দায়ী গ্রিন হাউস গ্যাস নির্গমণের মাত্রা কমাতে একটি চুক্তি করার লক্ষ্যে আগামী ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ আলোচনা চলবে।

ডব্লিউএমও'র উপ মহাসচিব জেরি লেঙ্গোয়াসা ডারবানে সাংবাদিকদের বলেন, "আমাদের বিজ্ঞান নির্ভুল। সেই বিজ্ঞানই প্রমাণ করেছে, মানুষের কর্মকাণ্ডের জন্যই বিশ্ব উষ্ণ হয়ে উঠছে।"

জাতিসংঘের অঙ্গ সংস্থা ডব্লিউএমও জানায়, ১৯৯৭ সাল থেকে গত ১৫ বছরের মধ্যে ১৩ বছরই ছিলো বৈশ্বিক গড় তাপমাত্রার মধ্যে সবচেয়ে উষ্ণ সময়। এর কারণে জলবায়ু পরিবর্তিত হওয়ায় তীব্র খরা ও প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়েছে।

ওই সংস্থাটি আরো জানায়, ২০১১ সাল বৈশ্বিক সর্বোচ্চ তাপমাত্রার ১০ম স্থানে দাঁড়িয়েছে।

এ বছর শক্তিশালী লা নিনায় বৈশ্বিক জলাবায়ুর প্রভাবিত হওয়ার কথাও জানিয়েছে সংস্থাটি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্রিন হাউস গ্যাস নির্গমন সারা বিশ্বকে প্রায় অপরিবর্তনীয় একটি অবস্থানে নিয়ে যাচ্ছে।

পৃথক এক বিবৃতিতে ডব্লিউএমও'র মহাসচিব মাইকেল জারায়ুড বলেন, "পরিবেশে গ্রিন হাইস গ্যাসের পরিমান সর্বোচ্চ পর্যায়ে রয়েছে।"

জাতিসংঘের বিজ্ঞানীরা এ মাসে পৃথক এক প্রতিবেদনে জানান, তাপপ্রবাহ বাড়ার সম্ভাবনা প্রায় নিশ্চিত। আর উষ্ণ জলবায়ুর প্রভাবে এ শতাব্দীতে সারাবিশ্বে অতিরিক্ত বৃষ্টিপাত, আরো বন্যা, শক্তিশালী সাইক্লোন, ভূমিধস ও আরো ভয়াবহ খরার সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জানান তারা।

অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট জানায়, বিভিন্ন দেশের সরকার গ্যাস নির্গমন, হিমবাহ গলে যাওয়ার মতো ক্ষতিকর বিভিন্ন পরিবর্তন, সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি ও ছোট ছোট দ্বীপ রাষ্ট্রগুলোর ডুবে যাওয়া নিয়ন্ত্রন করতে না পারলে এ শতাব্দীর শেষ নাগাদ বৈশ্বিক গড় তাপমাত্রা ৩-৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে।

এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে