Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ , ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৫-২১-২০১৯

এক্সিট পোল প্রকাশ্যে ঝটকা খেলো তৃণমূল! বিজেপির সাথে যোগাযোগ দলের দুই সাংসদের

এক্সিট পোল প্রকাশ্যে ঝটকা খেলো তৃণমূল! বিজেপির সাথে যোগাযোগ দলের দুই সাংসদের

কলকাতা, ২১ মে- রবিবার সম্পন্ন হয়েছে সপ্তদশ লোকসভার ভোটিং প্রক্রিয়া। আর ভোট প্রক্রিয়া শেষ হতেই প্রকাশ্যে এসেছে EXIT POLL। বিভিন্ন এজেন্সির বুথ ফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী, এবারের লোকসভা ভোটে বিপুল জনমত নিয়ে কেন্দ্রে আবার সরকার গঠন করতে চলেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। এবং অবশ্যই আবারও প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন দেশের সবথেকে জনপ্রিয় নেতা নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদী।

এবারের নির্বাচনী প্রচারে প্রতিটি দলের কাছে অন্য কোন ইস্যু থাকুক আর না থাকুক, সবার মুখে ছিল একটাই নাম! আর সেটা হল ‘নরেন্দ্র মোদী”। সবাই চেয়েছিল কোনরকম ভাবে কেন্দ্র থেকে মোদী সরকারকে হটাতে। আর এর জন্য দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দল গুলো একে অপরের সাথে জোট বেঁধে ছিল। আবার যারা জোট বাধেননি, তাঁরা ফল প্রকাশের পর জোট বেঁধে কেন্দ্র থেকে নরেন্দ্র মোদীর সরকার কে উপড়ে ফেলার সংকল্প নিয়েছিল।

এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীও ঠিক সেরকমই কিছু ভেবেছিলেন। এরজন্য উনি ওনার ম্যারাথন জনসভা থেকে নিজের করা কাজের খতিয়ান তোলার থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করা শ্রেয় বলে মনে করেছিলেন। এমনকি উনি এক জনসভা থেকে নরেন্দ্র মোদীকে প্রধানমন্ত্রী রুপে মানেন না বলে বলেছিলেন।

বিভিন্ন রাজনৈতিক দল যেমন নরেন্দ্র মোদীকে কেন্দ্র থেকে সরানোর জন্য উঠেপড়ে লেগেছিল। তেমনই নিজের ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য বদ্ধপরিকর হয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী। আর তিনি বাংলায় পদ্ম শিবিরের ঘাঁটি মজবুত করার জন্য একের পর এক সভা করে গেছিলেন। শ্রীরামপুরে দলীয় প্রার্থী দেবজিত সরকারের সমর্থনে এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীকে কার্যত হুমকির সূরেই বলেছিলেন তিনি, ‘দিদি আপনার দলের বহু নেতা, বিধায়ক আমার সাথে যোগাযোগ রাখছে। আপনি আগে নিজের দল সামলান, পরে আমাদের কথা ভাববেন।”

প্রধানমন্ত্রীর সেই হুঁশিয়ারি এখন সত্য হয়ে সামনে আসতে চলেছে। ইংরেজি সংবাদ মাধ্যম Times Now এর অনুযায়ী, তৃণমূলের দুই সাংসদ এক্সিট পোল প্রকাশ্যে আসার পরেই বিজেপির সাথে যোগাযোগ শুরু করে দিয়েছেন। যদিও ওই সংবাদ মাধ্যম তৃণমূলের দুই সাংসদের নাম প্রকাশ্যে আনেনি।

Times Now রিপোর্ট অনুযায়ী, তৃণমূলের দুই বিদায়ী সাংসদ দিল্লীতে বিজেপির জাতীয় স্তরের নেতাদের সাথে ফোনে কথাবার্তা চালাচ্ছে। Times Now জানিয়েছে যে, ২৩ শে মে ফল প্রকাশের পর তাঁরা জয়লাভ করলে বিজেপির রাজ্য অফিসে গিয়ে গেরুয়া শিবিরে যোগ দেবেন। Times Now এর এই চাঞ্চল্যকর রিপোর্টের পর তৃণমূলের অন্দরে চরম আশঙ্কাজনক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

আর/০৮:১৪/২১ মে

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে